channel 24

সর্বশেষ

  • বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করেছে জাতিসংঘ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি খুনে মাফিয়াদের বিচার চান স্বজনরা

  • বাসভাড়া বৃদ্ধি মরার উপর খাড়াঁর ঘা

  • সীমিত পরিসরে সেবার নামে বাসভাড়া ৮০ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব

  • চট্টগ্রামে এবার চিকিৎসা পেলেন না স্বাস্থ্য পরিচালকের মা!

  • কক্সবাজারে নতুন করে ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত

  • ভার্চুয়াল শপথ নিলেন ১৮ বিচারপতি

  • করোনাকালে অসহায়দের পাশে 'ওল্ড ল্যাবরেটরি অ্যাসোসিয়েশন'

  • মেহেরপুরে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন তিন চিকিৎসক

  • রিয়াল বেতিস-সেভিয়া ম্যাচ দিয়ে মাঠে ফিরছে লা লিগা

  • প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা ছাড়া কোনো রোগীকে ফেরত দেওয়া যাবে না

  • সোমবার শুরু হচ্ছে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চলাচল

  • কাল শুরু হচ্ছে সীমিত আকারে ট্রেন চলাচল

  • চট্টগ্রামে ১০ দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুন

  • চলে গেলেন সাবেক তারকা ফুটবলার গোলাম রব্বানী হেলাল

করোনা সুরক্ষা নামে অ্যাপ তৈরি করল বাংলাদেশি তরুণরা

করোনা সুরক্ষা নামে অ্যাপ তৈরি করল বাংলাদেশি তরুণরা

বিশ্বজুড়ে করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে যখন জোর চেষ্টা চিকিৎসক-গবেষকদের তখন পিছিয়ে নেই তথ্য প্রযুক্তিবিদরাও। বাংলাদেশের একদল তরুণ তথ্য প্রযুক্তিবিদ তৈরি করেছেন করোনা সুরক্ষা নামে একটি অ্যাপ। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পন্ন পদ্ধতির অ্যাপটি ব্যবহার করে ঘরে থাকতে বাধ্য করা হবে, বিদেশ ফেরত ও লকডাউন এলাকার মানুষকে। শিগগিরই ব্যবহার শুরু হবে অ্যাপটির।

আর্টিফিসিয়াল ইন্টিলিজেন্স সিস্টেম বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা পদ্ধতি। যার মাধ্যমে সিসিটিভি ও মোবাইলের ক্যামেরা থেকে মানুষর মুখ কিংবা যানবাহনের নম্বর প্লেটের যাবতীয় তথ্য সংগ্রহ করা হয়। দেশের বেশ কিছু জায়গায় ইতিমধ্যে ব্যবহৃত হচ্ছে এই পদ্ধতি। শুধু তথ্য সংগ্রহই নয়, অননুমোদিত কোন ব্যক্তি কিংবা যানবাহন সংশ্লিষ্ট এলাকায় প্রবেশ করলে তাও সনাক্ত হয় এই অ্যাপসের মাধ্যমে।

একই আদলে করোনা সুরক্ষা নামে একটি অ্যাপ তৈরি করেছে বাংলাদেশি আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স কোম্পানি- গেইজ টেকনোলজি, যার সহযোগিতায় আছে আইসিটি ডিভিশন, স্টার্টআপ বাংলাদেশসহ সংশ্লিষ্ট নানা বিভাগ।

যা দিয়ে মূলত বিদেশ ফেরত কেউ কোয়ারেন্টিন না মেনে ঘর থেকে বের হলে ধরা পড়বে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর জালে। লকডাউন এলাকার সবার তথ্য এই অ্যাপে সংযুক্ত করা হলে, একই পদ্ধতিতে ধরা যাবে নিয়ম অমান্যকারীদের। করোনা সংক্রমন রোধে নজরদারি সংক্রান্ত এমন বহুবিধ ব্যবহার রয়েছে অ্যাপসটির। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, খুব শিগগিরই এর ব্যবহার শুরু করবে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী।

করোনা সংক্রমণ রোধে একই ধাচের অ্যাপসের প্রয়োগ দেখা গেছে পৃথিবীর নানা দেশে। রাশিয়ার মস্কোতে বসানো হয়েছে প্রায় ১০ হাজার সারভেইলেন্স বা নজরদারি ক্যামেরা। কোয়ারেন্টিন অমান্য করে বাইরে ঘোরাফেরা করলেই সে তথ্য স্বয়ংক্রিয়ভাবে চলে যাচ্ছে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর কাছে। এ কারণে বর্তমানে শহরটিতে আক্রান্তের হারও অন্যদেশের তুলনায় কম।

একই পদ্ধতি ব্যবহার হয়েছে চীনের উহানেও।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর