channel 24

সর্বশেষ

  • স্বাস্থ্যের সাবেক ডিজির গাড়ি চালক শত কোটি টাকার মালিক

  • দীর্ঘ বিরতির পর দলগত অনুশীলনে টিম বাংলাদেশ

  • কুমিল্লায় ভুয়া মেজর পরিচয় প্রদানকারী এক প্রতারক গ্রেপ্তার

  • ভোলায় ১০ মিনিটের টর্নেডোর আঘাতে লণ্ডভণ্ড শতাধিক ঘরবাড়ি

  • সৌদি এয়ারলাইন্সের টিকিট কিনতে ভিড়-ভোগান্তি

  • সিআরআই'র ম্যাগাজিন 'হোয়াইট বোর্ড' এর উদ্বোধন

  • মহিষ চুরির অভিযোগে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রের বয়স ১৯ দেখিয়ে মামলা!

  • স্বাস্থ্যের সাবেক ডিজির গাড়ি চালকের ঢাকায় ২৪টি ফ্ল্যাট, ৩টি বাড়ি

  • টেকনাফে ৫ লাখ ইয়াবা জব্দ, রোহিঙ্গাসহ আটক ৭

  • মসজিদে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার অভিযোগে আটক মিস্ত্রী ২ দিনের রিমান্ডে

  • কোয়ারেন্টিনে টিম বাংলাদেশ

  • ভারত থেকে আসা বেশিরভাগ পেঁয়াজই নষ্ট

  • চালের কুড়ার তেলের উপকারিতা

  • পেঁয়াজের বিকল্প হিসাবে পাতা পেঁয়াজের ব্যবহার

  • চাঁদপুরে পাটাপুতা নিয়ে দ্বন্দে ভাইয়ের হাতে ভাই খুন

কিভাবে তৈরি করা যায় বায়োফ্লক ফার্ম?

কিভাবে তৈরি করা যায় বায়োফ্লক ফার্ম?

বায়োফ্লকের শুরুটা ২০০০ সালে ইসরাইলি বিজ্ঞানী ইয়োরামের হাত ধরে। তবে এখন সারা বিশ্বে এই প্রযুক্তি সারাবিশ্বে এখন আলোচিত বিষয়। থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম এবং ভারতে ব্যবহার হচ্ছে বাণিজ্যিক মাছ উৎপাদনে।

কিভাবে তৈরি করা যায়, বায়ো ফ্লক ফার্ম, তা জানেতে কথা হয় মনিরুল ইসলামের সাথে (ভিডিওতে দেখুন)।

গবেষকরা বলছেন, কোন ধরনের রাসায়নিকের ব্যবহার ছাড়া শুধুমাত্র অনুজীবের ব্যবহার, বিশেষ করে উপকারি ব্যাকটেরিয়া দিয়ে পানিতে উচ্চ কার্বন-নাইট্রোজেন অনুপাত নিশ্চিত করে, ঘরের ভেতর খাঁচার মধ্যে মাছ চাষ করা হয় বলে এই প্রযুক্তিকে বলা হচ্ছে বায়োফ্লক। সেখানে ক্ষতিকর এমোনিয়াকে রুপান্তর করা হয় অনুজীব আমিষে। যা খেয়েই বড়ে হয় মাছ।

তবে এখানে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে পানিতে উচ্চমাত্রার অক্সিজেনের উপস্থিতি আর সর্বনিম্ন পর্যায়ে অদ্রবনীয় ক্ষুদ্র কণার অনুপস্থিতি। তাহলেই আসবে কাঙ্ক্ষিত উৎপাদন।

যেহেতু এই মাছ চাষে জায়গা, পানি এবং খাদ্য লাগে মাত্রাতিরিক্তভাবে কম, তাই বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই প্রযুক্তির বাণিজ্যিক ব্যবহার শুরু করেছে অন্যান্য দেশ। যার ছোয়া লেগেছে দেশেও।

তবে এতকিছুর মধ্যে এই বায়োফ্লকের আছে কিছু চ্যালেঞ্জও। উদ্যোক্তারা বলছেন, এই পদ্ধতির প্রথম শর্ত হচ্ছে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ। এছাড়া উপকারি ব্যকটেরিয়ার উৎস এবং তাপমাত্রার নিয়ন্ত্রণ খুবই জরুরী।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর