channel 24

সর্বশেষ

  • ডোপিংয়ে পৃষ্ঠপোষকতা: ৪ বছর আন্তর্জাতিক ক্রীড়ায় নিষিদ্ধ রাশিয়া...

  • অংশ নিতে পারবে না টোকিও অলিম্পিক ও কাতার বিশ্বকাপে

  • এসএ গেমস ক্রিকেটে শ্রীলঙ্কাকে ৭ উইকেটে হারিয়ে স্বর্ণ বাংলাদেশের

  • মানহীন সান্ধ্যকালীন কোর্সের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে...

  • শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে রাষ্ট্রপতি

  • অর্থনৈতিক অঞ্চলে নারী উদ্যোক্তারা বিশেষ সুবিধা পাবেন: প্রধানমন্ত্রী

  • নেতৃত্বের দুর্বলতায় বিএনপি অস্তিত্ব সংকটে: ওবায়দুল কাদের

  • রাজনীতিতে আওয়ামী লীগের জায়গা নেই: মির্জা ফখরুল

  • ঝিনাইদহের মহেশপুর সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে প্রবেশের সময়...

  • এক ভারতীয় নাগরিক ও ১২ বাংলাদেশি আটক

  • এসএ গেমস: ক্রিকেট: ফাইনালে শ্রীলঙ্কার দেয়া ১২৩ রানের টার্গেটে...

  • ব্যাট করছে বাংলাদেশ; স্কোর: শ্রীলঙ্কা ১২২ (হাসান মাহমুদ ৩/২০)

  • এসএ গেমস আর্চারিতে দশ স্বর্ণের সবকটি জিতলো বাংলাদেশ

  • একুশে পদকপ্রাপ্ত পদার্থবিজ্ঞানী অধ্যাপক অজয় রায় মারা গেছেন...

  • সর্বস্তরের শ্রদ্ধা জানাতে কাল সকালে নেয়া হবে শহীদ মিনারে...

  • মরদেহ দান করা হয়েছে বারডেম হাসপাতালকে

চুক্তির ২২ বছরেও শান্তি ফেরেনি পাহাড়ে

চুক্তির ২২ বছরেও শান্তি ফেরেনি পাহাড়ে

শান্তি চুক্তির ২২ বছর পরও শান্তি ফেরেনি পাহাড়ে, কারণ চুক্তির মূল শর্তটি ভঙ্গ করে সব অস্ত্র জমা দেয়নি জেএসএস। দিন যত গড়াচ্ছে এর ব্যবহার ততই বাড়ছে।

এই অস্ত্রের যোগানদাতা কারা, কিভাবে হচ্ছে সরবরাহ কিংবা কাদের আশ্রয়ে চলছে এই তাণ্ডব?

এই সব ঘটনায় অভিযোগের তীর যাদের দিকে তাদের সাথে কথা বলতে চাই।  আমাদের যাত্রার উদ্দেশ্য জেএসএস সামরীক শাখার সদস্যদের সাথে সাক্ষাত, দিনের সূর্য্য আলো ছাপিয়ে আমাদের অপেক্ষা  রাতের ঘুটঘুটে অন্ধকারের ।  

দিনের আলো নিভে যাওয়ার সাথে সাথে মুঠোফোনে তাদের দেওয়া লোকেশনে চ্যানেল টুয়েন্টিফোর।

এক পাহাড় থেকে আরেক পাহাড় , প্রায় ছেড়েই দিয়েছিলাম তাদের সাথে সাক্ষাতের আশা । হঠাৎ পাওয়া যায় সিগনাল, তখন গভীর রাত ঘুটঘুটে অন্ধকার চারপাশ, অনেক প্রতিক্ষার অবসান ঘটল অবশেষে দেখা হল ভারি অস্ত্রধারী জেএসএস সামরিক শাখার সদস্যদের সাথে।

অনেক অনুরোধের পর ক্যামেরার সামনে মুখ ঢেকে কথা বলতে রাজি হন জেএসএসের সামরীক শাখার সদস্যরা।

সদস্যরা বলেন, নাগাল্যান্ড, ত্রিপুরা বা অরুঞ্চল থেকে বেশি আশে অস্ত্র। পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে যে চাঁদাবাজি হয় সেখান থেকেই আসে এই অস্ত্র কিনার টাকা। এখানে আমাদের দল ছাড়া কোন রাজনৈতিক দল করা যাবে না। আমরা বাংলাদেশের সংবিধান ও আইন কিছুই মানিনা, জেএসএস এখানে থাকবে। আমরা কোন জাতি বুঝি না, মানি না। জেএসএসের সদস্য সংখ্যা ৬৫০-৭০০ এর মত। এসব অস্ত্র দিয়ে ২০-২২ জন খুন করেছি আমরা।

বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য বলছে:

২০১৪ থেকে ২০১৯ এর অক্টোবার পর্যন্ত নিহত হয়েছে মোট ৩২১ জন এদের মধ্যে বাঙ্গালী ১১৪ এবং উপজাতি রয়েছে ২০৭ জন। আহত হয়েছে ৬১৫ জন বাঙ্গালী এবং ২৮৬ উপজাতি, বাঙ্গালী অপহরনের সংখ্যা ১৬৯ জন এবং উপজাতি ৩৪৭ জন, গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে মোট ১৮২ বার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর