channel 24

সর্বশেষ

  • অ্যালকোহল কারখানার বর্জ্যে দূষিত হচ্ছে নদীর পানি; হুমকিতে মাছসহ জলজ প্রাণী

  • অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের প্রধান পিআরও কর্মকর্তার ইন্তেকাল

  • জ্বর ও সর্দি-কাশি নিয়ে আজও প্রাণ গেলো ৯ জনের

  • যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের মনোনয়ন নিশ্চিত

  • 'পোশাক কারখানার শ্রমিক ছাঁটাইয়ের কথা বলেননি বিজিএমইএ সভাপতি'

  • সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে চিকিৎসকসহ ২৭৭ কর্মকর্তা-কর্মচারী বেতন পান না দু'মাস

  • ঢাকাতে করোনা নিয়ে 'দ্য ইকোনমিস্টের' তথ্য সঠিক নয়: স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়

  • শ'খানেক কর্মহীন পরিবার রাঁধেন এক হাঁড়িতে, পতিত জমিতে ফলান সবজি

  • ডিপ কোমায় সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম

  • পাবনায় ২ জনকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা

  • গণপরিবহন চালুর ষষ্ঠ দিনেও তুলনামূলক যাত্রী কম রাজধানীতে

  • কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার প্রতিবাদে এখনও অগ্নিগর্ভ যুক্তরাষ্ট্র

  • ক্রিকেট বোর্ডের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন, ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলনের অনুমতি

  • পাকিস্তানি নারী ক্রিকেট দলের কোচ বরখাস্ত

  • জার্মান লিগে রাতে আলাদা ম্যাচে নামছে বায়ার্ন-ডর্টমুন্ড

নিজ অর্থায়নে বঙ্গবন্ধুর নামে সাহিত্যকেন্দ্র গড়ে তুলেছেন গাইবান্ধার রাজা

নিজ অর্থায়নে বঙ্গবন্ধুর নামে সাহিত্যকেন্দ্র গড়ে তুলেছেন গাইবান্ধার রাজা

নিরবে জ্ঞানের আলো ছড়াচ্ছেন গাইবান্ধার পলাশবাড়ীর বজলার রহমান। নিজের অর্থায়নে বঙ্গবন্ধুর নামে গড়ে তুলেছেন মনোমুগ্ধকর সাহিত্যকেন্দ্র। লাইব্রেরিতে পাঠকদের জন্য রেখেছেন অনেক দুর্লভ বই। তাছাড়া নিজের লেখা ৫৩টি বইও প্রকাশ করেছেন। পেয়েছেন সরকারি-বেসরকারি সম্মাননা।

বই জ্ঞানের আধার, চির যৌবনা, চির অমলিন আনন্দের উৎস। নিজের অর্থায়নে সেই জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দিতে কাজ করছেন গাইবান্ধার পলাশবাড়ী সদরের বজলার রহমান রাজা।

চাকুরি করেছেন কৃষি বিভাগে। পরে নিজ অর্থায়নে মানুষের জন্য নিজ বাড়িতে ২০১৫ সালে গড়ে তোলেন লাইব্রেরি।

বজলার রহমানের এই সাহিত্য কেন্দ্রে রয়েছে দেশি, বিদেশি বিভিন্ন লেখকের হাজারো বই। ছোটদের জন্যও রয়েছে ছড়া, গল্প আর নানা উপন্যাস। বাদ পড়েনি ইতিহাস আর গবেষনার বইও।

বজলার রহমান রাজা বলেন, এটা আমি আমার নিজস্ব চিন্তা-চেতনা, আমার নিজস্ব অর্থায়নে করবো। এর জন্য আমি কারো সাহায্য সহযোগিতা নেব না।

বই পড়তে আশা দূরের পাঠকদের জন্য করেছেন বিনামূল্যে আবাসন ব্যবস্থাও। পাঠকরা জানান, আমরা দূর থেকে আসি এক্ষেত্রে আমাদের নিরাপত্তার একটা ব্যাপার থাকে, এখানেই আমাদের জন্য থাকার ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়াও তারা জানান, বই পড়তে ভাল লাগে তাছাড়া এখানে অনেক বই পাওয়া যায়। তাই প্রায় সময় এখানে এসে বই পড়ে থাকি।

দেশের বিভিন্ন জায়গায় এমন সাহিত্য কেন্দ্র গড়ে তোলার ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন বজলার রহমান রাজা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর