channel 24

সর্বশেষ

  • সশস্ত্র বাহিনীকে একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায়...

  • সক্ষম করে তুলতে কার্যকর পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে: প্রধানমন্ত্রী...

  • সেনাকুঞ্জের সম্প্রসারিত ও পুনর্নির্মিত ভবন উদ্বোধন

  • ইমার্জিং এশিয়া কাপ: আফগানিস্তানকে ৭ উইকেটে হারিয়ে...

  • ফাইনালে বাংলাদেশ; শনিবার প্রতিপক্ষ পাকিস্তান...

  • আফগানিস্তান ২২৮/৯ (দারউইশ ১১৪), বাংলাদেশ ২২৯/৩ (সৌম্য ৬১)

  • অন্ধকার যুগ পেছনে ফেলে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: প্রধানমন্ত্রী

  • বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যা: প্রসিকিউশন টিমে...

  • পরিবারের পছন্দ অনুযায়ী দুজন আইনজীবী রাখা হচ্ছে: আইনমন্ত্রী

  • চালের দাম বৃদ্ধির কারণ বোধগম্য নয়: কৃষিমন্ত্রী...

  • ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেলে একজনের মৃত্যু

  • খুলনাসহ বিভিন্ন জেলায় এখনও বাস চলাচল বন্ধ...

  • সড়ক আইনের কিছু বিষয় নিয়ে চিন্তা করছেন প্রধানমন্ত্রী: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী...

  • যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটার কোনো কারণ নেই: ওবায়দুল কাদের

  • বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকীর ছেলে জুম্মান সিদ্দিকীকে...

  • বিশেষ বিবেচনায় হাইকোর্টে সনদ দেয়ার ঘটনা চ্যালেঞ্জ করে রিট

  • অর্থপাচার: ইটিভির সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুস সালামের মামলা...

  • বাতিল করেছেন হাইকোর্ট; আপিল করবে দুদক: আইনজীবী

  • সশস্ত্র বাহিনী দিবস: শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা...

  • বীরশ্রেষ্ঠসহ খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর সংবর্ধনা

  • বিচারপতি আবু জাফর সিদ্দিকীর ছেলে জুম্মান সিদ্দিকীকে...

  • বিশেষ বিবেচনায় হাইকোর্টে সনদ দেয়ার ঘটনা চ্যালেঞ্জ করে রিট

  • স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসে পরিবহন ধর্মঘট প্রত্যাহার...

  • খুলনাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় এখনও বাস চলাচল বন্ধ

আসামি বিদেশ বলেই খালাস পুলিশ

আসামি বিদেশ বলেই খালাস পুলিশ

হত্যা মামলার প্রধান আসামি প্রতি উৎসবেই লাগাচ্ছেন পোস্টার, সক্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও। কিন্তু খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ। রাজধানীর মহাখালিতে যুবলীগ কর্মী রাশেদ হত্যা মামলার আসামি সুন্দরি সোহেলসহ কেউই ধরা পড়েনি এক বছরেও। উল্টো মামলা তুলে নিতে টাকার প্রস্তাবের সাথে দেয়া হচ্ছে হুমকি। গোয়েন্দা পুলিশ জানান, ইন্টারপোলের মাধ্যমে আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, ১৫ জুলাই রাত ২০১৮ তে রাজধানীর বনানী থানা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও ২০ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইউসুফ সরদার সোহেল ওরফে সুন্দরী সোহেল ঢুকছেন নিজ কার্যালয়ে। পেছনেই তার দীর্ঘদিনের সঙ্গী ওয়ার্ড যুবলীগের সহ-সভাপতি কাজী রাশেদসহ আরও ৪ জন। কিছুক্ষণ পরই একজনকে সঙ্গে নিয়ে বের হওয়ার সময় করিডোর ও দরজার সামনের বাতি নেভান সোহেল।

এরপরই গেটের বাইরে দাড়িয়ে থাকা একজন সবার হাতে পড়ার জন্য পলিথিন এগিয়ে দেয়। পরে হাসু, ফিরোজ, জহির ও দীপুসহ চারজন মিলে হাত-পা ধরে বের করেন গুলিবিদ্ধ কাজী রাশেদকে। প্রথমে রাখা হয় কলাপসিবল গেটের বাইরে। তারপর ফেলে দেয়া হয় ভবনটির পেছনের বন ভবনের পেছনের গলিতে।

যেখানে রাশেদকে খুন করা হয় সেই ভবনের সামনে এখনও দেখা যায় হত্যা মামলার প্রধান আসামি সুন্দরী সোহেলের সাইনবোর্ড।

ভিডিও ফুটেজে যাদের দেখা গিয়েছে তাদের কাউকে গ্রেপ্তার করতে না পারলেও, গেটের বাইরে থাকা জাকির নামে একজনকে ধরে জবানবন্দি নেয় পুলিশ। কিন্তু তিনিও জামিন পেয়ে যান কিছুদিন পরই।

রাশেদের স্ত্রী মৌসমী বলেন, তারা আমাদের থ্রেড দেয়। টাকার অফার দেয়। কিছুদিন আগে সোহেলের বাব-মা ১০ লাখ টাকা দিয়ে পাঠিয়েছিল মামলা মীমাংসা করার জন্য।

এলাকায় না এলেও দলের শীর্ষ নেতাদের ছবি ব্যবহার করে প্রচারণা চালাচ্ছেন সোহেল। নববর্ষ, ঈদের মতো সব উৎসবেই, দেখা মেলে তার পোস্টার।

যদিও ঢাকা মহানগর যুবলীগ (উত্তর) সভাপতি মাইনুল হোসেন খান জানান, বিষয়টি তাদের আওতার মধ্যে না। তিনি বলেন, তারা যদি আমাদের নাম ব্যভার করে পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে।

হত্যায় জড়িত সবার চেহারা পরিষ্কার বোঝা গেলেও একবছরেও তাদের ধরতে না পারার কারণ হিসেবে পুলিশের দাবি, আত্মগোপনে চলে গেছেন আসামিরা।

গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম বলেন, সুন্দরি সোহেল পলাতক আছে। সে আলবেনিয়াতে আছে।  

রাজনৈতিক চাপে আসামিদের গ্রেপ্তার না করার অভিযোগও মানতে নারাজ গোয়েন্দা পুলিশ।

নিউজটির ভিডিও-

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

চ্যানেল 24 বিশেষ খবর