channel 24

সর্বশেষ

  • জন্মদিনে চেতনা নাশক ওষুধ খাইয়ে কিশোরিকে গণধর্ষণের ঘটনায় আটক ৪

  • পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিতীয় টি টোয়েন্টিতে টস জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

  • নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার অজুহাত খুঁজছে বিএনপি: কাদের

  • এবার সাইকেল চালিয়ে প্রচারণায় আতিক

  • বিএসএফের গুলিতে নিহত দুই বাংলাদেশির মরদেহ ফেরত আনতে কাজ করেছে বিজিবি

  • রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫ ডাকাত আটক

  • নির্বাচিত হলে কোনো বস্তি উচ্ছেদ করবো না: তাবিথ

  • শেষ সপ্তাহের প্রচার-প্রচারণায় তুঙ্গে ঢাকার উত্তর

  • ইভিএমে কারচুপির যথেষ্ট সুযোগ আছে: সুজন সম্পাদক

  • বরগুনায় বাসচাপায় মা-ছেলেসহ নিহত ৩

  • ফরিদপুর-ভাঙ্গা রুটে ট্রেনের উদ্বোধন রোববার

  • অবশেষে উদ্বোধন হচ্ছে চট্টগ্রামের শেখ রাসেল পানি শোধনাগার

  • গ্রামীণ নারী উদ্যোক্তাদের সম্পৃক্ত করতে দরকার সমন্বিত ব্যবস্থা

  • নির্বাচনি ইশতেহারে ওয়ার্ডভিত্তিক পরিকল্পনা চান নগরবিদরা

  • বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ: ফাইনালে আজ মুখোমুখি ফিলিস্তিন-বুরুন্ডি

সৌদিতে নারী শ্রমিক নির্যাতন: ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়ে যাচ্ছে অভিযুক্তরা

সৌদিতে নারী শ্রমিক নির্যাতন: ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়ে যাচ্ছে অভিযুক্তরা

সৌদি থেকে নির্যাতিত নারী শ্রমিকরা দ্রুত দেশে ফিরতে চাওয়ায় ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়ে যাচ্ছে অভিযুক্তরা। এ পর্যন্ত বিচারের মুখোমুখি করা গেছে মাত্র দুই সৌদি নাগরিককে। দেশটির যে সব এলাকায় নির্যাতন বেশি সেটির তালিকা তৈরির পরামর্শ দিয়েছেন অভিবাসন বিশেষজ্ঞরা।

কয়েক বছর ধরে নারী শ্রমিক বিদেশে শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়ে, নিয়মিতভাবেই দেশে ফিরে আসছেন। সমালোচনা আছে, এনিয়ে সরকারের তেমন উদ্যোগ নেই। তবে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তাদের দাবি, নির্যাতন কিংবা লাঞ্ছনার অভিযোগ করেই বেশিরভাগ নারী দেশে ফিরতে চান। ফলে শুরু করা যায় না অপরাধীর বিচার প্রক্রিয়া। যদিও এরই মধ্যে বাংলাদেশি দূতাবাসে অভিযোগের পর দুই সৌদি নাগরিককে আইনের আওতায় এনেছে দেশটির সরকার।

প্রবাসি কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব আহমেদ মনিরুস সালেহিন বলেন, এই অপরাধীদের আমরা আইনের আওতায় আনতে চাই। যারাই অপরাধ করবে তাদেরকে আমরা ঐদেশের আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করতে চাই। কিন্তু এর জন্যে আমাদের অভিযোগকারী মা-বোন যা আছেন তাদেরকে একটু কষ্ট সহ্য করে আমাদের সহযোগিতা করতে হবে।

নারী শ্রমিকদের অভিযোগ অনুযায়ী, যেসব এলাকায় নির্যাতন বেশি হয়, তার তালিকা তৈরির পরামর্শ অভিবাসন বিশেষজ্ঞদের।

অভিবাসন ও শণার্থী বিশেষজ্ঞ আসিফ মুনির বলেন, এখন যখন দ্বীপাক্ষিক আলোচনা হচ্ছে, এই সরজমিনে দেখার জায়গাটা সরকার তৈরি করতে পারে কিনা। একদম তালিকা করে যে, কোন এলাকায় কোন বাসায় বাংলাদেশের কোন মেয়ে কাজ করছে। এবং গিয়ে তার সাথে আলাদা ভাবে কথা বলার সুযোগ তৈরি করা।

তবে সরকার বলছে, সেসব রিক্রটিং এজেন্সি বয়স বাড়িয়ে নারী শ্রমিক বিদেশে পাঠাচ্ছে, তাদের কালো তালিকাভুক্ত করা হচ্ছে।  

এ বিষয়ে প্রবাসি কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব আহমেদ মনিরুস সালেহিন বলেন, যেকোন কর্মী যখন বিদেশ যায়, তার পিছনে একজন রিক্রুটিং এজেন্ট থাকেন। আমারা তাকে চিহ্নিত করতে চাচ্ছি, যা এতে তার কোন যোগ সাজোস আছে কিনা।

সচিব আরও জানান, শিগগিরই এ বিষয়ে আরো বেশ কিছু ব্যবস্থা নেয়া হবে, এতে কমে আসবে নারী শ্রমিকদের অভিযোগ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর