channel 24

সর্বশেষ

  • সিরাজগঞ্জে ছাত্রলীগের দুগ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ৫০

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ির আঙ্গিনায় গাঁজা চাষ, ১ নারী আটক

  • মর্নিং বার্ড লঞ্চ শত্রুতামূলকভাবে ডোবানো হয়েছে: নৌ পুলিশ

  • ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট করোনায় আক্রান্ত

  • ১৮২০ তৃণমূল ফুটবলার আর্থিক সহায়তা পাচ্ছে

  • খুলনায় আটক পাটকলের ২ শ্রমিক নেতা কারাগারে

  • এশিয়া কাপ স্থগিতের শঙ্কায় আকরাম খান

  • করোনায় ফেনীর সিভিল সার্জনের মৃত্যু

  • ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট দিয়ে মাঠে গড়াচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

  • নানা পরিচয়ে একের পর এক ব্যবসা বাগিয়েছেন রিজেন্টের মালিক

  • বাংলাদেশ থেকে এক সপ্তাহের জন্য ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা দিলো ইতালি

  • মৃতের হাত বেঁধে টাকা আদায়: প্রশান্তি হাসপাতালের বিরুদ্ধে ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

  • প্যাপিনোমেলনের পুষ্টিগুণ

  • মরিচ গাছের পাতা কুকড়ানো বা লিফ কার্ল রোগ

  • আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত ঘেরে চিংড়ির রোগ নির্ণয় ভ্রাম্যমাণ মৎস্য ক্লিনিক

রাজবাড়ীতে পদ্মার ভাঙনের মুখে ১৩ টি স্কুল

রাজবাড়ীতে পদ্মার ভাঙনের মুখে ১৩ টি স্কুল

রাজবাড়ির ৩ উপজেলায় পদ্মার ভাঙ্গনের মুখে ১৩ টি স্কুল। ভবন ভেঙ্গে যাওয়ার কারণে দুটি বিদ্যালয়ের পাঠদান চলছে অনত্র। বাকিগুলোর ক্লাসরুম সংকটে ব্যহত হচ্ছে পাঠদান। পদ্মার ভাঙ্গনে বাড়ি-ঘর বিলীন হওয়ায় চলে যাচ্ছেন স্থানীয়রা। এতে শিক্ষার্থী সংকটও তৈরি হয়েছে স্কুলগুলোতে।

স্কুলের পাঠদান চলছে শহীদ মিনারের বেদীতে। পাশেই নদী যেকোন সময়ে এটিও চলে যাবে পদ্মার বুকে।   এমনই অবস্থা রাজবাড়ির মহাদেবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের। এরইমধ্যে স্কুলের একটি ভবন বিলীন হয়েছে নদী ভাঙ্গনে।

সদর উপজেলার ফুরসাহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চিত্রটাও এমনই। বিদ্যালয়ের আশপাশের গ্রাম হারিয়েছে নর্দী গর্ভে। যেকোন সময়ে এ স্কুল ভবনটিও কেড়ে নেবে প্রমত্তা পদ্মা। তাই শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা চলছে অন্য একটি স্কুলে। পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় একটি রুমেই চলছে ৩টি ক্লাসের পাঠদান।

ফুরসাহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক বলছেন, পাশাপাশি ২টা ক্লাস নেওয়ায় বাচ্চাদের শিক্ষকের কথা শুনতে সমস্যা হয়। শিক্ষার্থীরাও বলছেন যে তারা হইচই অনেক হবার কারণে মনোযোগ দিয়ে পড়তে পারেন না।

স্থানীয়রা বলছেন, প্রতিবছরই বৃষ্টি-বন্যার সময় বিদ্যালয় বন্ধ রাখতে হয়। এছাড়া এভাবে নদী ভাঙ্গন চলতে থাকলে আর ২/১ বছরেই বিদ্যালয় ন্দী গর্ভ বিলীন হয়ে যাবে।

বিষয়টি স্বীকার করে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আমিরুল ইসলাম জানালেন, ঝুঁকিতে থাকা এসব স্কুলের শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়া এখন চ্যালেঞ্জ হয়ে দাড়িয়েছে।

রাজবাড়ি সদরের ৮টি, গোয়ালন্দের ৩টি ও পাংশায় ২ টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভাঙ্গনের ঝুঁকিতে রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর