channel 24

সর্বশেষ

  • জামিন পেলেন লঙ্কান ক্রিকেটার কুশল মেন্ডিস

  • প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোর

  • বানের পানিতে তলিয়েছে ৫০ হাজার হেক্টর জমির ফসল

  • প্রস্তুতির জন্য অন্তত তিন সপ্তাহ সময় চান সৌম্য সরকার

  • কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর আর নেই

  • লাইসেন্সবিহীন রিজেন্ট হাসপাতালকে করোনা চিকিৎসায় সরকারি অনুমোদন

  • দ্বিতীয় দফার সংক্রমণে বেহাল দশা যুক্তরাষ্ট্র, চীন, নিউজিল্যান্ড ও ইরানের

  • ইংলিশ লিগে আজ মুখোমুখি এভারটন ও টটেনহ্যাম

  • সূচক কিছুটা গতিশীল হলেও বড় পরিবর্তন নেই লেনদেনে

  • রংপুর অঞ্চলে আউশের আবাদে রেকর্ড

  • ইংল্যান্ডে দু'দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলছেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা

  • করোনার ভুয়া টেস্ট রিপোর্ট দিতো রিজেন্ট হাসপাতাল

  • রিজার্ভ থেকে ঋণ নিয়ে উন্নয়ন কাজে লাগানো যায় কিনা, তা ভেবে দেখার পরামর্শ

  • আর্থিক সংকটে পাইওনিয়ার লিগ খেলা ফুটবলাররা

  • খুলনার সেই সালামকে মুক্তির নির্দেশ আদালতের

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনে কমেছে বিদেশ নির্ভরতা, বিশ্ববাজারে খ্যাতি দেশীয় প্রতিষ্ঠানের

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনে কমেছে বিদেশ নির্ভরতা, বিশ্ববাজারে খ্যাতি দেশীয় প্রতিষ্ঠানের

মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন তৈরিতে কমেছে বিদেশ নির্ভরতা। বিভিন্ন দেশের বাজারে বেশ সুনামের সাথে কাজ করছে বেশকিছু দেশীয় প্রতিষ্ঠান। গত কয়েক বছরে গুগল প্লে স্টোরসহ অ্যপস প্লাটফর্মগুলোতে দেশীয় নির্মাতাদের তৈরি অ্যাপসের সংখ্যা কয়েক লাখ। এতে সফটওয়্যার খাতে বিলিয়ন ডলারের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়েছে।

গ্রাহকের কাছে ব্যাংকিং কার্যক্রম সহজ করার ভাবনা থেকে তৈরি, মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন আইব্যাংক টুয়েন্টিথ্রি, যার নির্মাতা দেশীয় প্রতিষ্ঠান, ব্রেন স্টেশন টুয়েন্টিথ্রি। বেশ কিছু ব্যাংকের মতো সাত বছর আগে এটি ব্যবহার শুরু করে সিটি ব্যাংক। অ্যাপটির নাম দেয়া হয় সিটি টাচ। হংকংভিত্তিক নিউজপোর্টাল ফিন্যান্স এশিয়ার তথ্য মতে, এই অ্যাপের কারণে ২০১৭ সালে সিটি ব্যাংকের লেনদেন বেড়েছে প্রায় ৯০ শতাংশ।

তথ্যপ্রযুক্তির দুনিয়ায় সফটওয়্যারের অন্যতম ক্ষেত্র অ্যাপস তৈরিতে দেশীয় নির্মাতাদের অর্জন গত আট বছরে বেশ ঈর্শনীয়। ইউরোপ, যুক্তরাষ্ট্র, আফ্রিকা ও এশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশের পাশাপাশি স্থানীয় বাজারেও অনেক অ্যাপস বানাচ্ছেন দেশীয় নির্মাতারা। সরকারি গুরুত্বপূর্ন কয়েকটি সংস্থার নিজস্ব কার্যক্রমের স্বয়ংক্রিয়তা আনার পাশাপাশি পরিবহন ব্যবস্থা, আর্থিক লেনদেনভিত্তিক বেশ কিছু অ্যাপস এখন বিশ্বজুড়ে সমাদৃত।

নির্মাতারা জানান, ২০১৭ সালের আগেও দেশে অ্যাপসের বাজার ছিল ৫শ কোটি টাকার নীচে। তবে মাত্র তিন বছরের ব্যবধানে ২০১৯ সাল নাগাদ এটি হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। স্মার্ট ফোনের ব্যবহার বাড়ার ফলে এখন দেশীয় অ্যাপ ও কনটেন্টের চাহিদাও বেড়েছে।

বিশ্বে শক্তিশালী অবস্থান তৈরির পাশাপাশি দেশের বাজার পুরোপুরি নিজেদের দখলে আনতে সরকারের রয়েছে নানা পরিকল্পনা।

তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবসায়ীদের সংগঠন-বেসিস বলছে, দেশে অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করে এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কয়েক শ।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর