channel 24

সর্বশেষ

  • রিজেন্ট হাসপাতাল ও জেকেজি সম্পর্কে জানা ছিল না: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

  • রিজেন্ট চেয়ারম্যান সাহেদের পাসপোর্ট জব্দ

  • লাভের আশায় গরু পালন করে দাম নিয়ে দুশ্চিন্তায় খামারীরা

  • আগামী মাসে মাঠে গড়াচ্ছে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ

  • আবারও মনোবিদ আজহার আলীর ওপর আস্থা বিসিবির

  • আগস্টের প্রথম সপ্তাহ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফুটবল দলের আবাসিক ক্যাম্প

  • সাউদাম্পটন টেস্টে ৯৯ রানে পিছিয়ে ইংল্যান্ড

  • বিএফডিসিতে অসহায় শিল্পীদের সহায়তা করলেন অনন্ত-বর্ষা

  • সিলেটে বিষ খাইয়ে হত্যাচেষ্টা, মা-ছেলে কারাগারে

  • কুমিল্লায় ব্যবসায়ী আকতার হত্যার ঘটনায় মামলা

  • সাংবিধানিক কারণেই করোনার মধ্যে উপনির্বাচন: সিইসি

  • বানের জলে ডুবছে লোকালয়; সুরমা উপচে তলিয়েছে সুনামগঞ্জ শহর

  • এখনও অধরা রিজেন্ট কাণ্ডের নাটের গুরু সাহেদ

  • সাংবাদিকদের মাঝে করোনাকালীন সহায়তার চেক বিতরণ

  • অনলাইন থেকে গরু কিনলেন তিন মন্ত্রী

ক্রিকেট ইতিহাসে ৪র্থ ও ৫ম কনকাশন সাব দেখলো কলকাতা টেস্ট

ক্রিকেট ইতিহাসে ৪র্থ ও ৫ম কনকাশন সাব দেখলো কলকাতা টেস্ট

ক্রিকেট ইতিহাসে চতুর্থ ও পঞ্চমবারের মতো কনকাশন সাবের উদাহরণ দেখলো কলকাতা টেস্ট। মোহাম্মদ শামীর বাউন্সারে মাথায় আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়েন লিটন দাস। এরপর আইসিসির নিয়ম মেনে কনকাশন সাব হিসেবে ব্যাট হাতে নামেন মেহেদি হাসান মিরাজ। একই পরিণতি নাঈম হাসানের। তার পরিবর্তে মাঠে নামেন তাইজুল ইসলাম।

গোলাপী বল, দিবা-রাত্রির টেস্ট, ইডেন গার্ডেন্স রোমাঞ্চের কমতি নেই কলকাতা টেস্টে। ঐতিহাসিক টেস্টের সাথে বাংলাদেশ সাক্ষী হলো কনকাশন সাবের।

২১তম ওভারের তৃতীয় বল মোহাম্মদ শামীর বাউন্সার লিটন দাসের মাথায় আঘাত হানে। এরপর আরো ৭ বল খেলেছেন লিটন দাস, তবে আঘাতের যন্ত্রণায় টিকতে পারেননি। মাঠ ছাড়েন এ ডান হাতি ব্যাটসম্যান। মধ্যাহ্ণ বিরতির পর আর লিটনকে নিয়ে ঝুঁকি নেয়নি টিম ম্যানেজমেন্ট। ইতিহাসে দ্বিতীয় ও বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে প্রথম কনকাশন সাব হিসেবে নামেন মেহেদি হাসান মিরাজ। অথচ একাদশে নামই ছিলো না এ অলরাউন্ডারের। যদিও বদলী হিসেবে নেমে ১৩ বলে আটের বেশি করতে পারেননি মিরাজ।

সেই শামির বাউন্সারে একই পরিণতি নাঈম হাসানের। তাকে পর্যবেক্ষণে ভারতের ফিজিও নিতিন পাতিল মাঠে চলে এসে স্পিরিট অব ক্রিকেটের দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরার পর আর ফিল্ডিংয়ে নামেননি তিনি। নাঈমের কনকাশন সাব হিসেব নামেন তাইজুল ইসলাম।

আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী একমাত্র মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত খেলোয়াড়দের বদলী নামানোর সুযোগ আছে। এর আগে আরো তিন বার এ ঘটনা ঘটে। কিংস্টন টেস্টে ভারতের বিপক্ষে ড্যারেন ব্রাভোর পরিবর্তে জারমেইন ব্ল্যাকউড আর একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ডিন এলগারে  কনকাশন সাব হিসেবে নেমেছিলেন থিউনিস ডি ব্রুইন। আর প্রথম উদাহরণ চলতি বছরের অ্যাশেজে। লর্ডস টেস্টে জোফরা আর্চারের বল স্টিভেন স্মিথের মাথায়  আঘাত করলে বদলী হিসেবে নেমেছিলেন মারনাস লাবুশেন।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

স্পোর্টস 24 খবর