channel 24

সর্বশেষ

  • স্থবির ঢাকায় শর্তসাপেক্ষে খাবারের দোকান খোলা রাখার সিদ্ধান্ত

  • নো কিট, নো টেস্ট, নো পেশেন্ট, নো করোনা: রিজভী

  • কোচ হয়ে বার্সেলোনায় ফিরতে চান জাভি

  • জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে শেরপুর, কুষ্টিয়া ও বিরামপুরে ৩ জনের মৃত্যু

  • করোনাভাইরাস নিয়ে গুজব: ২০টি ফেসবুক আইডি, পেজ বন্ধ; শনাক্ত ৫০

  • বিনামূল্যে পিপিই সরবরাহ করবে ইউএস-বাংলা

  • গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনা শনাক্ত ১: আইইডিসিআর

  • গত ২৪ ঘণ্টায় ২ হাজার ৭৯০ জন নতুন কোয়ারেন্টিনে: আইইডিসিআর

  • নিজেরাই লকডাউন পালন করছে রাঙ্গামাটির কয়েক এলাকার মানুষ

  • সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা গ্রামে মানছেন কজন?

  • করোনায় মারা গেলেন জাপানিজ কমেডিয়ান 'কাইশ্যা'

  • অর্থনীতির স্বাভাবিক অবস্থায় আর ফিরবে না বিশ্ব

  • করোনার প্রভাবে প্রতিদিন দুগ্ধ খামারের লোকসান ৫৭ কোটি টাকা

  • নিউইয়র্কে গত ২৪ ঘন্টায় ৮ বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নাগরিকের মৃত্যু

  • করোনায় ক্ষতির মুখে ছাপা অক্ষরের গণমাধ্যম

মায়ের কাছেও কতোটা নিরাপদ সন্তান?

মায়ের কাছেও কতোটা নিরাপদ সন্তান?

মায়ের কাছে কতোটা নিরাপদ সন্তান? সাম্প্রতিক ডজনখানেক লোহমর্ষক ঘটনায় অবান্তর এই প্রশ্নই এখন, বাস্তবতা। যাতে পারিবারিক কলহের বলি হচ্ছেন, শিশুরা। মনোবিজ্ঞান ও সমাজবিজ্ঞানের শিক্ষকরা বলছেন, পারিবারিক মূল্যবোধের অবক্ষয় আর গৃহিনীর নিষঙ্গতায় উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে এই অপরাধ।

সন্তানের কাছে মায়ের কোল পৃথিবীর সবচেয়ে নিরাপদ স্থান।

তবে সাম্প্রতিক বিভিন্ন ঘটনা আর পরিসংখ্যান যেন বলছে, উল্টো কথা। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গেল দুই বছরে দুই ডজনের বেশি শিশু হত্যার শিকার হয়েছেন, নিজ মায়ের হাতে।

এই যেমন, ২০১৭ সালের ৪ নভেম্বর, রাজধানীর বাড্ডায় প্রেমিককে সাথে নিয়ে, শিশু সন্তান নূসরাত ও তার বাবা জামিলকে ঘুমন্ত অবস্থায় হত্যা করেন, মা আরজিনা। এর কিছুদিন পর মিরপুরের পাইকপাড়ায় দুই সন্তান হিমি ও হামিকে প্রথমে বিষ দিয়ে, পরে নির্মমভাবে হত্যা করেন, মা জেসমিন।

শুধু সন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে দুঃচিন্তায় বনশ্রীতে অরনী ও আলভী নামে দুই সন্তানকে নিজ হাতে শ্বাসরোধে হত্যা করেন মা। উত্তরায় এক বছরের শিশু নেহালকে হত্যার পর, মায়ের আত্মহত্যার চেষ্টা কিংবা সবশেষ গোড়ানে দুই সন্তান হত্যা করে নিজের শরীরেই আগুন দেন মা পপি।

কেন এমন নিষ্ঠুরতা? উত্তরে মনোবিজ্ঞানের এই অধ্যাপক বলছেন, যৌথ পরিবারের জায়গা নিয়েছে একক পরিবার। যাতে নিষঙ্গতা কুড়ে কুড়ে খায় গৃহিনীদের।

সমাজকর্মী নেহাল করিম বলেন, এমন একটি মানসিক চাপে ছিল যে কারণে সন্তানদেরকে মেরে প্রতিশোধ নেওয়া হয়েছে মনে করছে। সেটা স্বামী-শাশুরির ক্ষেত্রেও হতে পারে।

মানবাধিকারকর্মী নূর খানের মতে, সামাজিক মূল্যবোধের জায়গাটিও আগের চেয়ে এখন অনেকটাই দুর্বল অবস্থানে রয়েছে। যাতে বাড়ছে পরকীয়ার মতো ব্যাধি।

জীবন যতই ব্যস্ত হোক, পরিবারকে যথোপযুক্ত সময় দেয়া, পারস্পরিক বিশ্বাস ও আস্থা বাড়ানো এবং সামাজিক মূল্যবোধের চর্চা বাড়ালে, এই সমস্যা থেকে অনেকটাই মুক্ত থাকা সম্ভব বলে মনে করেন তারা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর