channel 24

সর্বশেষ

  • উম্মুল কোরা বিশ্ববিদ্যালয় রেক্টরের সঙ্গে সৌদিতে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

  • সিরাজগঞ্জে বাসাবাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে ৬ জন দগ্ধ

  • কাল শুরু বাংলাদেশের নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অভিযান; প্রতিপক্ষ ভারত

  • চীনের বাইরে ভয়ঙ্কর রূপ নিচ্ছে করোনা; আক্রান্ত ১ হাজার ৭১২ জন

  • জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৫ সদস্যের ওয়ানডে দল ঘোষণা

  • গাইবান্ধা-৩ ও বাগেরহাট-৪ আসনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই সম্পন্ন

  • চাঁপাইনবাবগঞ্জে মহানন্দা নদী তীরবর্তী এলাকায় পর্যটন কেন্দ্র নির্মাণ বেআইনি

  • অর্থপাচার মামলায় আটক পাপিয়াকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার

  • স্বামীর দেয়া আগুনে দগ্ধ অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর মৃত্যু

  • দুদিনের সফরে কাল ভারত আসছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

  • নির্বাচনি প্রচারণায় আসছে নানা বিধিনিষেধ; যত্রতত্র পোস্টার-মাইকিং নয়

  • উন্নয়ন পরিকল্পনা সঠিকভাবে বাস্তবায়ন না হওয়ার কারণে দুর্ভোগে পড়তে হয় জনগণকে

  • দেশের পুঁজিবাজারে আজও সূচকের পতন

  • আন্তর্জাতিক জ্বালানি খাতে নিজেদের আধিপত্য বাড়াতে চায় সৌদি আরব

  • ভুতুড়ে বিল বন্ধ করতে প্রযুক্তি ব্যবহারের বিকল্প নেই: বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

কিভাবে তৈরি করা যায় বায়োফ্লক ফার্ম?

কিভাবে তৈরি করা যায় বায়োফ্লক ফার্ম?

বায়োফ্লকের শুরুটা ২০০০ সালে ইসরাইলি বিজ্ঞানী ইয়োরামের হাত ধরে। তবে এখন সারা বিশ্বে এই প্রযুক্তি সারাবিশ্বে এখন আলোচিত বিষয়। থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম এবং ভারতে ব্যবহার হচ্ছে বাণিজ্যিক মাছ উৎপাদনে।

কিভাবে তৈরি করা যায়, বায়ো ফ্লক ফার্ম, তা জানেতে কথা হয় মনিরুল ইসলামের সাথে (ভিডিওতে দেখুন)।

গবেষকরা বলছেন, কোন ধরনের রাসায়নিকের ব্যবহার ছাড়া শুধুমাত্র অনুজীবের ব্যবহার, বিশেষ করে উপকারি ব্যাকটেরিয়া দিয়ে পানিতে উচ্চ কার্বন-নাইট্রোজেন অনুপাত নিশ্চিত করে, ঘরের ভেতর খাঁচার মধ্যে মাছ চাষ করা হয় বলে এই প্রযুক্তিকে বলা হচ্ছে বায়োফ্লক। সেখানে ক্ষতিকর এমোনিয়াকে রুপান্তর করা হয় অনুজীব আমিষে। যা খেয়েই বড়ে হয় মাছ।

তবে এখানে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে পানিতে উচ্চমাত্রার অক্সিজেনের উপস্থিতি আর সর্বনিম্ন পর্যায়ে অদ্রবনীয় ক্ষুদ্র কণার অনুপস্থিতি। তাহলেই আসবে কাঙ্ক্ষিত উৎপাদন।

যেহেতু এই মাছ চাষে জায়গা, পানি এবং খাদ্য লাগে মাত্রাতিরিক্তভাবে কম, তাই বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই প্রযুক্তির বাণিজ্যিক ব্যবহার শুরু করেছে অন্যান্য দেশ। যার ছোয়া লেগেছে দেশেও।

তবে এতকিছুর মধ্যে এই বায়োফ্লকের আছে কিছু চ্যালেঞ্জও। উদ্যোক্তারা বলছেন, এই পদ্ধতির প্রথম শর্ত হচ্ছে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ। এছাড়া উপকারি ব্যকটেরিয়ার উৎস এবং তাপমাত্রার নিয়ন্ত্রণ খুবই জরুরী।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর