channel 24

সর্বশেষ

  • অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর স্থগিত

  • লকডাউনের পরও রাজধানীতে মানুষকে ঘরে রাখা যাচ্ছে না

  • ব্যক্তিগত-প্রাতিষ্ঠানিক ত্রাণের তালিকায় নেই শিশু খাদ্য

  • নারায়ণগঞ্জে ডিসি, সিভিল সার্জনসহ কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তা হোম কোয়ারেন্টিনে

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে ৫ টাকায় সবজি বাজার

  • নাটোরের সিংড়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু, পুরো গ্রাম লকডাউন

  • চট্টগ্রামে আরো তিনজন করোনারোগী সনাক্ত

  • বগুড়ায় গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা, স্বামী পলাতক

  • চাঁদপুর অনির্দিষ্টকালের জন্য লকডাউন

  • ঠাকুরগাঁওয়ে ওএমএস’র ৬৩০ বস্তা চাল জব্দ, আটক ১

  • নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ঠাকুরগাঁওয়ে আসায় ৯০ জন আটক

  • করোনা উপসর্গ নিয়ে আরও ৯ জনের মৃত্যু

  • ২৪ ঘন্টা সেবা দিতে প্রস্তুত ৬৪টি বেসরকারি হাসপাতাল

  • করোনায় বিশ্বে প্রাণহানি ৮৮ হাজার ৫৬৭; আক্রান্ত প্রায় ১৫ লাখ

  • দেশে করোনায় ২৪ ঘন্টায় প্রাণহানি ১, নতুন করে শনাক্ত ১১২: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সফটওয়্যারকেন্দ্রিক অ্যাপ তৈরি করে বিপুল আয়ের সম্ভাবনা

সফটওয়্যারকেন্দ্রিক অ্যাপ তৈরি করে বিপুল আয়ের সম্ভাবনা

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে থেকে ৫ বিলিয়ন ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করছে সরকার। বিগত কয়েক বছর যাবত দ্রুত গতিতে আয়ের প্রবৃদ্ধিই নতুন এই লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারনের প্রধান কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। আর এই আয়ের অন্যতম প্রধান মাধ্যম সফটওয়্যারকেন্দ্রিক অ্যাপ তৈরি প্রক্রিয়া। নির্মাতাদের মতে, দেশ এবং পণ্যের যথাযথ প্রচারনার পাশাপাশি বাস্তবমুখী পরিকল্পনা সাজালে অসম্ভব নয় এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জন।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের সব শ্রেণির পাঠ্য বইয়ের, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন-এসসিটিবি বুকস তৈরি করছেন দেশীয় নির্মাতারা।  এছাড়া বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই সংস্থাটির ওয়েবসাইটে পাঠ্যপুস্তকগুলোর পিপিএফ রূপও দেয়া আছে।

মাধ্যমিক পর্যায়ের ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণির সাধারণ বিজ্ঞান বিষয়টিকে শিক্ষার্থীদের কাছে আরও সহজ ও আকর্ষণীয় করতে, ২০১৮ সালে 'বিজ্ঞানের রাজ্যে' নামে তিনটি গেম তৈরি করে, দেশীয় অ্যাপ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান-ড্রিম সেভেন্টিওয়ান। তবে, শুধু প্রচার-প্রচারণার অভাবে পরিচিতি পায়নি তা।

ড্রিম ৭১ বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাশাদ কবির বলেন, আমাদের মার্কেটিংয়ের যে শিক্ষা থাকা দরকার সেখানে যথেষ্ট ঘাটতি রয়েছে।  

গেল বছর সফটওয়্যার খাত থেকে একশো কোটি ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে গেছে বাংলাদেশ। তাই ২০২৫ সাল নাগাদ নতুন লক্ষ্যমাত্রা ৫শো কোটি ডলার। অ্যাপ নির্মাতারা বলছেন, লক্ষ্য কঠিন হলেও সঠিক পরিকল্পনায় এটি অর্জন সম্ভব।

ব্রেন স্টেশন ২৩ এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাইসুল কবির বলেন, কঠিন হলেও সঠিক পরিকল্পনায় এটি অর্জন সম্ভব। তবে এই ক্ষেত্রে আমারা যারা বেসরকারি ক্ষেত্রে কাজ করছি তদেরকে সরকারের পুরো সাপোর্ট দিতে হবে। ভালো অর্গানাইজেশনগুলোকে সামনে আগায় আসতে হবে যেন ভাল কোয়ালিটির ছেলেপেলেদের ট্রেনিং দিয়ে তাঁদের নেয়া যায়।

অতীতের বেশকিছু ব্যর্থতার দৃষ্টান্তকে শিক্ষনীয় হিসেবে সামনে রেখে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা করেছে সরকার। তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, আমাদের যে অভিজ্ঞতা হয়েছে গত ১০-১১ বছরে, এখন আমরা আরও বেশি আত্মবিশ্বাসী যে আমাদের দেশের সফটওয়্যার ডেভেলপাররাই আমাদের যে প্রয়োজনীয় সফটওয়্যার ডেভেলপ করে আমারা আমাদের চাহিদা পূরণ করতে পারবো। মার্কেট অ্যানালাইসিস করে বলতে পারি যে আমরা ২০২৫ সাল নাগাদ ৫শো কোটি ডলার আমরা আয় করতে পারবো।

বর্তমানে বিশ্বজুড়ে প্রতি বছর গড়ে ১০ কোটি অ্যাপসের চাহিদা রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর