channel 24

সর্বশেষ

  • ক্রমেই অসহায় হয়ে উঠছে বিশ্ব

  • স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষা সরঞ্জাম দিলো স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস

  • আকিজ গ্রুপের হাসপাতাল তৈরিতে জনতার ক্ষোভ

  • জনগণকে সচেতন হবার আহ্বান জানিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ

  • শৈশব থেকেই বলিষ্ঠ নেতৃত্বের অধিকারী ছিলেন বঙ্গবন্ধু

  • স্পেনে আরও ৮৩২ জনের প্রাণহানি

  • কাল থেকে সংসদ টেলিভিশনে শ্রেণী ভিত্তিক পাঠদান চলবে

  • ৭ দিন নিষেধাজ্ঞা বাড়লো বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলের

  • রাঙ্গামাটিতে জীবাণুনাশক ছিটিয়েছে সেনাবাহিনী

  • ফাঁকা ঢাকা; মানুষের সচেতনতায় কাজ করছে সেনা সদস্যরা

  • শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে স্বাবলম্বী লালমনিরহাটের হাফিজুর

  • 'অর্থনীতি পুনরুদ্ধার প্যাকেজ' বিলে সই করেছেন ট্রাম্প

  • মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নাগরিকের সঙ্গে সম্মানজনক আচরণ করার নির্দেশ

  • বন্ধ হচ্ছে কারখানা; চাকরি হারানোর ঝুঁকিতে ২০ লাখ শ্রমিক

  • চট্টগ্রামে করোনা প্রতিরোধে সেনাবাহিনী ও জেলা প্রশাসনের অভিযান

যানজট আর ঘিঞ্জি পরিবেশে বসবাস ঢাকার লালবাগ এলাকাবাসীর

যানজট আর ঘিঞ্জি পরিবেশে বসবাস ঢাকার লালবাগ এলাকাবাসীর

লালবাগ এলাকা যার অলিগলিতে মোঘল ঐতিহ্যের ছাপ, শতবছরের পুরোনো নির্দশন। যা পর্যটনে সমৃদ্ধ হওয়ার সুযোগ থাকলেও হয়ে ওঠেনি। উল্টো সরু রাস্তার যানজট আর ঘিঞ্জি পরিবেশে পর্যটকের নাগালের বাইরেই থেকে যাচ্ছে এসব স্থাপনা। অভিযোগ রয়েছে, মশার উৎপাত, পার্কিং সুবিধাসহ পর্যাপ্ত ফুটপাত নিয়েও।

ইতিহাস ঐতিহ্য সংস্কৃতির মিশেলে চারশো বছরেরও বেশি পুরোনো নগরী ঢাকা।

পুরান ঢাকার লালবাগ কেল্লা, মোঘল আমলের এই পুরাকীর্তির পরিচিতি দেশ ছাড়িয়ে বিশ্বজুড়ে। যার প্রতিটি ইট পাথরে রয়েছে প্রত্নতাত্ত্বিক নানা নিদর্শন।

ঐশ্বর্যের ছোঁয়াতেও বদলায়নি নগর ব্যবস্থাপনা। কর্তৃপক্ষের বিজ্ঞপ্তিতেও সিটি নির্বাচনের পোস্টারসহ নানা বিজ্ঞাপনে ছেয়েছে দেয়াল। রঙ হারাচ্ছে পুরাকীর্তি। রয়েছে ময়লা আবর্জনার স্তূপও।

লালবাগ কেল্লার দর্শনার্থীরা বলছেন, পার্কিং এর জন্য কোন জায়গা নেই এখানে, তাই গাড়ি দাড়ালেই রাস্তায় জ্যাম পরে যায়।

লালবাগ কেল্লা থেকে সামান্য দূরত্বে, মোঘল আমলের আরেক স্থাপনা হোসেনি দালান। প্রায় সাড়ে তিনশো বছরের পুরোনো এই স্থাপনার সৌন্দর্য এখন নীল রঙের টাইলসে। বুড়িগঙ্গার তীর ঘেষা অনন্য আরেক স্থাপত্য শৈলি আহসান মঞ্জিল। একসময়ের ঢাকার নবাবদের আবাসস্থল ও জমিদারির সদর কাচারি। পুরান ঢাকায় এমন অসংখ্য প্রত্নতাত্ত্বিক নির্দশন এখনও টিকে আছে ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে।

শতবছরের পুরোনো বিভিন্ন ঐতিহাসিক নির্দশন থাকা সত্ত্বেও পর্যটনে পিছিয়ে রাজধান ঢাকার বিভিন্ন  স্থাপনা। প্রয়োজনীয় সংস্কার আর প্রচারণার মাধ্যমে এই নগরীতে পর্যটন শিল্প বিকাশের অপার  সম্ভাবনা দেখছে পর্যটন সংশ্লিষ্টরা।

ঢাকা দক্ষিণ সিটির ২৫ ও ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে এমন সব স্থাপনার ঐতিহ্য ছাপিয়ে, নিত্যদিনের সঙ্গী সরু রাস্তায় যানজট আর ঘিঞ্জি পরিবেশ। তাই পর্যটন খাতের অর্থনীতি সমৃদ্ধ হওয়ার সুযোগ থেকেও যেনো নেই।

দর্শনার্থীরা বলছেন, রাস্তাঘাটের যে অবস্থা, চিপা গলি তাঁর মধ্যে আবার নোংরা আবর্জনা পরা রয়েছে, যেখান থেকে অনেক দূর্গন্ধ বের হয়। আমার মনে হই সেই জায়গাগুলোর দিকে আমাদের একটু নজর দেওয়া উচিত। এছাড়া ঐতিহাসিক নির্দশনগুলো কাছাকাছি হওয়া সত্ত্বেও রাস্তার যাঞ্জটের কারণে অনেক সময় নষ্ট হয়। এগুলো যদি পদক্ষেপ নেওয়া হয় তবে আমাদের বিদেশি পর্যটক আরও বাড়বে।

এর পাশেই, আজিমপুরে ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের নিত্যযুদ্ধ মশার বিরুদ্ধে। নেই পার্কিং সুবিধা কিংবা পর্যাপ্ত ফুটপাত। আসছে সিটি নির্বাচনে নতুন করে সমাধান কি মিলবে?

এলাকাবাসী বলছে, আমাদের মূল দাবি কবরস্থানের রাস্তাটা বড় করার। স্থানীয়দের প্রত্যাশা, দায়িত্বে যে-ই আসুক নজর দেবেন এলাকার উন্নয়নে। 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর