channel 24

সর্বশেষ

  • পাবনায় বিদ্যুতের খুঁটি থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

  • একই দিনে পালিত হল তিন ধর্মের ধর্মীয় উৎসব

  • সহিংসতার আশঙ্কায় ভারতে স্থগিত ‘বাংলাদেশ ফিল্ম ফেস্টিভেল’

  • বাংলাদেশের সংবাদ সম্মেলন বয়কট করলেন সাংবাদিকরা

  • বাড়িতে মাদকের আসর, স্ত্রীর অভিযোগে স্বামীসহ আটক ২

  • আসামিকে ফেসবুক লাইভে জিজ্ঞাসাবাদ, ওসি প্রত্যাহার

  • মালদ্বীপ দূতাবাসে শেখ রাসেল দিবস উদযাপিত

  • ডেঙ্গুতে ২৪ ঘণ্টায় আরও ১১২ জন হাসপাতালে

  • সরকার অরাজকতা সৃষ্টি করে বিএনপির নেতাকর্মীদের নামে মামলা দিচ্ছে: ফখরুল

  • তিস্তা ব্যারেজে রেকর্ড পরিমাণ পানি ছাড়লো ভারত

  • কেরানীগঞ্জে পুলিশ কর্মকর্তার ম র দে হ উদ্ধার

  • কুমিল্লা ঘটনার মূল অভিযুক্ত সীমান্তে ঘোরাঘুরি করছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • বাংলাদেশকে হারাতে পাপুয়া নিউগিনির অনুপ্রেরণা স্কটল্যান্ড

  • ট্রাকের সঙ্গে ইজিবাইকের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নি হ ত ২

  • থানায় ছাত্রলীগ নেতার আ ত্ম হ ত্যা র চেষ্টা!

রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে মিলানকে হারাল লিভারপুল

রোমাঞ্চ ছড়ানো ম্যাচে মিলানকে হারাল লিভারপুল

লিভারপুল-এসি মিলান লড়াই মানেই টানটান উত্তেজনা। ২০০৫ চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে দুই দলের অবিশ্বাস্য সেই পারফরম্যান্স। যেখানে জয়ী দল বেছে নিতে দ্বারস্থ হতে হয় টাইব্রেকারের। সেখানে শেষ হাসি হেসেছিল লিভারপুল। বছর দুয়েক পর এই চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালেই অলরেডদের হারিয়ে মধুর প্রতিশোধ নেয় এসি মিলান। এরপর কালে কালে অনেক জল গড়িয়েছে। নিজেদের সেই স্বর্ণালী সময় থেকে অনেক দূরে ইতালির জায়ান্টরা। ৭ বছর পর এবারই প্রথম ফিরল ইউরোপ সেরার লড়াইয়ে। আর ফিরেই ইয়োর্গান ক্লপের দলকে ভয় ধরিয়ে দিল গ্রুপ পর্বের ম্যাচে।

অ্যানফিল্ডে বুধবার রাতে ‘বি’ গ্রুপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে পিছিয়ে পড়েও ৩-২ গোলে ম্যাচ জিতেছে লিভারপুল। আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়ার পর রেবিচ ও ব্রাহিম দিয়াসের গোলে এগিয়ে যায় মিলান। প্রথমার্ধে পেনাল্টি মিস করা মোহামেদ সালাহ টানেন সমতা। পরে স্বাগতিকদের জয়সূচক গোলটি করেন জর্ডান হেন্ডারসন। পুরো ম্যাচে বল দখলে এগিয়ে থেকে আক্রমণে আধিপত্য করা লিভারপুল গোলের জন্য শট নেয় মোট ২৩টি, যার ৮টি লক্ষ্যে। মিলানের ৭ শটের ৪টি লক্ষ্যে ছিল।

ম্যাচের নবম মিনিটে সৌভাগ্যসূচক গোলে এগিয়ে যায় লিভারপুল। সালাহর সঙ্গে বল দেওয়া-নেওয়া করে ডি-বক্সে ঢুকে ট্রেন্ট অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ডের নেওয়া শট প্রতিপক্ষ ডিফেন্ডার ফিকায়ো তোমোরির পায়ে লেগে জালে জড়ায়। একটু পরই দ্বিগুণ হতে পারত ব্যবধান। ডি-বক্সে মিলানের ইসমায়েলের হাতে লাগলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। কিন্তু স্পট কিকে গোল করতে ব্যর্থ হন সালাহ। তাঁর শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক মাইক মিয়াঁ। ফিরতি বলে দিয়োগো জটার প্রচেষ্টাও ফেরান তিনি। 

৩০তম মিনিটে আবারও মিলানের ত্রাতা মিয়াঁ। এবার সালাহর শটে ক্রসবারের ওপর দিয়ে বল পাঠান এই ফরাসি গোলরক্ষক। প্রথম ৪০ মিনিটে গোলমুখে মাত্র একটি শট নিতে পারা মিলান বিরতির আগে দ্রুত দুই গোল করে। ৪২তম মিনিটে গোছালো এক আক্রমণ থেকে সমতা টানেন রেবিচ। ডি-বক্সের সামনে থেকে সতীর্থের পাসে ডান পায়ের শটে আলিসনকে ফাঁকি দেন তিনি। পরের গোলটি করেন দিয়াস। তার শট গোললাইনে ডাইভ দিয়ে অ্যালেকজ্যান্ডার-আর্নল্ড ঠেকালেও বিপদমুক্ত হয়নি। ফাঁকা জালে বল পাঠান রিয়াল মাদ্রিদ থেকে ধারে মিলানে খেলা দিয়াস।

হঠাৎ ঝড়ে এলোমেলো অলরেডরা বিরতিতে যায় ২-১ গোলে পিছিয়ে থেকে। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেও সেই রেশ ছিলো। গোলও হজম করে। অবশ্য অফসাইডের কারনে সেবার বেঁচে যায় লিভারপুল। কিছুক্ষণ পরেই ফের স্বাগতিকদের ম্যাচে ফেরান মো সালাহ। দিভোগ ওরিগির লব থেকে ভলিতে মিলান গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তিনি। 

ম্যাচের ৬৯তম মিনিটে আবার এগিয়ে যায় লিভারপুল। কর্নার হেডে ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে পারেনি মিলানের ডিফেন্ডার। বক্সের মাথা থেকে বুলেট গতির শটে ঠিকানা খুঁজে নেন অধিনায়ক হেন্ডারসন। ৩-২ গোলে এগিয়ে থেকেই শেষ হয় ম্যাচের সময়। ৫ গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচে জয় দিয়ে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ যাত্রা শুরু লিভারপুলের। এই গ্রুপের আরেক ম্যাচে গোলশূন্য ড্র করেছে আতলেতিকো মাদ্রিদ ও পোর্তো। 

এসএম

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর