channel 24

সর্বশেষ

  • রাজধানী ছাড়ছে মানুষ, দুই ঘাটে উপচেপড়া ভিড়

  • ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে নষ্ট ১৫০ কোটি চিংড়ি পোনা

  • জুমাতুল বিদায় মসজিদে মুসল্লিদের ঢল

  • প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে উঠতে পারছেন না হতদরিদ্ররা

  • বিধিনিষেধের মধ্যেই রাজধানী ছাড়ছে মানুষ

  • করোনায় ভালো নেই মা হাজেরা ও তার পথশিশুরা

  • ধুঁকছে মানিকগঞ্জের হাসপাতালগুলো, বাড়ছে দুর্ভোগ

  • চারদিন পরে নিভল সুন্দরবনের আগুন

  • বাংলাদেশের দেয়া চিকিৎসা সামগ্রী উপহার গেল ভারতে

  • দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট

  • মিথেন গ্যাস নিঃসরণের হটস্পট বাংলাদেশ

  • মন্ত্রণালয়ের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও রাবিতে ভিসির নিয়োগের ঘটনায় তদন্ত কমিটি

  • পবিত্র জুমাতুল বিদা আজ

  • ইপিএলে আজ লেস্টারের মুখোমুখি নিউক্যাসেল

  • খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা অনুমতির সুরাহা হতে পারে আজ

এমন পরাজয়ের পরেও প্রাপ্তি খুঁজে পেয়েছেন মুমিনুল

এমন পরাজয়ের পরেও প্রাপ্তি খুঁজে পেয়েছেন মুমিনুল

সিরিজ হারা মানেই সব হেরে যাওয়া না, এখান থেকেও প্রাপ্তি খুঁজে পেয়েছেন বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক। উইকেট বুঝতে ভুল করেছেন- পরোক্ষভাবে এমনটা স্বীকার করলেও পরাজয়ের জন্য টস ভাগ্যকেও দুষলেন মুমিনুল।

প্রথম টেস্টের পর কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেছিলেন, ড্রয়ের মানসিকতা থেকে বের হতে হবে বাংলাদেশকে। সেখান থেকে দল বের হলো ঠিকই, তবে পরাজয়ের গ্লানি নিয়ে। ব্যর্থতার বোঝা বইতে বইতে নিশ্চয়ই ক্লান্ত পরিশ্রান্ত দলনেতা মুমিনুল। ম্যাচ কিংবা সিরিজ হারলেও প্রতিবারই কিছু না কিছু শেখেন টাইগার অধিনায়ক। এবার সেই শেখার সাথে যোগ হলো প্রাপ্তিও।

ম্যাচ শেষে মুমিনুল বলেন, 'অবশ্যই প্রাপ্তির কিছু না কিছু আছে। আমি সিরিজ হেরেছি এর মানে এই না যে সব কিছু হেরে গিয়েছি। হয়তো আমি জানি একটু সমালোচনা হবে, অনেকেই অনেক কথা বলবে। এর ভেতরেও অনেক ইতিবাচক দিক আছে আমার কাছে মনে হয়। প্রথম টেস্টে আমি যেটা সব সময় চাচ্ছিলাম যে দলগতভাবে খেলব।'

'যেটা আমরা শেষ ২-১টি টেস্ট ম্যাচে খেলতে পারিনি। আমার কাছে মনে হয় প্রথম টেস্টে আমরা দল হিসেবে খেলতে পেরেছি। আমরা তখনই ভালো খেলি যখন আমরা দলগতভাবে খেলতে পারি। দলের সবাই যখন অবদান রাখে তখন আমরা দল হিসেবে ভালো করতে পারি। আপনি  যদি দেখেন তামিম ভাইর দুইটা নব্বই আছে, একটা ৭০ আছে। শান্তর একটা ১৬৩ আছে, মুশফিক ভাই ও লিটনের হাফ সেঞ্চুরি আছে।'- যোগ করেন মুমিনুল। 

উইকেট দেখে প্রথম টেস্টের মতোই মনে হয়েছিলো মুমিনুল হকের। আর তাই একাদশে স্পিনার বাড়ানোর প্রয়োজনবোধ করেনি টিম ম্যানেজমেন্ট। তবে তৃতীয় দিন গড়াতেই স্পিনাররা ছড়ি ঘুড়িয়েছেন, ম্যাচের ৩৬ উইকেটের মধ্যে ২৮টিই নিয়েছেন দুই দলের স্পিনাররা। উইকেট বুঝতে যে ভুল করেছেন পরোক্ষভাবে মেনে নিলেও, টসে হেরে যাওয়াকেই দায়ী করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

টেস্ট অধিনায়ক বলেন, 'আমার মনে হয় এই টেস্ট ম্যাচে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল টস। দেখুন, প্রথম ২ দিনে কিন্তু উইকেটে বোলারদের জন্য কোনো সুবিধা ছিল না। আমার মনে হয়েছে, এই ম্যাচটার ৫০ শতাংশ ফলাফল টসের সময়েই নির্ধারণ হয়ে গিয়েছিল। কন্ডিশন অনেকটা একই। পার্থক্য শুধু এখানে আর্দ্রতা একটু বেশি।'

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপটা দুঃস্বপ্নের মতো কাটলো বাংলাদেশের। ৭ ম্যাচের ছয়টিতেই হেরেছে; ড্র মোটে একটি। ২০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানীতে মুমিনুলের দল। ক্রিকেটের এ বনেদি ফরম্যাটে যে অনেক পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ, সরল স্বীকারোক্তি অধিনায়কের।

শিক্ষা, প্রাপ্তি আর ভুলের স্বীকারোক্তির বৃত্তে বন্দী বাংলাদেশের ক্রিকেটের মুক্তি মিলবে কবে, কিভাবে?

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর