channel 24

সর্বশেষ

  • তিন মিনিটেরও কম সময়ে স্বর্ণ জয় করলেন নোরা

  • নারী সহপাঠীকে ফেসবুকে যৌন হয়রানি, তোলপাড় বুয়েট

  • ভারত থেকে আসবে আরও ২০০ টন অক্সিজেন

  • ৫ আগস্ট পর্যন্ত স্থগিত সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন

  • পিতৃ পরিচয়ে সন্দেহ করে সন্তাকে হত্যা করলো বাবা

  • সামনের বছর বন্ধুকে বিয়ে করবেন ঋতাভরী

  • এক দিনে রেকর্ডসংখ্যক রোগী ডেঙ্গুতে আক্রান্ত

  • করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় ফরিদপুর জিলা স্কুলের সাবেক ছাত্রদের নানামুখী উদ্যোগ

  • কোভিড পরবর্তী দুর্বলতা কাটাতে যা খাবেন, যা খাবেন না

  • বাবা বেচে মদ, ছেলে বেচে গাঁজা!

  • ভারতে আবারও পাঁচ রাজ্যে চোখ রাঙাচ্ছে করোনা

  • কুড়িগ্রামে পুলিশকে ধাওয়ার ঘটনায় মামলা

  • কুমিল্লায় চিকিৎসকে মারধরের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১

  • ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য আরও সাড়ে ৪ কোটি টাকা ও ৯ হাজার ৪৭৫ টন চাল সহায়তা

  • করোনায় দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তেও সর্বোচ্চ রেকর্ড

চার শীর্ষ ব্র্যান্ডের বনস্পতি ঘিতে ১০ গুণ বেশি ক্ষতিকর ট্রান্সফ্যাট

চার শীর্ষ ব্র্যান্ডের বনস্পতি ঘিতে ১০ গুণ বেশি ক্ষতিকর ট্রান্সফ্যাট

বেকারি ও ফাস্টফুড পণ্য তৈরিতে ব্যবহৃত ডালডা বা বনস্পতি ঘিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক সুপারিশ করা মাত্রার চেয়ে ১০ গুণেরও বেশি স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ট্রান্সফ্যাট পাওয়া গেছে। সম্প্রতি ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন, ভোক্তা অধিকার রক্ষা সংগঠন ক্যাব এবং বেসরকারি সংস্থা প্রজ্ঞার যৌথ গবেষণায় উঠে এসেছে এ তথ্য।

পারশিয়ালি হাইড্রোজেনেটেড অয়েল বা পিএইচও; সহজ ভাষায় ডালডা বা বনস্পতি ঘি। যার ব্যবহার মূলত বেকারি পণ্য বা ফাস্ট ফুড তৈরিতে। মুখরোচক হওয়ায়, এসব খাবার সব বয়সীদেরই পছন্দ।

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে,  দেশের বাজারে যে ডালডা পাওয়া যায়, তার ৯২ শতাংশ নমুনায় মাত্রার চেয়ে বেশি ট্রান্স ফ্যাটি এসিড বা ট্রান্সফ্যাট পাওয়া গেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাবে, ১০০ গ্রাম ডালডায় ট্রান্সফ্যাট থাকার কথা মাত্র ২ গ্রাম। অথচ দেশের চারটি শীর্ষ ব্র্যান্ডের ডালডাতে সর্বোচ্চ ট্রান্সফ্যাটের উপস্থিতি মিলেছে প্রায় ২১ গ্রাম। আবার একই ব্রান্ডের আলাদা ৭টি নমুনায় দেখা গেছে ট্রান্সফ্যাটের তারতম্যও। মিলেছে সর্বনিম্ন ১ গ্রাম থেকে সর্বোচ্চ সাড়ে ১৪ গ্রাম পর্যন্ত। সবমিলিয়ে গড়ে প্রতি ১০০ গ্রাম ডালডায়, ট্রান্সফ্যাট মিলেছে ১১ গ্রাম। গবেষকরা বলছেন, যা বাড়াচ্ছে স্বাস্থ্য ঝুঁকি।

খাদ্যদ্রব্য প্রস্তুত প্রক্রিয়ায় ক্ষতিকর ট্রান্সফ্যাটের মাত্রা কমিয়ে আনতে, দ্রুত নীতিমালা প্রণয়নের তাগিদ গবেষক ও ভোক্তা প্রতিনিধিদের।

২০০৩ সালে সর্বপ্রথম ডেনমার্ক এবং সবশেষ চলতি বছর মে মাসে তুরস্ক, খাদ্যদ্রব্যে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা নির্ধারিত পরিমাণ ট্রান্সফ্যাট রাখার উদ্যোগ নেয়।

দ্রুত সবধরনের ফ্যাট, তেল ও খাদ্যদ্রব্যে ট্রান্সফ্যাটের সর্বোচ্চ সীমা মোট ফ্যাটের ২ শতাংশ নির্ধারণ এবং তা কার্যকরের দাবি জানিয়েছেন গবেষকরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর