channel 24

সর্বশেষ

  • নারায়ণগঞ্জ জেলা সম্পূর্ণরূপে লকডাউন

  • বিশ্বে প্রাণহানি ৭৮ হাজার ছাড়ালো, জাপানে জরুরি অবস্থা জারি

  • অভিনব কায়দায় মাস্ক চুরি করলো যুক্তরাষ্ট্র!

  • করোনা আতঙ্কের মাঝে সুখবর দিলেন সাকিব ও মাহমুদউল্লাহ

  • ২২০টি করোনা শনাক্তের কিট দিলেন সাবেক এমপি রুহী

  • করোনায় আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি

  • জামালপুরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দুটি বিশেষ বাজার চালু

  • ঢাকার বাইরে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত নারায়ণগঞ্জবাসী, টাঙ্গাইল লকডাউন

  • করোনা উপসর্গ নিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানে ৪ জনের মৃত্যু

  • চিকিৎসা না দিয়ে ফিরিয়ে দেয়ায় রাস্তায় নবজাতক প্রসব

  • কর্মহীন হয়ে পড়া খেটে খাওয়া মানুষদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন অনেকেই

  • বান্দরবানে নিজস্ব উদ্যোগে সুরক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তুলেছে ম্রো জনগোষ্ঠি

  • বঙ্গবন্ধুর খুনি আব্দুল মাজেদ গ্রেপ্তারের পর কারাগারে

  • লকডাউনের মাঝেই জার্মানিতে বায়ার্ন মিউনিখের অনুশীলন শুরু

  • মারা গেলেন ফুটবল কোচ রাদোমির অ্যান্টিচ

দেশের প্রথম পরমাণু প্রকল্পে কাজ পেয়ে উচ্ছ্বাস নবাগত কর্মীদের

দেশের প্রথম পরমাণু প্রকল্পে কাজ পেয়ে উচ্ছ্বাস নবাগত কর্মীদের

পরমাণু বিদ্যুৎ চুল্লি নির্মাণ কাজ তদারকি এবং এরপর পরিচালনা। দরকার দক্ষ পরমাণু প্রকৌশলী, বিজ্ঞানী ও ব্যবস্থাপক। ২০২৫ সালের মধ্যে সব মিলিয়ে দক্ষ জনবল লাগবে প্রায় ৩ হাজার। বিজ্ঞান সচিব বলছেন, প্রকল্প তদারকি করতে মূলত নির্ভর করতে হচ্ছে বিদেশি বিশেষজ্ঞদের ওপর। বিজ্ঞানমন্ত্রী জানান, একইসাথে চলছে প্রকল্প বাস্তবায়ন এবং জনবল প্রশিক্ষণের কাজ।

আগামী ৪ বছরে রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিচালনায় প্রযুক্তিগত জ্ঞানসম্পন্ন দক্ষ জনবল প্রয়োজন প্রায় ২ হাজার। দেশের প্রথম পরমাণু প্রকল্পে কাজ পেয়ে উচ্ছ্বাস নবাগত কর্মীদের। এদের অনেকেই প্রকৌশল বিদ্যা শেষে যোগ দিয়েছেন প্রযুক্তিগতভাবে সবচেয়ে স্পর্শকাতর কর্মযজ্ঞে।

এনপিসিবিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মো. শৌকত আকবর বলেন, রাশিয়ার সাথে চুক্তির আওতায় তৈরি হচ্ছে ভবিষ্যতের পরমাণু প্রকৌশলী আর প্রযুক্তিবিদ।

এনপিসিবিএলের বিজ্ঞান সচিব ও চেয়ারম্যান ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, কোনো পরমাণু প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রয়োজন তিন ধাপের জনবল। এক নীতি নির্ধারক। দুইয়ে প্রকল্প নির্মাণ কাজের তদারকির জন্য পরমাণু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিগত বিশেষজ্ঞ। আর প্রকল্প বাস্তবায়ন এবং পরিচালনায় এক ঝাঁক পরমাণু প্রকৌশলী ও অপারেটর। এই মুহূর্তের সংকট মূলত বিশেষজ্ঞের ঘাটতি।

আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থা আইএইএ-র সাধারণ নীতিমালায় পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের আগেই দক্ষ জনবল তৈরির কথা বলা হয়েছে। যদিও বর্তমানে বাংলাদেশসহ কয়েকটি সদস্য রাষ্ট্র হাঁটছে ভিন্নপথে।

বিজ্ঞানমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, ছোট আকারে হলেও দেশের পরমাণবিক কর্মসূচীর ঐতিহ্য বেশ পুরনো।

বিদ্যুৎ উৎপাদনের মহাপরিকল্পনা অনুযায়ী ২০৪০ সালের মধ্যে অন্তত ছয়টি পরমাণু বিদ্যুৎ চুল্লি নির্মাণ করবে বাংলাদেশ। এজন্য পরমাণু বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিগত দক্ষ জনবল লাগবে প্রায় ১০ হাজার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর