channel 24

সর্বশেষ

  • চট্টগ্রামে যাচ্ছেন পরীমণি

  • নোয়াখালীর কারাগারে হাজতির মৃ ত্যু

  • হিমাদ্রী বিশ্বাসের ‘চন্দ্রমুখ’

  • ক্যাটরিনার অজানা ৭ তথ্য

  • জনগণের কাছে যা কিছু গ্রহণযোগ্য নয় তা আওয়ামী লীগের কাছেও গ্রহণযোগ্য নয়: শিক্ষামন্ত্রী

  • আবরার হত্যা সবাইকে ব্যথিত করেছে: আদালত

  • শরীয়তপুরে আ.লীগের দুই গ্রুপের সং ঘ র্ষ, আহত ৪৫

  • এবার ভোটের মাঠে নিপুন

  • মুশফিক-লিটনের প্রতিরোধ ভাঙলেন সাজিদ

  • ছাত্রদল নেতা ফারুককে পিটিয়ে হ ত্যার অভিযোগ ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে

  • পেলেকে মেসি ও মেসিকে টপকে শীর্ষে এমবাপ্পে

  • মামলার রায়ে সন্তোষ জানিয়েছেন আবরারের স্বজনরা

  • অর্ডার অব জায়েদ পেলেন সৌদি যুবরাজ

  • ঢাকায় শুরু হচ্ছে ইয়ুথ বাংলা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব

  • বয়সে ছোট পুরুষকে বিয়ে করায় প্রশংসা করলেন কঙ্গনা

জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু অস্ট্রেলিয়ার

জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু অস্ট্রেলিয়ার

সুপার টুয়েলভের উদ্বোধনী ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। লো স্কোরিং ম্যাচ আর টানটান উত্তেজনার ম্যাচে খেলার ফলাফল জানতে অপেক্ষা করতে হয়েছে ইনিংসের শেষ ওভার পর্যন্ত।  

ম্যাচ জিততে অজিদের প্রয়োজন ছিলো মাত্র ১১৯ রান। বিশ্বকাপ ইতিহাসে এত কম রান তাড়া করতে নেমে কারো ম্যাচ হারার নজির নেই। তাই স্বাভাবিকভাবেই এগিয়ে ছিলো অ্যারন ফিঞ্চের দল। তবে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই অজি অধিনায়ককে শূন্য রানে আউট করে প্রোটিয়াদের আশ্বস্ত করেন এনরিখ নরকিয়া। 

ফিঞ্চ ফেরার পর থিতু হতে পারেননি আরেক ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারও। ১৫ বলে ১৪ করে এই ব্যাটার আউট হন কাগিসো রাবাদার বলে। এরপর তিনে নামা মিচেল মার্শকে নিয়ে ইনিংস মেরামতের কাজ শুরু করেন স্টিভেন স্মিথ। যদিও ১৭ বলে ১১ করে ফেরেন মার্শ। কিশভ মহারাজের বলে এই ব্যাটারের ক্যাচ ধরেন ভ্যান ডুসেন।

আরও পড়ুনঃ পাক-ভারত ম্যাচের আগে দেশে ফিরলেন চার ভারতীয় ক্রিকেটার

তবে এক প্রান্ত আগলে ছিলেন স্মিথ। তার ব্যাট থেকে আসা ৩৪ বলে ৩৫ রানের ইনিংসটাই অজিদের হয়ে সর্বোচ্চ। যদিও দলকে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেননি তিনি। তাকে নরকিয়ার দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করতে দুর্দান্ত এক ক্যাচ ধরেন মার্ক্রাম। তবে তা যথেষ্ট ছিলো না। ম্যাক্সওয়েলের ১৮, স্টয়নিসের ২৬ আর ম্যাথু ওয়েডের ১৫ রানে ৩ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছায় অস্ট্রেলিয়া। 

এর আগে টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করেছিল টেম্বা বাভুমা ও ডি কক। তবে ৭ বলে ১৩ রান করে ম্যাক্সওয়েলের বলে সরাসরি বোল্ড আউটের শিকার হন প্রোটিয়া অধিনায়ক। তিন রান পরেই ফেরেন তিনে নামা ভ্যান ডুসেন। এই মারকুটে ব্যাটসম্যানকে ক্যাচ আউটের ফাঁদে ফেলেন জশ হ্যাজেলউড। 

থিতু হতে পারেননি ডি ককও। হ্যাজেলউডের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। অদ্ভুত এক বোল্ড আউট হয়ে ফেরেন ১২ বলে ৭ রান করে। এরপর হেনরিখ ক্ল্যাসেন-ডেভিড মিলাররা প্রতিরোধের চেষ্টা করেও সফল হননি। নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট হারিয়ে গটা ইনিংস জুড়েই ধুঁকে গেছে দলটি। 

একমাত্র ব্যতিক্রম এইডেন মার্ক্রাম। তার ৩৬ বলের সর্বোচ্চ ৪০ রানের ইনিংসে ভর করেই সম্মানজনক অবস্থানে পৌঁছায় প্রোটিয়ারা। তবে দলীয় ৯৮ রানে অষ্টম উইকেট হিসেবে তাকে ফেরায় মিচেল স্টার্ক।

শেষের দিকে কাগিসো রাবাদা খেলেন ২৩ বলে ২০ রানের ইনিংস। অজিদের হয়ে দুটি করে উইকেট শিকার করেছেন স্টার্ক, হ্যাজেলউড ও জাম্পা। একটি করে উইকেট পেয়েছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও প্যাট কামিন্স।

এসএম

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর