channel 24

সর্বশেষ

  • ঝড়-বৃষ্টিতে রাজধানীর বেশ কিছু স্থানে গাছ উপড়ে পড়ে যান চলাচল বন্ধ

  • করোনায় থমকে গেছে কমিউনিটি সেন্টার ও কনভেনশন হলের ব্যবসা

  • করোনা মহামারীর নতুন কেন্দ্র: পেলে, রোনালদো, নেইমারদের দেশ ব্রাজিল

  • নিজের আইনজীবীর কাছে মামলার ভবিষ্যত জানতে চান খালেদা জিয়া

  • করোনায় মৃতের পাশে নেই স্বজনরা, দাফন-সৎকারে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন

  • করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা লাখ ছাড়ালো

  • করোনায় বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি ছাড়িয়েছে সাড়ে ৩ লাখ

  • দেশের বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতসহ ঝড়-বৃষ্টিতে দেয়াল ধসে নিহত ৪

  • অবসর নয়, টেস্ট দলে ফেরার চেষ্টা অব্যাহত থাকবে: মাহমুদুল্লাহ

  • ভারতের পশ্চিম ও মধ্যাঞ্চলের ৫ রাজ্যে পঙ্গপালের হানা

  • মাধবপুরে জমি দখল নিয়ে সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০

  • যমুনা নদীতে নৌকাডুবিতে দুজনের মরদেহ উদ্ধার

  • আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে মুশফিকের ১৫ বছর

  • করোনায় মানবতার সেবায় দৃষ্টান্ত চাঁদপুরের চিকিৎসক দম্পতি

  • করোনায় ডেপুটি স্পিকারের স্ত্রী আনোয়ারা রাব্বীর মৃত্যু

কোয়ারেন্টিনের দীর্ঘ সময় সম্পর্ক মধুর-তিক্ত দুটিই হতে পারে

কোয়ারেন্টিনের দীর্ঘ সময় সম্পর্ক মধুর-তিক্ত দুটিই হতে পারে

করোনা প্রভাব ফেলেছে, গোটা বিশ্বের মানুষের জীবনযাত্রায়। থমছে গেছে স্বাভাবিক কার্যক্রম। এই সময়টায় প্রিয়জনের সাথে সশরীরে নয়, দেখা হচ্ছে, ভিডিও চ্যাটে। মনোবিজ্ঞানীরা বলছেন, কোয়ারেন্টিনে দীর্ঘ সময় একই বাড়িতে থাকায়, স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক আরও গাঢ় হতে পারে; তবে কখনও কখনও হতে পারে এর উল্টোটাও।

৩০ বছর বয়সী যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক এমিলি। কিছুদিন আগে লন্ডনের একটি পাবে পরিচয়ের পর প্রেম হয় একজনের সাথে। কিন্তু শুরুতেই বিপত্তি। দ্বিতীয়বারের মত দেখা করার পরিকল্পনার সময়, করোনার থাবা বিশ্বজুড়ে।

এরপর এখনও আর দেখা হয়নি তাদের। তবে থেমে নেই দুজনের যোগাযোগ। একসাথে সময় কাটানোর বিকল্প পথও বের করেন তারা। রাতের খাবার, পানীয়সহ ভিডিও ডেইটের পরিকল্পনা করেন দুজন।  

এমিলি জিওকা বলেন, যখনই ভালো লাগার মানুষকে খুঁজে পেলাম, তখনই করোনা ভাইরাসের কারণে একজন আরেকজনের কাছে থেকে দূরে থাকতে হচ্ছে! এভাবে ভিডিও চ্যাটের মাধ্যমে আমাদের সাক্ষাৎ হয়ত অদ্ভুদ। কিন্তু এছাড়া কোন উপায়ও নেই।

বিশ্বজুড়ে অর্থনৈতিক ও সামাজিক অবস্থার পরিবর্তনের পাশাপাশি কোভিড-19 বদলে দিয়েছে মানুষের দৈনন্দিন স্বাভাবিক জীবনযাপনের ধরণ। যার প্রভাব পড়ছে মানুষের সম্পর্কের ওপরও।   

বাধ্য হয়ে কর্মক্ষেত্র ফেলে অনেককেই দিনের পর দিন থাকতে হচ্ছে ঘরে। একজন মনোবিদ বলছেন, বিবাহিত যুগলের জন্য এমন ভিন্নভাবে জীবনযাপন করাটা বেশ চ্যালেঞ্জের।

সাইকোলজিস্ট ডা. ওয়েন্ডি ডিকিনসন বলেন, অনেক স্বামী-স্ত্রীকেই দীর্ঘ সময় একই ছাদের নিচে থাকতে হচ্ছে তাও আবার একেবারেই অন্যরকমভাবে, কোয়ারেন্টিনে। যেখানে শারীরিক সম্পর্কও নিরাপদ নয়। অনেকক্ষেত্রেই ঘরে এমন অবরুদ্ধ হয়ে থাকাটা সম্পর্কে তিক্ততার কারণও হতে পারে।

তবে, শুধুই কি তিক্ততা! নাকি এর ইতিবাচক দিকও রয়েছে।

ডা. ওয়েন্ডি ডিকিনসন বলেন, অবশ্যই এর ভালো দিকও আছে। কারণ অনেক সময় কর্মব্যস্ততায় একজন আরেকজনকে সময় দিতে পারেন না। কিন্তু এখন দুজনের হাতেই অনেক সময়। ফলে এটি সম্পর্ককে আরো গাঢ়ো করে তুলবে।

যুক্তরাষ্ট্র কিংবা যুক্তরাজ্যে আড্ডা দেয়া কিংবা সময় কাটানোর জায়গাগুলো এখন অনেকটাই ফাঁকা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর