channel 24

সর্বশেষ

  • বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ আয়োজনে মরিয়া শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট

  • দেশে কওমি শিক্ষার প্রসারে অবদান রাখেন আল্লামা শফি

  • নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন সভাপতি প্রার্থী বাদল রায়

  • মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু

  • আল্লামা শফী মারা গেছেন

  • মানিকগঞ্জে শ্রমিক জুলহাসকে পায়ুপথে বাতাস দিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা

  • বাঁশের চেয়ে কঞ্চি বড়!

  • নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত ১

  • মাগুরায় দুই বাস-মাইক্রোবাসের ত্রিমুখি সংঘর্ষ, নিহত ৪

  • রংপুরে একই বাড়ি থেকে দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার

  • বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সফর: বিসিবির চিঠির উত্তর দেয়নি এসএলসি

  • ক্রিকেটারদের দ্বিতীয় ধাপের করোনা পরীক্ষা শুরু

  • পচাত্তরের কুশীলবরা এখনো আশপাশে ওৎ পেতে আছে: শ ম রেজাউল

  • দেশে করোনায় আরও ২২ জনের মৃত্য, শনাক্ত ১৫৪১

  • ইসরায়েলের সাথে আরব রাষ্ট্রের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার উদ্যোগের প্রতিবাদ

২০ বছর কনডেম সেলে থাকার পর জানলেন তিনি নির্দোষ

২০ বছর কনডেম সেলে থাকার পর জানলেন তিনি নির্দোষ

টানা বিশটি বছর স্ত্রী ও নিজ কন্যা সন্তানকে খুনের মামলায় কনডেম সেলে বাগেরহাটের শেখ জাহিদ। তবে মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এক রায়ে জানিয়ে দেন, স্ত্রী ও কন্যা হত্যার অভিযোগ প্রমাণ করতে না পারার কারণে খালাস দেয়া হলো শেখ জাহিদকে।

১৯৯৭ সালের জানুয়ারি বাগেরহাটের ফকিরহাট থানার রহিমা ও তার দেড় বছরে কন্যা সন্তান ঘুমন্ত অবস্থায় খুন হন। পারিবারিক কলহের অভিযোগে ঐদিনই মামলা হয়। এ মামলায় ২০০০ সালের জুন মাসে স্বামী শেখ জাহিদকে মৃত্যুদণ্ড দেন বাগেরহাট দায়রা জজ আদালত। সেই থেকে কারাগারের অন্ধ প্রকোষ্ঠে ঠাঁই হয় শেখ জাহিদের।

মৃত্যুদণ্ড অনুমোদনের জন্য আসে হাইকোর্টে। ২০০৪ সালের জুলাইতে মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে হাইকোর্টে এক রায়ে জানিয়ে দেন, শেখ জাহিদই তার স্ত্রী ও সন্তানকে খুন করেছে।

পরবর্তীতে মামলাটি আপিল বিভাগে যায় ২০০৭ সালে।

গত সপ্তাহে মামলাটি নজরে পরে প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের বেঞ্চে। মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেয় সর্বোচ্চ আদালত। নিযুক্ত করা হয় শেখ জাহিদের আইনজীবী। কিন্তু মামলার শুনানি করতে গিয়ে আপিল বিভাগ দেখেন নানা অসঙ্গতি।

মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন হন ৮ জন। এমনকি হত্যার সাথে জড়িত থাকার বিষয়টিও প্রমাণ করতে পারেননি তদন্ত কর্মকর্তা। আর তাই জাহিদকে খালাস দেন সর্বোচ্চ আদালত।

এমন খালাস পাওয়ার ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করেন আসামিপক্ষের আইনজীবীও।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি বলছেন, একজনের জীবন থেকে কনডেম সেলে ২০ বছর হারিয়ে যাওয়া কষ্টের। যারা জড়িত তাদের সাজা হওয়া উচিত।

আপিল বিভাগ তার রায়ে দ্রুত শেখ জাহিদের মুক্তির নির্দেশ দিয়েছেন। বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার রায়ের অনুলিপি পাঠানো হবে কারাগারে।

নিউজটির ভিডিও প্রতিবেদন-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর