channel 24

সর্বশেষ

  • দিল্লিতে সহিংসতার প্রতিবাদ জানিয়েছে ছাত্র অধিকার পরিষদ

  • অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের সময় র‍্যাবের হাতে লাঞ্ছিত ম্যাজিস্ট্রেট

  • ব্যাংক খালি হয়ে গেছে: হাইকোর্ট

  • ডাকঘর সঞ্চয়ে সুদহার আগের মতোই থাকছে: অর্থমন্ত্রী

  • দুদককে নিয়ে টিআইবির প্রতিবেদন সত্য নয়: দুদক সচিব

  • একে একে বেরিয়ে আসছে পাপিয়ার নানা পাপ

  • উন্নত চিকিৎসায় সম্মত হননি খালেদা জিয়া

  • দিল্লিতে গুজরাটের ছায়া; শিশু ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাসহ প্রাণ গেছে ২৩ জনের

  • কোনো ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ হলে গ্রাহকরা সব টাকা পাবেন

  • ঢাকা মেডিকেলে পরজীবী শিশু আলাদা করে সফল অস্ত্রোপচার

  • ভর্তি পরীক্ষা হবে ৪টি গুচ্ছ পদ্ধতিতে, থাকছে না ঢাকাসহ ৫টি বিশ্ববিদ্যালয়

  • কোনো নারী বিয়ে পড়াতে পারবেন না: হাইকোর্ট

  • কাপ্তাই হ্রদের পানি কমছে ধীরগতিতে, ফসল নিয়ে দু:চিন্তায় চাষীরা

  • দেশের পুঁজিবাজারে বড় পতন

  • অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কঠিন পরীক্ষায় নামছে বাংলাদেশ নারী দল

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা শুরু কাল

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণগণনা শুরু কাল

কাল ১০ জানুয়ারি, বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস। দিনটিকে আরও স্মরণীয় করে রাখতে কাল শুরু হচ্ছে, জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের ক্ষণগণনা। সারা দেশে বসানো ডিজিটাল ঘড়ির সময় জানাবে, আসছে ১৭ ই মার্চ জাতির পিতার একশোতম জন্মদিন। মুজিববর্ষে বছরব্যাপী থাকবে নানা আয়োজন।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য আর শস্য-শ্যামল ছায়ায় যে লাল-সবুজের ঝাণ্ডা ওড়ে, সে দেশেরই নাম বাংলাদেশ।

যে ভূখণ্ড বিন্দুমাত্র টলেনি হানাদারের হিংস্র থাবায়, বরং উড়িয়েছে বিজয়ের কেতন, বিশ্ব থেকে মহাবিশ্বে। যার স্বপ্নদ্রোষ্টা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

আগামী ১০ শে জানুয়ারি সেই মহানায়কের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের ক্ষণগণনার মাধ্যমে শুরু হচ্ছে নতুন ইতিহাস। এই আয়োজনের উদ্বোধন করবেন, তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উন্মোচন করবেন মুজিববর্ষের লোগো।

মুক্তিযুদ্ধ শুরুর মুহূর্তে গ্রেপ্তার হয়ে, ২৮৮ দিন পাকিস্তানের কারাগারের বন্দিজীবন শেষে লন্ডন-দিল্লি হয়ে ৭২'র ১০ জানুয়ারি সদ্য স্বাধীন বাংলার মাটিতে পা রেখেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, সিক্ত হন লাখ লাখ মানুষের ভালোবাসায়। পূর্ণতা পায় দীর্ঘ ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের অর্জন। আনন্দের সেই সময়কে নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে প্রতীকী আয়োজনসহ বিমান থেকে আলোক প্রক্ষেপণ ও তোপধ্বনি থাকবে ক্ষণগণনার অনুষ্ঠানে।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, আমাদের ক্ষণগণনা শুরু হবে ১০ই জানুয়ারি। ঐদিন বঙ্গবন্ধু কিভাবে আসলেন তাঁর সবকিছু হয়তো দেওয়া যাবে না কিন্তু কিভাবে অবতরণ করলেন, কিভাবে ট্রাকে উঠলেন, কিভাবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে গেলেন সেগুলো দেখানো হবে।

দেশজুড়ে সব সিটি করপোরেশনসহ ৫৩ জেলা আর ২ উপজেলায় বসানো ডিজিটাল ঘড়িতে হবে ক্ষণগণনা। এছাড়া এলইডি স্ক্রিনে দেখানো হবে বঙ্গবন্ধুর জীবনী ও ইতিহাস সম্পর্কিত প্রামাণ্যচিত্র।  

ড. কামাল আবুল নাসের চৌধুরী বলেন, আমরা শুধু উৎসবের মধ্যে এটাকে সীমাবদ্ধ রাখবো না। আমরা কিছু কাজ করতে চাই তার মাধ্যমে, কিছু সেবা, কিছু উন্নয়নের মাধ্যমে, কিছু ইতিহাস চেতনার, কিছু বাঙ্গালীয়ানাকে আরও তুলে ধরার এবং সেই সাথে বঙ্গবন্ধুর যে দর্শন, যে মানবিকতা, মানুষের প্রতি যে ভালবাসা এই পুরো বিষয়গুলোকে আমরা তুলে ধরতে চাই।

সাধারণ মানুষ বলছে, মুজিবশতবার্ষিকী শুরু হচ্ছে এটা আমাদের বাঙ্গালীর জন্য গর্ব। আর এই ক্ষণগণনার ঘড়ি দেখে দেশের ইতিহাস নিয়ে মানুষের জানার আগ্রহ অনেক বাড়বে বলেও আশা করা যায়।

আগামী ১৭-ই মার্চ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরু হবে, মুজিব বর্ষ উদযাপনের আনুষ্ঠানিক যাত্রা। যার পর্দা নামবে ২০২১ সালের ১৭-ই মার্চ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর