channel 24

সর্বশেষ

  • বরিশাল মেডিকেলে করোনা ইউনিটে থাকা একজনের মৃত্যু

  • দেশে করোনা মোকাবিলায় নেই পর্যাপ্ত অবকাঠামো সুবিধা: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

  • ইতালিতে প্রাণহানি ছাড়ালো ১০ হাজার, সংক্রমণ শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র

  • করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা মানছেন না অনেকেই

  • রাস্তায় পড়ে থাকা ফিনল্যান্ডের নাগরিককে হাসপাতালে নিলো পুলিশ

  • করোনায় শুধু মানুষই নয় বিপাকে পশু-পাখি

  • বিশ্বজুড়ে ৩০ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণহানি

  • পর্যটকদের স্বর্গরাজ্যগুলো আজ জনমানবহীন

  • ক্রমেই অসহায় হয়ে উঠছে বিশ্ব

  • স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা সরঞ্জাম দিলো স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস

  • আকিজ গ্রুপের হাসপাতাল তৈরিতে জনতার ক্ষোভ

  • জনগণকে সচেতন হবার আহ্বান জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ

  • শৈশব থেকেই বলিষ্ঠ নেতৃত্বের অধিকারী ছিলেন বঙ্গবন্ধু

  • স্পেনে আরও ৮৩২ জনের প্রাণহানি

  • কাল থেকে সংসদ টেলিভিশনে শ্রেণী ভিত্তিক পাঠদান চলবে

শীর্ষ সন্ত্রাসীদের নামে চাঁদাবাজি, কেউ নিয়ন্ত্রণ করছে ভারত থেকে

শীর্ষ সন্ত্রাসীদের নামে চাঁদাবাজি, কেউ নিয়ন্ত্রণ করছে ভারত থেকে

হ্যালো, শীর্ষ সন্ত্রাসী সুব্রত বাইন বলছি। এই পরিচয়ে কখনো গুলিতে আহত কারো চিকিৎসা, কখনো জেলখানার খরচের জন্য চাঁদা দাবি করা হয়। গত কয়েক বছরে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক অনেকেই ভারতীয় ফোন নম্বর থেকে হুমকি পেয়েছেন। আসলেই শীর্ষ সন্ত্রাসীরা ফোন দেয়, নাকি অন্য কেউএমন প্রশ্নের খানিকটা উত্তর মিলেছে সম্প্রতি। সুব্রত বাইনের নাম ব্যবহার করে চাঁদা দাবি করা একটি চক্রকে গ্রেপ্তার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

ফোন রিসিভ করলেই শোনা যায় - 'ঢাকা সেভেন স্টার গ্রুপের প্রধান পরিচালক আমি সুব্রত বাইন বলছি কলকাতা থেকে।' ১৮ বছর ধরে বাংলাদেশের তালিকায় পলাতক থাকা শীর্ষ সন্ত্রাসী সুব্রত বাইনের নামে এমন ফোন পেয়েছেন অনেকেই। কেউ জানিয়েছেন আইনশৃংখলা বাহিনীকে, কেউ আবার জানাননি।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. আনু মুহাম্মদ বলেন, আমার মনে সন্দেহ যে এই ধরণের যে গোষ্ঠী তাঁদের সাথে প্রশাসন ও ক্ষমতাবানদের একটি যোগসাজশ থাকে। সেই যোগসাজশটা যতদিন পর্যন্ত ধরা না হবে ততদিন পর্যন্ত এটা পুনঃউৎপাদন হবে।

গত বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাতে, রাজধানীর দারুস সালাম এলাকা থেকে বেলায়েত, জুয়েল ও কাইউম ওরফে মোস্তফা নামের তিনজনকে বেনাপোল যাবার পথে আটক করে গোয়েন্দা পুলিশ। জানা যায়, ভারতে থাকা সাদেক ফকিরের হয়ে কাজ করেন তারা। সীমান্ত এলাকায় বসে ভারতীয় সিম থেকে ফোন দেয়া হয় বিশিষ্টজনদের।

গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, কোন সম্পর্ক না থাকলেও শীর্ষ সন্ত্রাসীদের নামে ধারাবাহিকভাবে চাঁদাবাজি করছে কয়েকটি চক্র।

ডিবি পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম বলেন, শীর্ষ সন্ত্রাসী যারা দেশের বাইরে কাজ করছে তাঁরা কারই এখন আর বাংলাদেশের সাথে যোগাযোগ নেই। তারপরেও কিছু প্রতারক চক্র শীর্ষ সন্ত্রাসীদের নাম ভাঙ্গিয়ে অপরাধ করে থাকে বা চাঁদাবাজি চালিয়ে থাকে।

পলাতক সাদেকসহ আটককৃতরা মাদারীপুরের লুন্দি গ্রামের বাসিন্দা বলে জানায় ডিবি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর