channel 24

সর্বশেষ

  • নাটোর ও নেত্রকোণায় নদীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে প্রভাবশালীদের হস্তক্ষেপ

  • মসজিদের মিনারে মাইক ভেঙে হনুমানের ছবি সম্বলিত পতাকা উত্তোলন

  • গুড়িয়ে দেয়ার কিছুদিনেই ফের সচল শরীয়তপুরের ৮টি অবৈধ ইটভাটা

  • লতিফ সিদ্দিকীর দুর্নীতির মামলা হাইকোর্টে স্থগিত

  • রাসায়নিক বর্জ্যে দূষিত হচ্ছে হবিগঞ্জের করাঙ্গি নদী

  • ইভিএমে ফল গড়াপেটার অভিযোগ: সত্যতা মিললেও নির্বিকার নির্বাচন কমিশন

  • বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৩ গোল খেয়ে বিদায়ের দ্বারপ্রান্তে চেলসি

  • চসিক নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত কার্যক্রম বন্ধ

  • ধর্ম অবমাননায় 'নানীর বাণী ও 'দিয়া আরেফিন' বাজার থেকে প্রত্যাহারের আদেশ

  • টাকাসহ পিকে হালদারকে ‘কানাডা’ থেকে ফেরত আনা সম্ভব: বাংলাদেশ ব্যাংকের আইনজীবী

  • নাপোলির সাথে ১-১ গোলে ড্র বার্সেলোনার

  • আজও উত্তপ্ত দিল্লি, দুইদিনের সহিংসতায় নিহত ১৮

  • পি কে হালদার ও পরিবারের সদস্যদের পাসপোর্ট জব্দই থাকছে

  • রাজধানীতে মধ্যরাতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩

  • চীনে করোনায় আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা কমলেও ছড়িয়ে পড়ছে ইউরোপে

রোহিঙ্গাদের খাদ্য-নিরাপত্তাসহ ১১ খাতে এ বছর দরকার ৮৮ কোটি ডলার

রোহিঙ্গাদের খাদ্য-নিরাপত্তাসহ ১১ খাতে এ বছর দরকার ৮৮ কোটি ডলার

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহ্ঙ্গিাদের সার্বিক চাহিদা মেটাতে চতুর্থবারের মত জাতিসংঘ যৌথ পরিকল্পনা প্রকাশ করতে চলেছে চলতি মাসেই। এ বছর পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা ও কক্সবাজারের স্থানীয়দের খাদ্য নিরাপত্তা, আশ্রয়, পুষ্টি, পরিচ্ছন্নতাসহ ১১ খাতে ৮৭ কোটি ৭০ লাখ ডলার ধরা হয়েছে।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর, দেশে এ পর্যন্ত নিবন্ধিত রোহিঙ্গার সংখ্যা প্রায় ১৩ লাখ। জাতিসংঘের হিসাব বলছে, চলতি বছর রোহিঙ্গাদের সার্বিক চাহিদা মেটাতে দরকার হবে ৮৭ কোটি ৭০ লাখ ডলার।

যাতে এবারও সবচেয়ে বেশি ২৫ কোটি ৪৬ লাখ ডলার বরাদ্দ রাখা হয়েছে খাদ্য নিরাপত্তায়। পানি, পয়োঃনিষ্কাশন ও পরিচ্ছন্নতায় ১১ কোটি ৫৫ লাখ, আশ্রয়ণসহ সংশ্লিষ্ট প্রয়োজনে ১১ কোটি ১২ লাখ, ব্যবস্থাপনায় ৯ কোটি ৫৩ লাখ, নিরাপত্তায় ৮ কোটি ৮০ লাখ, স্বাস্থ্যখাতে ৮ কোটি ৫৬ লাখ, শিক্ষায় ৬ কোটি ৯০ লাখ, পুষ্টিতে ৩ কোটি ৯৯ লাখ, যোগাযোগ ব্যবস্থাপনায় ১ কোটি, সমন্বয়ে ৩ কোটি ৬০ লাখ এবং অন্যান্য খাতসহ নানান প্রয়োজনে ৩ কোটি ৯০ লাখ ডলার রাখা হয়েছে।

জাতিসংঘ বলছে, এতে শুধু রোহিঙ্গারাই নয় ক্ষতিগ্রস্ত স্থানীয় জনগোষ্ঠিও সুবিধা পাবেন। গত জানুয়ারি থেকে আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত খরচের এই খতিয়ান, আগামী সপ্তাহেই অনুমোদন দেবে জাতিসংঘ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর