channel 24

সর্বশেষ

  • ভোলায় মুয়াজ্জিনকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন, আটক ১

  • পল্লবী থানায় বিস্ফোরণের ঘটনায় ৬ পুলিশ কর্মকর্তাকে বদলি

  • প্রত্যক্ষদর্শীদের লোমহর্ষক বর্ণনায় সিনহা হত্যা

  • দুর্নীতির সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে কঠোর ব্যবস্থা: প্রধান বিচারপতি

  • করোনাকালে স্বাস্থ্যখাতের নাজুক পরিস্থিতিই নয়, দুর্নীতিও প্রকাশ্যে

  • বাংলাদেশের বিজয় মানে, ভারতের বিজয়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • লাইসেন্স নবায়ন না করলে ২৩ আগস্টের পর বেসরকারি হাসপাতাল বন্ধ

  • ময়মনসিংহে বাস চাপায় সিএনজি অটোরিকশার ৭ যাত্রীর মৃত্যু

  • বরগুনায় সিফাতের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন, পুলিশের লাঠিচার্জ

  • সপ্তাহ ব্যবধানে দেশের দুই স্টক এক্সচেঞ্জেই বেড়েছে লেনদেন ও সূচক

  • সরকার ঘোষিত প্রণোদনার অর্থ বিতরণে অনিয়ম: সানেম

  • মাশরাফীর পরিবারের চার সদস্য করোনায় আক্রান্ত

  • ২০২১ টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে ভারতে

  • সোমবার আবারো সব ফুটবলারদের করোনা পরীক্ষা

  • ওসি প্রদীপের কুকর্ম নিয়ে একে একে মুখ খুলছেন অনেকে

চীনে চালু হলো মোবাইল নেটওয়ার্ক সেবা ফাইভ-জি

চীনে চালু হলো মোবাইল নেটওয়ার্ক সেবা ফাইভ-জি

চীনে চালু হয়েছে পঞ্চম প্রজন্মের মোবাইল নেটওয়ার্ক-ফাইভজি সেবা। আনুষ্ঠানিকভাবে এ সেবা চালুর পরপরই সংযোগের জন্য আবেদন করেছেন ১ কোটি গ্রাহক। আগামী চার বছরে ফাইভজি নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারীর সংখ্যা শত কোটি ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা। আর বিশ্লেষকরা বলছেন, ২০২৫ সালের মধ্যে চীনের অর্থনীতিতে দেড় লাখ কোটি ডলারের অবদান রাখবে এই নেটওয়ার্ক।

পঞ্চম প্রজন্মের মোবাইল নেটওয়ার্ক-ফাইভজি ইন্টারনেট সেবা চালু হয়েছে চীনে। বেইজিংয়ে আয়োজিত পোস্টাল অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশনস এক্সপোতে এ প্রযুক্তির উদ্বোধন করা হয়।

নিজেদের উদ্ভাবিত সর্বশেষ প্রযুক্তি নিয়ে এ প্রদর্শনীতে এসেছে চীনের প্রযুক্তি জায়ান্টগুলো। তুলে ধরা হয় ফাইভজি নেটওয়ার্কের উন্নয়ন পরিকল্পনাও।

ZTE করপোরেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ওয়েন লিয়াংলিয়াং বলেন, চীনের ৩টি মোবাইল অপারেটরের মাধ্যমে দেশের শতাধিক স্থানে ফাইভজি নেটওয়ার্ক পরীক্ষা চালানো হয়েছে। এখন পর্যন্ত দারুণ ফল পাওয়া যাচ্ছে। এর মানোন্নয়নে আরো কাজ করা হবে বলে জানান ZTE করপোরেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ওয়েন লিয়াংলিয়াং।

হুয়াওয়ে ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক-এর বিক্রয় ও বিপণন বিভাগের উপ-পরিচালক লি শিন বলেন, প্রযুক্তির উন্নয়ন ও সম্প্রসারণে খাত সংশ্লিষ্টদের সময়োপযোগী উদ্যোগ নিতে হবে। স্মার্ট ডিভাইস উৎপাদক ও টেলিকমিউনিকেশন প্রতিষ্ঠানগুলোর সমন্বিত প্রচেষ্টায় ফাইভজি নেটওয়ার্ককে আরো শক্তিশালী করা সম্ভব বলে জানান হুয়াওয়ে ওয়্যারলেস নেটওয়ার্ক-এর বিক্রয় ও বিপণন বিভাগের উপ-পরিচালক লি শিন।

চীনের ৫০টি শহরকে একসঙ্গে ফাইভজি নেটওয়ার্কের আওতায় নিতে কাজ করছে টেলিকম অপারেটরগুলো। পাশাপাশি অন্যান্য দেশেও বসানো হচ্ছে তাদের বেইজ স্টেশন।

চলতি বছরের মধ্যে চীনের ৫০টি শহরে দেড় লাখ বেইজ স্টেশন নির্মাণের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। অন্যান্য দেশে বসানো হবে আরো ৪ লাখ বেইজ স্টেশন। বাণিজ্যিকভাবে ফাইভজি নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণে মোবাইল অপারেটরগুলোর সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করা হচ্ছে।

চীনের শিল্প ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের উপ-পরিচালক চেন ঝোশিয়ং বলেন, সব শিল্পের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে ফাইভজি নেটওয়ার্ক। চীন সরকার এ প্রযুক্তির সম্প্রসারণে যথাযথ পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে জানান চেন ঝোশিয়ং।

শিল্প, পরিবহন, জ্বালানি, কৃষিসহ সব শিল্পকেই ফাইভজি নেটওয়ার্কের আওতায় আনা হবে। এর মাধ্যমে ব্যবসায়ের ধরন পরিবর্তন সম্ভব। একই সাথে পরিবেশকেও দূষণমুক্ত রাখতেও সহায়তা করবে এ প্রযুক্তি।

ইতোমধ্যে ফাইভজি নেটওয়ার্ক সংযোগের জন্য আবেদন করেছেন চীনের ১ কোটি গ্রাহক। ২০২৩ সালের মধ্যে দেশটির শত কোটি গ্রাহককে এ সেবা দেয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে মোবাইল অপারেটরগুলো। আর প্রযুক্তি বিশ্লেষকরা বলছেন, আগামী ৫ বছরের মধ্যে চীনের অর্থনীতিতে দেড় লাখ কোটি ডলারের অবদান রাখবে ফাইভজি নেটওয়ার্ক।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

তথ্য প্রযুক্তি খবর