channel 24

সর্বশেষ

  • ডোপিংয়ে পৃষ্ঠপোষকতা: ৪ বছর আন্তর্জাতিক ক্রীড়ায় নিষিদ্ধ রাশিয়া...

  • অংশ নিতে পারবে না টোকিও অলিম্পিক ও কাতার বিশ্বকাপে

  • এসএ গেমস ক্রিকেটে শ্রীলঙ্কাকে ৭ উইকেটে হারিয়ে স্বর্ণ বাংলাদেশের

  • মানহীন সান্ধ্যকালীন কোর্সের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে...

  • শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি

  • অর্থনৈতিক অঞ্চলে নারী উদ্যোক্তারা বিশেষ সুবিধা পাবেন: প্রধানমন্ত্রী

  • নেতৃত্বের দুর্বলতায় বিএনপি অস্তিত্ব সংকটে: ওবায়দুল কাদের

  • রাজনীতিতে আওয়ামী লীগের জায়গা নেই: মির্জা ফখরুল

  • ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে প্রবেশের সময়...

  • এক ভারতীয় নাগরিক ও ১২ বাংলাদেশি আটক

  • এসএ গেমস: ক্রিকেট: ফাইনালে শ্রীলঙ্কার দেয়া ১২৩ রানের টার্গেটে...

  • ব্যাট করছে বাংলাদেশ; স্কোর: শ্রীলঙ্কা ১২২ (হাসান মাহমুদ ৩/২০)

  • এসএ গেমস আর্চারিতে দশ স্বর্ণের সবকটি জিতলো বাংলাদেশ

  • একুশে পদকপ্রাপ্ত পদার্থবিজ্ঞানী অধ্যাপক অজয় রায় মারা গেছেন...

  • সর্বস্তরের শ্রদ্ধা জানাতে কাল সকালে নেয়া হবে শহীদ মিনারে...

  • মরদেহ দান করা হয়েছে বারডেম হাসপাতালকে

ক্রিকেট ইতিহাসে ৪র্থ ও ৫ম কনকাশন সাব দেখলো কলকাতা টেস্ট

ক্রিকেট ইতিহাসে ৪র্থ ও ৫ম কনকাশন সাব দেখলো কলকাতা টেস্ট

ক্রিকেট ইতিহাসে চতুর্থ ও পঞ্চমবারের মতো কনকাশন সাবের উদাহরণ দেখলো কলকাতা টেস্ট। মোহাম্মদ শামীর বাউন্সারে মাথায় আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়েন লিটন দাস। এরপর আইসিসির নিয়ম মেনে কনকাশন সাব হিসেবে ব্যাট হাতে নামেন মেহেদি হাসান মিরাজ। একই পরিণতি নাঈম হাসানের। তার পরিবর্তে মাঠে নামেন তাইজুল ইসলাম।

গোলাপী বল, দিবা-রাত্রির টেস্ট, ইডেন গার্ডেন্স রোমাঞ্চের কমতি নেই কলকাতা টেস্টে। ঐতিহাসিক টেস্টের সাথে বাংলাদেশ সাক্ষী হলো কনকাশন সাবের।

২১তম ওভারের তৃতীয় বল মোহাম্মদ শামীর বাউন্সার লিটন দাসের মাথায় আঘাত হানে। এরপর আরো ৭ বল খেলেছেন লিটন দাস, তবে আঘাতের যন্ত্রণায় টিকতে পারেননি। মাঠ ছাড়েন এ ডান হাতি ব্যাটসম্যান। মধ্যাহ্ণ বিরতির পর আর লিটনকে নিয়ে ঝুঁকি নেয়নি টিম ম্যানেজমেন্ট। ইতিহাসে দ্বিতীয় ও বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে প্রথম কনকাশন সাব হিসেবে নামেন মেহেদি হাসান মিরাজ। অথচ একাদশে নামই ছিলো না এ অলরাউন্ডারের। যদিও বদলী হিসেবে নেমে ১৩ বলে আটের বেশি করতে পারেননি মিরাজ।

সেই শামির বাউন্সারে একই পরিণতি নাঈম হাসানের। তাকে পর্যবেক্ষণে ভারতের ফিজিও নিতিন পাতিল মাঠে চলে এসে স্পিরিট অব ক্রিকেটের দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরার পর আর ফিল্ডিংয়ে নামেননি তিনি। নাঈমের কনকাশন সাব হিসেব নামেন তাইজুল ইসলাম।

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী একমাত্র মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত খেলোয়াড়দের বদলী নামানোর সুযোগ আছে। এর আগে আরো তিন বার এ ঘটনা ঘটে। কিংস্টন টেস্টে ভারতের বিপক্ষে ড্যারেন ব্রাভোর পরিবর্তে জারমেইন ব্ল্যাকউড আর একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ডিন এলগারে  কনকাশন সাব হিসেবে নেমেছিলেন থিউনিস ডি ব্রুইন। আর প্রথম উদাহরণ চলতি বছরের অ্যাশেজে। লর্ডস টেস্টে জোফরা আর্চারের বল স্টিভেন স্মিথের মাথায়  আঘাত করলে বদলী হিসেবে নেমেছিলেন মারনাস লাবুশেন।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর