channel 24

সর্বশেষ

  • করোনায় বিশ্বজুড়ে প্রাণহানি ৫ লাখ ৩৮ হাজার

  • বান্দরবানের সন্ত্রাসীদের দু'পক্ষের গোলাগুলিতে নিহত ৬

  • শোলাকিয়ায় জঙ্গী হামলার ৪ বছর আজ

  • জামিন পেলেন লঙ্কান ক্রিকেটার কুশল মেন্ডিস

  • প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোর

  • বানের পানিতে তলিয়েছে ৫০ হাজার হেক্টর জমির ফসল

  • প্রস্তুতির জন্য অন্তত তিন সপ্তাহ সময় চান সৌম্য সরকার

  • কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোর আর নেই

  • লাইসেন্সবিহীন রিজেন্ট হাসপাতালকে করোনা চিকিৎসায় সরকারি অনুমোদন

  • দ্বিতীয় দফার সংক্রমণে বেহাল দশা যুক্তরাষ্ট্র, চীন, নিউজিল্যান্ড ও ইরানের

  • ইংলিশ লিগে আজ মুখোমুখি এভারটন ও টটেনহ্যাম

  • সূচক কিছুটা গতিশীল হলেও বড় পরিবর্তন নেই লেনদেনে

  • রংপুর অঞ্চলে আউশের আবাদে রেকর্ড

  • ইংল্যান্ডে দু'দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলছেন পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা

  • করোনার ভুয়া টেস্ট রিপোর্ট দিতো রিজেন্ট হাসপাতাল

যেভাবে থাকবেন হোম কোয়ারেন্টিনে

যেভাবে থাকবেন হোম কোয়ারেন্টিনে

করোনার ঝুঁকি এড়াতে থাকতে হবে নিরাপদে। হোম কোয়ারেন্টিন বা নিজেকে আলাদা করতে হবে, সবার কাছ থেকে। মেনে চলতে হবে নিয়ম-কানুন। চিকিৎসকরা বলছেন, তাতেই কমে আসবে আক্রান্তের হার। এজন্য যে শুধু প্রবাসীদেরই সচেতন হতে হবে তা নয় চাইলে যে কেউ থাকতে পারবেন হোম কোয়ারেন্টিনে।

হোম কোয়ারেন্টিন। সহজ ভাষায় যাকে বলা যায়, সবার কাছ থেকে নিজেকে আলাদা রাখা। করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে অন্যের সংস্পর্শে না যাওয়া, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকা, কারো কাপড়, প্লেট, গ্লাস ব্যবহার না করা, এমনকি ব্যবহার করতে হবে আলাদা টয়লেট।

করোনার সংক্রমণ রোধে শুধু যে প্রবাসীরা হোম কোয়ারেন্টিনে থাকবেন বিষয়টি এমন নয়। চাইলে যে কেউ হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে পারেন।

রংপুরের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. কানিজা সাবিহা বলেন, কারও যদি সর্দি কাশি থাকে তাহলে যেকোন ব্যক্তি, বিদেশ ফেরত হতে হবে না, আমরা তাঁদের বলেছি আপনারা হোম কোয়ারেন্টিনে থাকেন। এবং যারা অসুস্থ হয়েছেন বা সর্দি-কাশিতে ভুগছেন তাহলেই যে করোনায় আক্রান্ত হবেন তা নয়। তবে সর্দি-কাশির সকল রুগীদের আমার পরামর্শ আপনারা ঘরে থাকেন।

করোনা মোকাবেলায় প্রশাসনের সাথে কাজ করছে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। মাইকিং, লিফলেট বিতরণসহ নানা কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে তারা।

স্বেচ্ছাসেবক রাকিব জুয়েল বলেন, এই সময়ে আমাদের সবচেয়ে জরুরি যেটি সেটা হচ্ছে মানুষের ভিতরে সচেতনতা। আর এটিরই সব থেকে বেশি অভাব বোধ করছি আমরা সব স্তরেই।

নিজেকে ও অন্যকে সুরক্ষায় আপাতত যেকোন ধরণের গণজমায়েত এড়িয়ে চলার পরামর্শ চিকিৎসকদের। বগুড়ার মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শফিক আমিন কাজল বলেন, আপনি জনসমাগমে গেলে কে আক্রান্ত আর কে আক্রান্ত নয় সেটা বুঝতে পারবেন না। অতএব জনসমাগম পরিহার করুন। একান্ত জরুরি কাজ ছাড়া বাসা থেকে বের হবার দরকার নেই।

বগুড়ার কারবালা মাদরাসা ও মসজিদের শায়খুল হাদীস ও খতিব মাওলানা কাজী ফজলুল করিম বলেন, চিকিৎসা বিজ্ঞানের দৃষ্টিতে গণজমায়েতে নিরুতসাহিত করা হচ্ছে। আমরাও মসজিদের ইমাম, হিসেবে আলেম হিসেবে গণজমায়েত না হবার জন্যে পরামর্শ দিচ্ছি।

করোনার ঝুঁকি এড়িয়ে চলতে সবাইকে নিজ নিজ জায়গা থেকে সচেতন হওয়ার তাগিদ চিকিৎসকদের।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর