channel 24

সর্বশেষ

  • ঝড়-বৃষ্টিতে রাজধানীর বেশ কিছু স্থানে গাছ উপড়ে পড়ে যান চলাচল বন্ধ

  • করোনায় থমকে গেছে কমিউনিটি সেন্টার ও কনভেনশন হলের ব্যবসা

  • করোনা মহামারীর নতুন কেন্দ্র: পেলে, রোনালদো, নেইমারদের দেশ ব্রাজিল

  • নিজের আইনজীবীর কাছে মামলার ভবিষ্যত জানতে চান খালেদা জিয়া

  • করোনায় মৃতের পাশে নেই স্বজনরা, দাফন-সৎকারে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন

  • করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা লাখ ছাড়ালো

  • করোনায় বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি ছাড়িয়েছে সাড়ে ৩ লাখ

  • দেশের বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতসহ ঝড়-বৃষ্টিতে দেয়াল ধসে নিহত ৪

  • অবসর নয়, টেস্ট দলে ফেরার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে: মাহমুদুল্লাহ

  • ভারতের পশ্চিম ও মধ্যাঞ্চলের ৫ রাজ্যে পঙ্গপালের হানা

  • মাধবপুরে জমি দখল নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০

  • যমুনা নদীতে নৌকাডুবিতে দুজনের মরদেহ উদ্ধার

  • আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মুশফিকের ১৫ বছর

  • করোনায় মানবতার সেবায় দৃষ্টান্ত চাঁদপুরের চিকিৎসক দম্পতি

  • করোনায় ডেপুটি স্পিকারের স্ত্রী আনোয়ারা রাব্বীর মৃত্যু

গ্রামীন সংস্কৃতি ইউটিউব তুলে ধরে দেলোয়ারের মাসিক আয় ৬ লাখ টাকা

গ্রামীন সংস্কৃতি ইউটিউব তুলে ধরে দেলোয়ারের মাসিক আয় ৬ লাখ টাকা

দেশীয় সংস্কৃতি বিশ্ব দরবারে তুলে ধরতে তৈরি করা হয়েছে 'অ্যারাউন্ড মি বিডি'। চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার ২৪ লাখেরও বেশি। এ অসাধারণ উদ্যোগ নিয়েছেন কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের এক স্কুল শিক্ষক। ব্যতিক্রমি এ আয়োজনের শুরুটা ২০১৬ সালে।

ইউটিউবে একটি ভিডিওটির ভিউয়ার ২ কোটি ৮৯ হাজার। শুধু এটি নয় এই চ্যানেলের প্রতিটি ভিডিওর ভিউয়ার প্রায় কোটির কাছাকাছি। বলছি 'অ্যারাউন্ড মি বিডি' ইউটিউব চ্যানেলের কথা। যার সাবস্ক্রাইবার ২৪ লাখের বেশি।

কুষ্টিয়ার খোকশা উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের এক স্কুল শিক্ষক ২০০৬ সালে চালু করেন এ চ্যানেলটি। 'অ্যারাউন্ড মি বিডি' চ্যানেলের স্বত্ত্বাধীকারী দেলোয়ার হোসেন জানান, নতুন প্রজন্মকে নিজেদের সংস্কৃতির বিষয় জানাতে তার এ প্রয়াস।    

গ্রামীন সংস্কৃতি, জীবন ধারা এ সবই স্থান পায় চ্যানেলটিতে। যেমন ২০২০ সাল বরণ করে নিতে পুরো গ্রামবাসীর আয়োজন ছিলো ব্যতিক্রম। ৫টি ভেড়া ও ৮০ কেজি চাল দিয়ে তৈরি করা হয় খাবার। যা ঐ গ্রামের প্রায় ৫'শ বাসিন্দা একসাথে খান।

এ চ্যানেলের ক্যামেরাপারসনরাও খুশি। হাতেখড়ি না থাকলেও তাদের তোলা ছবি সারা বিশ্বের মানুষ দেখছে এটাই অনুপ্রেরণা। চ্যানেলটির ক্যামেরাপারসন জানান, প্রথমদিকে মোবইলে ভিডিও ধারণ করা হত, বর্তমানে ডিজিটাল ক্যামেরায় ভিডিও ধারণ করা হয়।

প্রতিমাসে চ্যানেল থেকে আয় প্রায় ৬ লাখ টাকা। যদিও অর্থ আয়ই উদ্দেশ্য নয়, এলাকার সংস্কৃতি বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরতে পেরেই খুশি দেলোয়ার হোসেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর