channel 24

সর্বশেষ

  • ছায়াঢাকা সবুজ সীমান্ত গ্রাম মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আম্রকানন

  • ভিজিএফের চাল বিতরণে জেলেদের সাথে অনিয়ম- দুর্নীতি

  • স্থবির ঢাকায় শর্তসাপেক্ষে খাবারের দোকান খোলা রাখার সিদ্ধান্ত

  • নো কিট, নো টেস্ট, নো পেশেন্ট, নো করোনা: রিজভী

  • কোচ হয়ে বার্সেলোনায় ফিরতে চান জাভি

  • জ্বর ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে শেরপুর, কুষ্টিয়া ও বিরামপুরে ৩ জনের মৃত্যু

  • করোনাভাইরাস নিয়ে গুজব: ২০টি ফেসবুক আইডি, পেজ বন্ধ; শনাক্ত ৫০

  • বিনামূল্যে পিপিই সরবরাহ করবে ইউএস-বাংলা

  • দেশে নতুন করে করোনা শনাক্ত এক, সুস্থ ৪ জন

  • গত ২৪ ঘণ্টায় ২ হাজার ৭৯০ জন নতুন কোয়ারেন্টিনে: আইইডিসিআর

  • নিজেরাই লকডাউন পালন করছে রাঙ্গামাটির কয়েক এলাকার মানুষ

  • সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার নির্দেশনা গ্রামে মানছেন কজন?

  • করোনায় মারা গেলেন জাপানিজ কমেডিয়ান 'কাইশ্যা'

  • অর্থনীতির স্বাভাবিক অবস্থায় আর ফিরবে না বিশ্ব

  • করোনার প্রভাবে প্রতিদিন দুগ্ধ খামারের লোকসান ৫৭ কোটি টাকা

রূপপুর থেকে তেজস্ক্রিয় পদার্থ ছড়ানোর কোনো আশঙ্কা নেই: বিশেষজ্ঞরা

রূপপুর থেকে তেজস্ক্রিয় পদার্থ ছড়ানোর কোনো আশঙ্কা নেই: বিশেষজ্ঞরা

চেরনোবিল থেকে ফুকুশিমা। ব্যবস্থাপনার সংকটে পরমাণু চুল্লির এসব দুর্ঘটনার ভয়াবহতায় শিউরে ওঠে বিশ্ববাসী। রূপপুরে জোরকদমে চলছে দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নির্মাণ কাজ। বিজ্ঞানমন্ত্রীসহ পরমাণু শক্তি কমিশনের বিজ্ঞানীরা বলছেন, রূপপুর থেকে তেজস্ক্রিয় পদার্থ পরিবেশে ছড়িয়ে পড়ার কোনো আশঙ্কা নেই। একজন বিশেষজ্ঞ মনে করেন, সবদিক ঠিক রেখে চুল্লির নির্মাণ শেষ করাই বড়ো চ্যালেঞ্জ।

৮০'র দশকের মাঝামাঝিতে ঠিক কী কারণে বিস্ফোরণ ঘটে ইউক্রেনের চেরনবিল পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রে তা আজও অজানা। অন্যদিকে সুনামির ধাক্কা সামলাতে না পারায় ২০১১তে ভেসে যায় জাপানের ফুকুশিমা পারমাণবিক বিদ্যুৎ চুল্লি।

জার্মানি নতুন করে চুল্লি নির্মাণ না করার ঘোষণা দিলেও চীন-ভারত-মধ্যপ্রাচ্যে চলছে নতুন নতুন কেন্দ্র নির্মাণের হিড়িক। বিশ্বের ৩০টি দেশে এই মুহূর্তে চালু আছে সাড়ে ৪শ পরমাণু বিদ্যুৎ চুল্লি। একই পথে হাঁটছে জনবহুল বাংলাদেশও।

পাবনার ঈশ্বরদীতে পদ্মা পাড়ে চলছে রূপপুর-১ ও রূপপুর-২ পরমাণু বিদ্যুৎ চুল্লির নির্মাণ কাজ। অনেকের ভাবনা, চুল্লি ঠাণ্ডা রাখতে যে পানির দরকার, তা কি প্রায় শতবর্ষ ধরে জোগান দিতে পারবে পদ্মা?

রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ড. মো. শৌকত আকবর বলেন, আমরা যে কোলিং টাওয়ার দিচ্ছি সেই কোলিং  টাওয়ারের এইটা ক্লোজ সার্কিল অর্থাৎ এটা রিসাইক্লিং হবে। এই রিসাইক্লিং হয়ে শুধু মেইকআপ অর্ডারে যেইটুকু লাগবে সেই পানির পরিমাণ আমাদের এই পদ্ভা নদীর শুকনা মৌসুমের যে অবস্থায় থাকে তার সহস্র ভাগের এক ভাগও লাগবে কিনা সন্দেহ আছে।

বাংলাদেশের মতো দেশে যেকোন ধরনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সবসময় প্রশ্নবিদ্ধ। রূপপুরে যেসব তেজস্ক্রিয় বর্জ্য তৈরি হবে, তার মধ্যে সবচেয়ে স্পর্শকাতর অংশ- স্পেন্ট ফুয়েল ফিরিয়ে নেবে রাশিয়া। চুল্লি নির্মাণ, পরিচালনা আর প্রকৌশলগত ব্যবস্থাপনা কতোটুকু সামাল দিতে পারবে বাংলাদেশ?

আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থার (নিউক্লিয়ার এনার্জি ডিভিশন) সাবেক কর্মকর্তা ড. শহীদ হোসেন বলেন, যদি কোন কারণে বিস্ফোরন হয়ও ফুকোশিমা বা চেরনোবিলের মতো তাহলেও সেটা আটকে রাখা যাবে মাল্টিরিয়াল কনটেন্ট ম্যাটেরিয়ালসে। সুতরা এখানে সে ধরনের কোন বিস্ফোরণ হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বলেন, 'এখানে টেকনোলজিটা এমন যে কেউ চাইলেই ক্ষতি করতে পারবে না। কিন্তু কনফিডেন্স তৈরি করার জন্য আমরা মনে করি কয়েক বছর যদি লাগেও লাগুক, কারণ কাজের মূল মানুষ গুলো রাশিয়া থেকে আসবে তাদের পাশাপাশি আমাদের দেশের লোকজনও থাকবে। আমাদের দেশের লোকজন কাজটা তদারকি করবে আস্তে আস্তে যখন তারা কাজটা পুরোপুরি নিজেদের আয়ত্বে নিয়ে আসবে তখন রাশিয়ার লোকজন চলে যাবে আর আমাদের দেশের লোকজন পুরোপুরি দায়িত্ব বুঝে নিবে।

রূপপুরের দুটি চুল্লি থেকে বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে ২ হাজার ৪শ মেগাওয়াট।

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর