channel 24

সর্বশেষ

  • যুক্তরাষ্ট্রে করোনার টিকা প্রদান শুরু হতে পারে ১১ ডিসেম্বর

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের ভবিষ্যৎ লড়াই হবে ইন্টারনেটে!

যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের ভবিষ্যৎ লড়াই হবে ইন্টারনেটে!

পৃথিবীর শীর্ষ দুই পরাশক্তি যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের ভূ-রাজনৈতিক দ্বন্দ্বে সাইবার জগত নতুন অনুষঙ্গ হওয়ার শঙ্কা করছেন আন্তর্জাতিক গবেষকরা। দেশের গবেষক ও প্রযুক্তিবিদরা মনে করেন, এমন আশঙ্কা সত্যি হওয়ার আগেই সফটওয়্যার এবং সাইবার নিরাপত্তা খাতে মনোযোগী হতে হবে বাংলাদেশকে। পাশাপাশি বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহারকারীদের যে তথ্য সংরক্ষণ করে সেগুলোর নিরাপত্তায় কাজ করতে হবে সরকারকে।

আগষ্টে গুপ্তচর বৃত্তির অভিযোগ এনে বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় চীনা অ্যাপস টিকটক আমেরিকায় বন্ধের হুমকি দেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শীতল যুদ্ধে যুক্ত হয় সাইবার জগতে আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা।

যদিও বহু আগে থেকেই সাইবার দুনিয়ায় নিজস্ব বলয় তৈরি করে রেখেছে চীন। সেখানে নিষিদ্ধ গুগল, ফেসবুকের মতো অ্যাপগুলো। বিপরীতে যুক্তরাষ্ট্রেরও রয়েছে শক্তিশালী সাইবার নিরাপত্তা ব্যবস্থা। ফলে দুই পরাশক্তির ভবিষ্যত লড়াই হবে ইন্টারনেট জগতে, এমন শঙ্কা আন্তর্জাতিক গবেষণা সংস্থা ইউরেশিয়ার।

ইউরেশিয়ার বৈশ্বিক প্রযুক্তি প্রয়োগ অধ্যয়ন বিভাগের প্রধান পল ট্রিলিও বলেন, স্পিন্টারনেটের মতো আলাদা দুই সাইবার দুনিয়া বিভাজিত হওয়ায় পথে তথ্য ভান্ডার এবং তা পরিচালনা নীতি গুরুত্বপূর্ন নিয়ন্ত্রক হবে। ফলে গভীর বিভাজন দেখা দিলে সারা বিশ্বের ব্যবহারকারীদের যে কোনো একটি পথেই হাটতে হবে।

বৈশ্বিক সাইবার যুদ্ধ শুরুর আগেই বাংলাদেশের সক্ষমতা বাড়ানোর তাগিদ গবেষকদের।

আর প্রযুক্তিবিদরা বলছেন, তথ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিতে সোচ্চার হতে হবে রাষ্ট্রকেই।

বিশ্বে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী শীর্ষ দশ দেশের তালিকায় আছে বাংলাদেশ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর