channel 24

সর্বশেষ

  • পুনর্বাসনের দাবিতে আবারো আন্দোলনে লালদিয়ারচরের বাসিন্দারা

  • ২০২০ সালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ১৩০ মামলায় আসামি ২৭১

  • বেগমগঞ্জে মাদ্রাসাছাত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা

  • ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনকে কবর দেয়ার সময় এসেছে: ডা. জাফরুল্লাহ

  • সিরিয়ায় মার্কিন বিমান হামলায় ১৭ শিয়া মিলিশিয়া নিহত

  • ফেসবুক স্ট্যাটাসকে কেন্দ্র করে আফতাবনগরে এক কিশোর খুন

  • খাগড়াছড়িতে ক্ষুদ্র আঙিকে চাষাবাদ করে সাবলম্বী চাষীরা

  • লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর তদন্ত করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • ওমানে গিয়ে সম্ভ্রমহানি; দেশে ফিরে পরিবারে ঠাই হয়নি মা-মেয়ের

  • কঠোর কোয়ারেন্টিনে রুম বন্দী টিম বাংলাদেশ

  • ঘুমন্ত মানুষকে জিম্মি করে সর্বস্ব লুটে নিচ্ছে সংঘবদ্ধ একটি চক্র

  • দেয়ালচিত্রে রঙিন হয়ে উঠছে রাজশাহী মহানগরী

  • পঞ্চম ধাপের পৌর ভোটের প্রচারের শেষ দিন আজ

  • সিলেটে দুই বাসের সংঘর্ষে প্রাণ গেছে ৮ জনের

  • ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার লেখক মুশতাকের কারাগারে মৃত্যু

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রেস থেকেই বারবার মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রেস থেকেই বারবার মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রেস থেকেই বারবার ফাঁস হয়েছে মেডিকেল ও ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন। প্রেসের মেশিনম্যান সালাম ও তার খালাতো ভাই জসীম-এ দুজন মিলে দেশব্যাপী গড়ে তুলেছিলেন বৃহৎ এক চক্র। যে চক্রের মাধ্যমে শত শত শিক্ষার্থী টাকার জোরে ভর্তি হয়েছে মেডিকেল কলেজগুলোতে। স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে অজস্র প্রকৃত মেধাবীর।

মহাখালীর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে রয়েছে স্বাস্থ্যশিক্ষা ব্যুরোর নিজস্ব ছাপাখানা। গত তিন যুগ ধরে ম্যালেরিয়া, ডায়রিয়া, ডেঙ্গু-এমনকি হালের করোনা মহামারিরও বিভিন্ন সচেতনমূলক লিফলেট ও পোস্টার ছাপা হয় এই ছাপাখানায়। ছাপা হয় মেডিকেল ও ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নও।

অধিদপ্তরের ক্ষমতাবান কর্তাদের মদদে এই প্রেস থেকেই বহু বছর ধরে মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস করতেন মেশিনম্যান আবদুস সালাম। প্রেসের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী আবদুস সালামের আপন খালাতো ভাইয়ের নাম জসিমউদ্দিন ভূইয়া মুন্নু, যাকে প্রশ্ন ফাঁস চক্রটির মাস্টারমাইন্ড হিসেবে চিহ্নিত করেছেন চক্রের আরেক সদস্য সানোয়ার হোসেন।

চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের দীর্ঘ অনুসন্ধানে মেডিকেল খাতের অন্যতম বৃহৎ এই কেলেঙ্কারির তথ্য উঠে এলে গত ১৯ জুলাই মিরপুরের বাসা থেকে জসিমকে গ্রেপ্তার করে সিআইডির সাইবার পুলিশ। গ্রেপ্তারের পর অকপটে নিজের অপকর্মের কথা স্বীকার করেন তিনি।

দেশজুড়ে চক্রটির প্রায় অর্ধশত সহযোগীর খোঁজ পাওয়া গেছে। প্রত্যেককেই আইনের আওতায় আনতে প্রশ্নফাঁস মামলার পাশাপাশি মানিলন্ডারিং মামলাও প্রস্তুতি নিচ্ছে সিআইডি।

বিভিন্ন সময়ে মেডিকেলের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্নফাসের অভিযোগ উঠলেও শক্ত প্রমাণের অভাবে বরাবরই পাশ কাটিয়ে গেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এমন এক সময়ে এসে প্রমাণ মিললো যখন দুর্নীতির দায়ে একের পর এক পতন ঘটছে স্বাস্থ্যখাতের শীর্ষ কর্তাদের।

নিউজটির বিস্তারিত দেখুন ভিডিওতে-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর