channel 24

সর্বশেষ

  • জাতিসংঘের পাবলিক সার্ভিস অ্যাওয়ার্ড পেলো ভূমি মন্ত্রণালয়

  • পুলিশ-চিকিৎসকসহ দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল

  • করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা যাবে ১ মিনিটেই!

  • করোনা থেকে বাঁচতে প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধই উত্তম: প্রধানমন্ত্রী

  • সড়কে যানবাহনের চাপ বাড়লেও রেল ও নৌপথে যাত্রী কম

  • বরিশালে ইমামকে জুতার মালা পরিয়ে নির্যাতনের ঘটনায় মামলা

  • করোনায় অনিশ্চিত এ বছরের হজযাত্রা

  • করোনায় মারা গেছেন রানা প্লাজার মালিক আব্দুল খালেক

  • যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ হত্যা: ৪ পুলিশের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ গঠন

  • অর্থ সহায়তায় ও চাল বিক্রিতে অনিয়ম: এ পর্যন্ত ৮৭ ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্য বরখাস্ত

  • করোনায় প্রাণ গেল আরও এক পুলিশ সদস্যের

  • এএসপির বিরুদ্ধে নির্যাতন আর যৌতুকের অভিযোগ স্ত্রীর

  • পায়ের পেশির ইনজুরিতে লিওনেল মেসি

  • আম্পানে পটুয়াখালীতে ক্ষতিগ্রস্থ ৬ হাজার মাছের ঘের

  • সব বাধা পেরিয়ে চিকিৎসক হতে চায় হতদরিদ্র পরিবারের ছেলে মাসুদ

২টি উড়োজাহাজ আনতে যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছে ৪৫ জনের বিশাল বহর

২টি উড়োজাহাজ আনতে যুক্তরাষ্ট্রে যাচ্ছে ৪৫ জনের বিশাল বহর

বিমান বাংলাদেশের বহরে যুক্ত হতে যাওয়া দুটি উড়োজাহাজ আনতে যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে যাচ্ছে ৪৫ জনের বিশাল বহর। এ বহরে বিমান প্রতিমন্ত্রী না থাকলেও অতিথি হিসেবে আছেন তার পিএস ও জনসংযোগ কর্মকর্তাসহ অতিরিক্ত ৯ জন। যাদের সফরের পুরো খরচ বহন করবে মন্ত্রণালয়। বিশেষজ্ঞরা একে আনন্দ ভ্রমণের সাথে তুলনা করেছেন। তবে বিমানের এমডির দাবি, অপ্রয়োজনীয় কাউকে নেয়া হচ্ছে না।

সোনারতরী ও অচিনপাখি। বাংলাদেশ বিমানের বহরে যুক্ত হতে যাচ্ছে এ দুটি উড়োজাহাজ। মার্কিন উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িংয়ের ৭৮৭-৯ মডেলের উড়োজাহাজ দুটি আনতে আগামী সপ্তাহের শেষের দিকে যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে যাচ্ছেন ৪৫ জনের একটি দল। বিশাল এ বহরে বিমান মন্ত্রণালয়ের বাইরে অতিথি হিসেবে যাচ্ছেন ৯জন। যাদের মধ্যে আছেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের দুজন অতিরিক্ত সচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন পরিচালক, আইনমন্ত্রণালয়ের উপসচিব, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক। তবে এ বিশাল বহরে বিমান প্রতিমন্ত্রী না গেলেও যাচ্ছেন তার পিএস ও পিআরও। যার খরচ বহন করছে মন্ত্রণালয়। রাষ্ট্রের টাকা খরচ করে প্রয়োজনের বেশি মানুষের আমেরিকা যাত্রা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

এভিয়েশন বিশেষজ্ঞ ও বিমানের সাবেক পরিচালক নাফীজ ইমতিয়াউদ্দিন বলেন, 'মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে স্পিরিটে বিমানকে একটুকু ক্যাপাসিটি এনে দিচ্ছেন এটা সেই স্পিরিটের সাথে সামঞ্জস্য না। বলা হচ্ছে যে গেস্ট, গেস্ট দাওয়াত করলে আপনি আপনার বাড়িতে যে কাউকে দাওয়াত করতে পারেন, আমাদের কোন প্রশ্ন নেই। কিস্তু এটার খরচতো ওনারা বহন করছেন না করছেন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।'

এভিয়েশন বিশেষজ্ঞ কাজী ওয়াহিদুল আলম বলেন, 'যেখানে বিমান বছরের পর বছর আর্থিকভাবে লসের সম্মুখীন হচ্ছে, এবং বিমান ঘুরে দাড়ানোর  চেষ্টা করছে সেই সময় বিমানের এয়ারক্রাফট ডেলিভারি নিতে যদি এতগেুলো লোক যায় সেটা আমি মনে করি একটা রাষ্ট্রীয় অপচয়। এবং এটার থেকে বিরত থাকাই শ্রেয় হবে।'

তবে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের এমডি ও সিইওর দাবি, অপ্রয়োজনীয় কাউকে তারা নিয়ে যাচ্ছেন না। তিনি বলেন, গেস্ট হিসেবে যারা যাচ্ছেন সেটা মন্ত্রনালয় বলতে পারবে। এটি আমার তো দেওয়ার এখতিয়ার নেই, এগুলো খুব একটা মাইনর ইস্যু। তবে সরকারিভাবে যারা যাচ্ছেন তারা আমাদের জন্য বোঝা নয়। কারণ সিভিল এভিয়েশন মন্ত্রলারয় থেকে কেউ যান তারা তাদের খাত থেকেই তাদের খরচ বহন করবে।

298 আসনের 787-9 মডেলের উড়ো্জাহাজ প্রতিটির মূল্য 30 কোটি ডলার তবে একটির দামে  বিমান কিনেছে দুটি ড্রিমলাইনার  ১৭ ডিসেম্বর ৪৫ জনের এই টিম যুক্তরাষ্ট্রের সিয়াটলে যাওয়ার কথা রয়েছে । ফিরবেন ২৪ ডিসেম্বর।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর