channel 24

সর্বশেষ

  • কুষ্টিয়ায় ট্যাংকের বিষক্রিয়ায় ২ শ্রমিকের মৃত্যু

  • ফেনীতে মাদ্রাসাছাত্রীকে জবাই: চাচাতো ভাই আটক

  • সার্কভুক্ত দেশগুলোতে ব্যাপকহারে বাড়ছে আক্রান্ত ও প্রাণহানি

  • দেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির পেছনে দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট

  • সাকিব-মোস্তাফিজকে ছাড়াই শুরু টাইগারদের অনুশীলন

  • রাজধানী ছাড়ছে মানুষ, দুই ঘাটে উপচেপড়া ভিড়

  • ব্যাকটেরিয়ার আক্রমণে নষ্ট ১৫০ কোটি চিংড়ি পোনা

  • জুমাতুল বিদায় মসজিদে মুসল্লিদের ঢল

  • খুলে দেয়া হলো হলিডে মার্কেট

  • প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরে উঠতে পারছেন না হতদরিদ্ররা

  • বিধিনিষেধের মধ্যেই রাজধানী ছাড়ছে মানুষ

  • করোনায় ভালো নেই মা হাজেরা ও তার পথশিশুরা

  • ধুঁকছে মানিকগঞ্জের হাসপাতালগুলো, বাড়ছে দুর্ভোগ

  • চারদিন পরে নিভল সুন্দরবনের আগুন

  • বাংলাদেশের দেয়া চিকিৎসা সামগ্রী উপহার গেল ভারতে

সুপার লিগের বিপক্ষে জোট বেঁধেছে পুরো বিশ্ব

সুপার লিগের বিপক্ষে জোট বেঁধেছে পুরো বিশ্ব

একদিকে ১২ ক্লাব। আরেকদিকে বিশ্ব। ফুটবলতো বটেই পুরো ক্রীড়া বিশ্ব। ইউরোপিয়ান সুপার লিগের বিরুদ্ধে উয়েফার প্রতিবাদের ডাকে সাড়া দিয়ে এক হয়েছে ফিফা ও ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটি (আইওসি)। ইউরোপের বেশ কয়েকটি ক্লাবও এই টুর্নামেন্টের বিরুদ্ধে। এমনকি পক্ষে থাকা ম্যানচেস্টার সিটির কোচ পেপ গার্দিওলাও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

আসলে ১২ ক্লাবও একদিকে নয়। যে ১২টি প্রতিষ্ঠাতা ক্লাবকে একজোট ভাবা হচ্ছিল, সেখানেও ভাঙন ধরতে চলেছে। সবচেয়ে বেশি ছয় ক্লাব ইংল্যান্ডের। সেখানেই দুটি ক্লাব নতুন করে ভাবছে ইউরোপিয়ান সুপার লিগ নিয়ে।

ক্লাব দুটি ম্যানচেস্টার সিটি ও চেলসি। আর তাদের ভাবাতে বাধ্য করছে সমর্থকদের চাপ। ইংলিশ গণমাধ্যমের খবর এখনো গুঞ্জনে সীমাবদ্ধ। তবে লিভারপুল সমর্থকরা লিডসের বিপক্ষে ম্যাচে অ্যানফিল্ডে তাদের প্রতিবাদের ভাষা ঝুলিয়ে দিয়েছে ব্যানারে। আর ম্যান সিটি কোচ পেপ গার্দিওলাও সরাসরি ক্লাবের বিপক্ষে বক্তব্য দিয়েছেন।

পেপ গার্দিওলা বলেন, 'এটা কোনো খেলা নয়। যেখানে জয়-পরাজয় ভূমিকা রাখে না। আমি সবসময় বলে আসছি আমি চাই প্রতিদ্বন্দ্বিতা, প্রতিযোগিতা। আর সুপার লিগে এখনো কোন কিছু নিশ্চিত নয়। এটা কেবল একটা বিবৃতি।'

ইউরোপিয়ান সুপার লিগের ধাক্কায় সবচেয়ে বেশি ব্যস্ত আর চিন্তিত উয়েফা প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার সেফেরিন। প্রতিটা মুহূর্ত কাটছে তার টেনশনে। তার এই বিপদে পাশে এসে দাড়িয়েছে ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা, অলিম্পিক। জুরিখে উয়েফার সদরদপ্তরে এক হয়েছিলেন ক্রীড়া বিশ্বের শীর্ষ কর্তারা।

সেফেরিন বলেছেন, 'ইউরোপের বড় ক্লাবগুলো চাচ্ছে ফুটবলকে ব্যক্তিগত সম্পত্তিতে পরিণত করতে। তাদের কাছে ফুটবল কোন ভালবাসার জায়গা নয়।'

ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনোও মুখ খুলেছেন। সংস্থাটির বিবৃতির পর এবার এর সর্বোচ্চ অভিভাবক সরাসরি বিপক্ষে অবস্থান নিলেন। ইনফান্তিনো বলেছেন, 'এখান থেকে হয়তো আর্থিক লাভ আসবে, তবে সেটা সাময়ীক। হয় মূল ধারার ফুটবলে থাকবেন অথবা নয়।'

আইওসি প্রেসিডন্ট থমাস বাখ তুলে এনেছেন সমাজের চিত্র। তিনি বলেন, 'আমাদের ইউরোপিয় ক্রীড়া কাঠামো আজ হুমকির মুখে। সবাই যার যার অবস্থান থেকে সরে গেছে শুধু অর্থের টানে। খেলাটা যদি শুধুই ব্যবসা হয়, তাহলে সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গাটা হারাবে।'

ইংলিশ লিগের ক্লাবগুলোও জরুরী সভায় বসেছিলো। যেখানে অনলাইনে যোগ দিয়েছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। যিনি প্রথম দিন থেকেই এই লিগের বিরুদ্ধে। এমনকি সুপার লিগের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারিও দিয়ে আসছেন।

তার হয়েই দেশটির ক্রীড়া সচিব অলিভার ডডেন্ট মুখ খুলেছেন। ডডেন্ট বলেন, 'আমরা কখনোই চুপ করে বসে দেখবো না ফুটবলের পতন, ফুটবলকে তাদের হাতের খেলনা হতে। এটা অবাস্তব প্রস্তাব। যে কোনো মূল্যে এটা প্রতিহত করবো।'

নিরবতা ভেঙ্গেছেন পিএসজি প্রেসিডেন্ট নাসের আল খেলাইফিও। উয়েফার নির্বাহী সদস্য হওয়ায় সংস্থার উপর রাখছেন তিনি আস্থা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর