channel 24

সর্বশেষ

  • ভিডিও কনফারেন্সে সুপ্রিম কোর্ট শিশু অধিকার কমিটির বৈঠক

  • রাজস্ব আদায়ে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশ বেশ সফল: অর্থমন্ত্রী

  • ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়লো সাধারণ ছুটি

  • দেশে করোনায় আরো ১ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১৮: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

  • করোনায় বিধ্বস্ত বিশ্ব; প্রাণহানি ছাড়ালো ৬৪ হাজার, আক্রান্ত ১২ লাখের বেশি

  • পাইকার সংকটে দাম পাচ্ছে না যশোরের সবজি চাষীরা

  • করোনার প্রভাবে কেমন আছে পথে অবাধে বিচরণ করা কুকুর ?

  • হবিগঞ্জের রেমা কালেঙ্গা বনাঞ্চলে চলছে গাছ কাটার মহোৎসব

  • যুক্তরাষ্ট্রে করোনা মোকাবিলায় ২ লাখ কোটি ডলারের তহবিল ঘোষণা

  • করোনা মোকাবিলায় প্রায় ৭৩ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা ঘোষণা প্রধানমন্ত্রীর

  • চাহিদা কমায় দুধ সংগ্রহ কমিয়েছে মিল্কভিটাসহ অনেক প্রতিষ্ঠান

  • বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই কাজ করছেন কর্মীরা

  • নিউইয়র্কে ২৪ ঘন্টায় ৬৩০ জনের মৃত্যু

  • করোনা টেস্ট না হওয়ার চেয়ে ভুল টেস্ট আরও ভয়ঙ্কর

  • বগুড়ায় প্রথমবার করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত

গ্রামীন সংস্কৃতি ইউটিউব তুলে ধরে দেলোয়ারের মাসিক আয় ৬ লাখ টাকা

গ্রামীন সংস্কৃতি ইউটিউব তুলে ধরে দেলোয়ারের মাসিক আয় ৬ লাখ টাকা

দেশীয় সংস্কৃতি বিশ্ব দরবারে তুলে ধরতে তৈরি করা হয়েছে 'অ্যারাউন্ড মি বিডি'। চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার ২৪ লাখেরও বেশি। এ অসাধারণ উদ্যোগ নিয়েছেন কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের এক স্কুল শিক্ষক। ব্যতিক্রমি এ আয়োজনের শুরুটা ২০১৬ সালে।

ইউটিউবে একটি ভিডিওটির ভিউয়ার ২ কোটি ৮৯ হাজার। শুধু এটি নয় এই চ্যানেলের প্রতিটি ভিডিওর ভিউয়ার প্রায় কোটির কাছাকাছি। বলছি 'অ্যারাউন্ড মি বিডি' ইউটিউব চ্যানেলের কথা। যার সাবস্ক্রাইবার ২৪ লাখের বেশি।

কুষ্টিয়ার খোকশা উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের এক স্কুল শিক্ষক ২০০৬ সালে চালু করেন এ চ্যানেলটি। 'অ্যারাউন্ড মি বিডি' চ্যানেলের স্বত্ত্বাধীকারী দেলোয়ার হোসেন জানান, নতুন প্রজন্মকে নিজেদের সংস্কৃতির বিষয় জানাতে তার এ প্রয়াস।    

গ্রামীন সংস্কৃতি, জীবন ধারা এ সবই স্থান পায় চ্যানেলটিতে। যেমন ২০২০ সাল বরণ করে নিতে পুরো গ্রামবাসীর আয়োজন ছিলো ব্যতিক্রম। ৫টি ভেড়া ও ৮০ কেজি চাল দিয়ে তৈরি করা হয় খাবার। যা ঐ গ্রামের প্রায় ৫'শ বাসিন্দা একসাথে খান।

এ চ্যানেলের ক্যামেরাপারসনরাও খুশি। হাতেখড়ি না থাকলেও তাদের তোলা ছবি সারা বিশ্বের মানুষ দেখছে এটাই অনুপ্রেরণা। চ্যানেলটির ক্যামেরাপারসন জানান, প্রথমদিকে মোবইলে ভিডিও ধারণ করা হত, বর্তমানে ডিজিটাল ক্যামেরায় ভিডিও ধারণ করা হয়।

প্রতিমাসে চ্যানেল থেকে আয় প্রায় ৬ লাখ টাকা। যদিও অর্থ আয়ই উদ্দেশ্য নয়, এলাকার সংস্কৃতি বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরতে পেরেই খুশি দেলোয়ার হোসেন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর