channel 24

সর্বশেষ

  • অবসর নয়, টেস্ট দলে ফেরার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে: মাহমুদুল্লাহ

  • ভারতের পশ্চিম ও মধ্যাঞ্চলের ৫ রাজ্যে পঙ্গপালের হানা

  • মাধবপুরে জমি দখল নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০

  • যমুনা নদীতে নৌকাডুবিতে দুজনের মরদেহ উদ্ধার

  • আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মুশফিকের ১৫ বছর

  • করোনায় মানবতার সেবায় দৃষ্টান্ত চাঁদপুরের চিকিৎসক দম্পতি

  • করোনায় ডেপুটি স্পিকারের স্ত্রী আনোয়ারা রাব্বীর মৃত্যু

  • করোনা আতঙ্কে ঘর থেকেই বের হননি রাজধানীর বেশিরভাগ মানুষ

  • লাদাখে মুখোমুখি ভারত ও চীনের সেনাবাহিনী

  • দুর্যোগে জনগণের পাশে না দাঁড়িয়ে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করছে বিএনপি: কাদের

  • করোনায় দেশে আরও ২১ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১১৬৬

  • নিজের কিট দিয়ে করোনা পজিটিভ ডা. জাফরউল্লাহ

  • মানসিক অবস্থা ভালো হলেও শারীরিকভাবে সুস্থ নন খালেদা জিয়া

  • ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত খুলনার কয়রাসহ ৫ উপজেলার মাছ চাষী

  • দেশে রেকর্ড চাল উৎপাদনের আশা, উঠে আসবে বিশ্বের তিন নম্বরে

এখনও অজানা করোনার সমাধান, তবে মিলছে নানা তথ্য

এখনও অজানা করোনার সমাধান, তবে মিলছে নানা তথ্য

করোনায় বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল। কিন্তু এখনও অজানা এর প্রতিষেধক। তবে কোভিড নাইনটিনের সংক্রমণ নিয়ে মিলছে নানা তথ্য। কোনো কোনো গবেষক দল বলেছেন, তুলনামূলক উষ্ণ তাপমাত্রার দেশগুলোর তুলনায় প্রকোপ বাড়ছে শীতপ্রধান দেশগুলোতে। যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আগেই উড়িয়ে দিয়েছিলো সে দাবি।

বছরের শুরুর দিকে উহান যখন ছিলো করোনার কেন্দ্রস্থল। আক্রান্ত আর মৃতের সংখ্যার গ্রাফ যখন শুধুই উপরে উঠছিলো, শীত তখনও পুরোপুরি চলে যায়নি। এরপর ইরান, দক্ষিণ কোরিয়াতেও যখন প্রাণহানি হলো তখন নানা আলোচনা আর তর্ক ছিলো মানুষের মাঝে। এর একটি তাপমাত্রা নিয়ে। কেউ বলছিলেন, শীত বলেই এতো আক্রান্ত; উষ্ণ তাপমাত্রায় এমন হবে না।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তখনই এটিকে মিথ বলে উড়িয়ে দিয়েছে। বলেছে, ঠান্ডা কিংবা গরম কোন বিষয় নয়। সব তাপমাত্রাতেই সমান কার্যকর কোভিড নাইনটিন।

এখন যুক্তরাষ্ট্র নাস্তানাবুদ করোনায়। এই দেশটিরই নামকরা বিশ্ববিদ্যালয় ম্যাসাচুসেটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) গবেষকরা সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন দিয়েছেন। তাতে বলা হয়েছে, ২২ মার্চের আগ পর্যন্ত বিশ্বে যে সব জায়গায় করোনা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে, সেসব জায়গার তাপমাত্রা ছিলো ৩ থেকে ১৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে। এসব জায়গায় আর্দ্রতার পরিমাণও ছিলো কম।

গত কদিনে ইতালি, স্পেনে প্রাণহানি হচ্ছে সবচেয়ে বেশি। এই দুটি দেশেও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা এখন ১৭ এর বেশি নয়। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, মধ্যপ্রাচ্য কিংবা আফ্রিকার দেশগুলোতে তাপমাত্রা ৩০ এর ওপরে। সংক্রমণ ও মৃত্যুর হারও এইসব দেশে কম। সব মিলিয়ে এমআইটি গবেষকরা বলতে চাইছেন তাপমাত্রা কোভিডের সংক্রমণে প্রভাব রাখছে। অবশ্য টেস্টের হারও এইসব বেশি তাপমাত্রার দেশগুলোতে খুব কম।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই গবেষণার বিপরীতমুখী অবস্থানে থাকলেও শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত সমস্যাগুলো সাধারণত শীতকালেই বেশি দেখা যায় বাংলাদেশসহ নাতিশীতোষ্ণ দেশগুলোতে। আরও গবেষণা নিশ্চয়ই হবে, আসবে প্রতিষেধকও। তার আগ পর্যন্ত সামাজিক দুরত্ব মেনে চলারই পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসক-গবেষকরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর