channel 24

সর্বশেষ

  • সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম করোনায় আক্রান্ত

  • প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত সুদ ছাড়ের প্রণোদনা পাবে মার্চেন্ট ব্যাংকগুলো

  • করোনাকালে ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিল নিয়ে গ্রাহকদের ক্ষোভ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে হত্যা: বাচ্চু মিলিটারি ৫ দিনের রিমান্ডে

  • পঞ্চগড়ে বজ্রপাতে বাবা ছেলেসহ ৩ জনের মৃত্যু

  • বাস-লঞ্চে উধাও স্বাস্থ্যবিধি

  • স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় এমভি প্রিন্স লঞ্চ জব্দ

  • লকডাউন শেষে মুক্ত হলো আকাশপথ, চলছে উড়োজাহাজ

  • লিবিয়ায় নিহতদের স্বজনরা মুক্তিপণের টাকা হাজী কামালকে দিয়েছিলেন

  • হিলি রেলপথ দিয়ে ভারত থেকে দ্বিতীয় দফায় পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে

  • না ফেরার দেশে চলে গেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব আশরাফুল আলমের বাবা

  • লেনদেন বাড়লেও দুই স্টক এক্সচেঞ্জে বড় দরপতন

  • ২৬ বাংলাদেশি হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে কঠোর নিন্দা জানিয়েছে লিবিয়ার সরকার

  • 'আমেরিকায় বর্ণবৈষম্য করোনা ভাইরাসের চাইতেও ভয়ংকর'

  • তামিম ইকবাল ডব্লিউএফপি'র জাতীয় গুডউইল অ্যামবাসাডর হিসেবে নিযুক্ত

মহামারির সংকটেও বঞ্চনা পিছু ছাড়েনি হিজড়াদের, কপালে জোটেনি সরকারি ত্রাণ

মহামারির সংকটেও বঞ্চনা পিছু ছাড়েনি হিজড়াদের, কপালে জোটেনি সরকারি ত্রাণ

হিজড়া। সমাজের একটি অংশ হলেও সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন এই তৃতীয় লিঙ্গদের জীবনধারা এখনও আটকে আছে কিছু মানুষের বাঁকা চাহনি আর সীমাবদ্ধতার ঘেরাটোপে। করোনা সংকটেও সেটা কাটেনি। পরিবর্তন আসেনি তাদের প্রতি ব্যবহারে। তারা পাননি কোনো সরকারি ত্রাণ সহায়তাও।


দুই হাতের তালিতে এক সময় মানুষের দৃষ্টি কেড়ে নিতো যারা কিংবা দিনশেষে উপার্জন করতো কিছু না কিছু, সময়ের অস্থিরতায় সেই করতালি জুড়ে এখন শুধুই করোনার নৈশব্দ।

করোনার কারণে লকডাউনের পর থেকেই শূণ্য চোখগুলো হয়তোবা উপায় খুঁজছে বেঁচে থাকবার। তবে শহর জুড়ে এতো এতো শূণ্যতার ভীড়ে উপায়গুলোও যে বড্ড নিরুপায়। কেমন করে চলছে জীবন, কি হবে আর কিভাবেইবা চলবে?  

সমাজের অংশ হলেও সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন এই তৃতীয় লিঙ্গদের জীবনধারা যে এখনও আটকে আছে সমাজের বাঁকা চাহনি আর সীমাবদ্ধতার ঘেরাটোপে। করোনা সংকটে সে পথ মসৃণ করবার দায়ে দায়বদ্ধ হয়েছে কি কেউ? নাকি এখনও আছে সেই ধুরছাই ব্যবহার।

সময় যখন বলছে চেয়েচিন্তে দুবেলা দু-মুঠো খাবার জোগাড় করা এসব মানুষের পাশে থাকবার কথা, তখনও কি বৃহন্নলারা পাচ্ছে মানুষের সৌহার্দ সম্প্রীতির আশীর্বাদ নাকি শূণ্য হাত রয়ে যাচ্ছে অপূর্ণই।

তারা বলছেন, কোনো সরকারি ত্রান সহায়তা পাইনি আমরা। খেয়ে না খেয়ে দিন কাটে। এখন দোকান খুললেই কি হাত পাততে পারবো?

নেই নিজস্ব কোনো ঠাঁই, সাথে বিড়ম্বনা প্রতিটি পদক্ষেপে। এরপরও যে পথে আমরা হাঁটি, সেই পথে হেঁটে যায় ওরাও। আর তাই সবার জন্য যদি থাকে ওদের হৃদয়ে প্রার্থনা। তবে বিরুপ না হয়ে, ওদের জন্য প্রার্থনায় পাশে থাকি আমরাও।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর