channel 24

সর্বশেষ

  • দেয়ালচিত্রে রঙিন হয়ে উঠছে রাজশাহী মহানগরী

  • পঞ্চম ধাপের পৌর ভোটের প্রচারের শেষ দিন আজ

  • সিলেটে দুই বাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেছে ৮ জনের

  • ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার লেখক মুশতাকের কারাগারে মৃত্যু

  • মধুখালী উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষে জনসভা

  • নিউজিল্যান্ড সফর চ্যালেঞ্জিং হবে: প্রধান নির্বাচক

  • ওয়ারীতে কিশোরের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার

  • পি কে হালদারের ৭১ একর জমি জব্দ

  • মোহাম্মদ রফিকের নেতৃত্বে টি টোয়েন্টি খেলতে ভারত যাচ্ছে বাংলাদেশ

  • চাঁদপুরে জমি নিয়ে বিরোধে বসতঘর জ্বালিয়ে লুটপাট

  • শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ছড়িয়েছে সারা দেশে

  • পিলখানা ট্র্যাজেডি: থমকে আছে মামলার আপিল শুনানি

  • নাসির-তামিমার বিয়ের প্রসঙ্গ উঠলো হাইকোর্টে

  • তিউনিসিয়ায় হাসপাতালে ভায়োলিনের সুরে চিকিৎসা

  • বাংলাদেশের উন্নয়নে বিনিয়োগ করতে চায় জাপান

ঢাকা থেকে ইয়াবা যাচ্ছে নিউইয়র্ক!

ঢাকা থেকে ইয়াবা যাচ্ছে নিউইয়র্ক!

কুরিয়ারটি যাবে নিউইয়র্কে। সবকিছু ঠিকঠাক। জিপিও'র সব ধাপ পেরিয়ে, কেবল বিমানে ওঠার অপেক্ষায়। কিন্তু বাধ সাধলো পুলিশ। শেষ মুহূর্তে সেই প্যাকেট খুলে পাওয়া গেলো চারটি জিন্স প্যান্ট। যার দুটির ভেতর অভিনব কায়দায় লুকানো ছিলো দুই হাজারের বেশি ইয়াবা।

ঘটনার শুরু ৬ ডিসেম্বর। রাজধানীর খিলগাও থানার বনশ্রী জে ব্লকে মাদক বেচাকেনা সন্দেহে ওত পাতে পুলিশ। ধরা পড়ে রাহাত নামে একজন। তার দেয়া তথ্যে নাহিদ ও জুয়েল নামের দুজনকে বনশ্রীর একটি বাসা থেকে আটক করা হয়। তারা বলে রাজীবের নাম। সেও আসে আইনের আওতায়। পুরো রাতের এ অভিযানে উদ্ধার হয় ৮০ পিস ইয়াবা।এ পর্যন্ত ঘটনাটি খুবই সাধারণ। কিন্তু বিপত্তি বাধে ঐদিন দুপুরে রাজীবের নামে নিউইয়র্কে পাঠানো একটি আন্তর্জাতিক কুরিয়ার রশিদের কারণে। জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, একজন নারীর নামে নিউইয়র্কে চারটি জিন্স প্যান্ট ঢাকা জিপিওর মাধ্যমে পাঠায় তারা। সন্দেহ তীব্র হয় পুলিশের।

৭ ডিসেম্বর যখন এসি খিলগাঁওয়েরে নেতৃত্বে তদন্ত দল জিপিওতে যায়, তখন কুরিয়ারটি বিমানবন্দরে যাবার অপেক্ষায়। ডাক কর্মকর্তাদের নেতৃত্বেই খোলা হয় প্যাকেটটি। বেরিয়ে আসে চারটি জিন্স প্যান্ট কিন্তু আসলে কি আছে ভেতরে। বহু অনুসন্ধানের পর উদ্ধার হয়, প্যান্টের কোমর এবং গোড়ালির সাথে সেলাইয়ের ভেতরে লুকানো ৬৮ টি স্ট্রাইক। যাতে অভিনবভাবে সাজানো ইয়াবা ট্যাবলেট।

পুলিশের কথার সূত্র ধরে পরের যাত্রা দেশের প্রধান ডাকঘরে। সোমবার পুলিশের সাথে অভিযানে ছিলেন এমন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলার পর জানা গেলো, স্ক্যানার নষ্ট জিপিওর। সদ্য যোগ দেয়া সংস্থাটির মহাপরিচালক সিরাজ উদ্দিন জানান, অচিরেই নতুন মেশিন আনা হচ্ছে বিদেশি পার্সেল স্ক্যানের জন্য।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেলো, একেবারেই ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে গ্রহণ করা হচ্ছে দেশের বাইরে পাঠানোর পার্সেলগুলো। এতে অবৈধ দ্রব্য বিদেশে পাঠানোর সুযোগ থেকেই যাচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর