channel 24

সর্বশেষ

  • চিঠি পাঠিয়ে তাইওয়ানকে সতর্ক করলেন জিনপিং

  • গ্রামে বেড়ে ওঠার সময়গুলো খুব মিস করি: শফিক তুহিন

  • বাংলা সিনেমায় প্রথম অ্যানিমেশন টিজার প্রকাশ করলো ‘পদ্মাপুরান’

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এবার ৫৮০ মণ্ডপে দুর্গাপূজা

  • পার্বত্য চট্টগ্রামের পথ কুকুর পাচার হচ্ছে মিজোরামে

  • 'নদী বাঁচলে মানুষ বাঁচবে'

  • শিরোপা অক্ষুণ্ন রাখার মিশনে প্রস্তুত টাইগার যুবারা

  • দুর্নীতির মামলায় সাবেক প্রতিমন্ত্রী মান্নান খান ও তার স্ত্রীর বিচার শুরু

  • সোমবার থেকে লাখ লাখ স্মার্টফোনে বন্ধ হচ্ছে গুগলের সেবা

  • খুলেছে ঢাবি গ্রন্থাগার, কর্তৃপক্ষের নির্দেশ উপেক্ষা চাকরিপ্রার্থীদের

  • সাড়ে ১০ হাজার শ্রমিককে ভিসা দেবে যুক্তরাজ্য

  • নাসিরনগরে পানিতে ডুবে যমজ ভাই-বোনের মৃত্যু

  • এক ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ, পিছিয়েছে বিএনপি: কাদের

  • বিমানবন্দরে পরীক্ষামূলকভাবে আরটিপিসিয়ার ল্যাব চালু

  • তেলের মিলের পাশে পড়ে ছিলো আনসার কমান্ডারের লাশ

বৈশ্বিক জঙ্গিবাদের রপ্তানিকারক না হয়ে যায় আফগানিস্তান

বৈশ্বিক জঙ্গিবাদের রপ্তানিকারক না হয়ে যায় আফগানিস্তান

যুক্তরাষ্ট্র তার ইতিহাসের দীর্ঘতম যুদ্ধ শেষ করে অনেকটা লজ্জাজনকভাবে আফগানিস্তান ছেড়েছে। কট্টর তালেবানের বিশ্বজুড়ে বৈধতার সংকট আছে, আছে দেশ পরিচালনার অনভিজ্ঞতাও। এ অবস্থায় চীন, রাশিয়া, পাকিস্তান, ভারত দেশটির ওপর প্রভাব বিস্তারের সুযোগ ছেড়ে দেবে না। তবে সাবধান সবাই। কেন না, ঐতিহাসিকভাবে বহু সাম্রাজ্যের কবর রচিত হয়েছে পাহাড়ি এই জনপদে।

মার্কিন সি-সেভেনটিন বিমান থেকে আফগানদের পতনের ছবি ইতিহাসবিদদের কাছে আগ্রাসন, ধর্মীয় উগ্রবাদ, ভুল নীতির সম্মিলিত পরাজয়ের প্রতিচ্ছবি। 

প্রেসিডেন্সিয়াল ভবনে এখনও উড়ছে আফগান পতাকা।  কতক্ষণ তা থাকবে জানা নেই কারো। এই পতাকার নীচে এমনকি সীমানার বাইরেও প্রকাশ্য আর গোপন সমঝোতায় নির্ধারিত হবে প্রায় ৪ কোটি আফগানের ভবিষ্যত।

আরও পড়ুন: আফগানিস্তানে ফিরলেন মোল্লা বারাদার

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্রের মধুচন্দ্রিমা কার্যত শেষ। কাবুল পতনের পরপরই চীন-রাশিয়ার তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় মনে হয়নি তালেবানদের স্বীকৃতি কিংবা সহযোগীতা দিতে কোন আপত্তি আছে তাদের। এটা প্রায় নিশ্চিত পশ্চিম থেকে আর্থিক সহযোগিতা আফগানিস্তানে, আগের মতো আর থাকবে না। সেক্ষেত্রে টাকার কুমির চীনের ওপর ভরসা করতে হচ্ছে তালেবানদের। তবে আফগানিস্তান যে নানা সাম্রাজ্যের বধ্যভূমি এটিও চীনের অজানা নয়। তাই তালেবানদের কতটুকু আগলে রাখবেন শি চিনপিং তা সময়ই বলে দেবে।

আফগানিস্তানে দক্ষিণ-পূর্ব দুইদিকেই পাকিস্তান। প্রতিবেশী দেশে পালাবদলে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান উচ্ছসিত প্রশংসা করেছেন তালেবানদের। ইমরান পরিস্থিতিকে দেখছেন সামনের দিনে কাবুলে ইসলামাবাদের সুদিন হিসেবে। এছাড়াও পাকিস্তানে তালেবান সহানুভূতির কমতি নেই। কাবুল পতনে পাকিস্তান জামায়াত ইসলামীসহ বহু র্ধমীয় নেতা, তালেবানের বিজয় হিসেবে উল্লেখ করেছে।

কাবুলে ক্ষমতার পালাবদল ভারতের জন্য কৌশলগতভাবে গভীর। দিল্লী এখনও সতর্ক নজর রাখছে। পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইএর বিরুদ্ধে তালেবানকে সহযোগিতার অভিযোগ বহু পুরোনো। আর আফগান সীমান্তের একটি অংশ বিতর্কিত কাশ্মীরঘেষা হওয়ায় এ অঞ্চলে পাকিস্তানের বাড়তি সুবিধা ভারতের অস্বস্তির কারণ হতে পারে।

আফগানিস্তানে রাশিয়ার তিক্ত অভিজ্ঞতা আছে। তাই দেশটি আরও বেশি সতর্ক। তবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবহীন আফগান জনপদে কোন পরাশক্তিকে খালি মাঠে গোল দেয়ার সুযোগ দেবে না রাশিয়া। 

দুই দশক পর তালেবানের প্রত্যাবর্তনে নিরাপত্তা বিশ্লেষকদের আশঙ্কা, বৈশ্বিক জঙ্গিবাদের আতুরঘর বা রপ্তানিকারক না হয়ে যায় আফগানিস্তান। তবে তালেবানদের মধ্যেও ২০ বছরে ঘটেছে প্রজন্মের পরিবর্তন। দীর্ঘ যুদ্ধ এই কট্টোরপন্থীদের কতটুকু পরিণত করেছে সেদিকে তাকিয়ে পুরো বিশ্ব।


এফএইচ

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর