channel 24

সর্বশেষ

  • চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রেলপথ নির্মাণ কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে

  • পরকীয়া সন্দেহে সামাদকে পিটিয়ে খু ন করল বাবা-ছেলে

  • এসএসসি পাসে লাখ টাকা বেতনে চাকরি দিচ্ছে ইউএসএআইডি

  • ২০০ কোটির প্রতারণার মামলায় ইডির অফিসে জ্যাকুলিন

  • ভেঙে পড়ল ভারতের সামরিক কপ্টার, প্রাণে বাঁচলেন বিপিন রাওয়াত

  • বাকিদেরও ফাঁসি চাই: আবরারের মা

  • পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলে রাতেই নিউজিল্যান্ড যাচ্ছে বাংলাদেশ

  • চট্টগ্রামে যাচ্ছেন পরীমণি

  • নোয়াখালীর কারাগারে হাজতির মৃত্যু

  • হিমাদ্রী বিশ্বাসের ‘চন্দ্রমুখ’

  • ক্যাটরিনার অজানা ৭ তথ্য

  • জনগণের কাছে যা কিছু গ্রহণযোগ্য নয় তা আওয়ামী লীগের কাছেও গ্রহণযোগ্য নয়: শিক্ষামন্ত্রী

  • আবরার হত্যা সবাইকে ব্যথিত করেছে: আদালত

  • শরীয়তপুরে আ.লীগের দুই গ্রুপের সং ঘ র্ষ, আহত ৪৫

  • এবার ভোটের মাঠে নিপুন

ফেসবুকে পোস্টের পর মাইকিং করে জেলে পাড়ায় হামলা

ফেসবুকে পোস্টের পর মাইকিং করে জেলে পাড়ায় হামলা

রংপুরের পীরগঞ্জের জেলে পাড়ায় হিন্দুদের বাড়িতে হামলার আগে ফেসবুকে পোস্ট করে মাইকিংয়ের মাধ্যমে লোক জড়ো করা হয়। এ ঘটনার হোতা ছিলেন গ্রেপ্তার সৈকত মন্ডল।

গতকাল শুক্রবার (২২ অক্টোবর) দিবাগত রাতে গাজীপুরের টংগী থেকে এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে সৈকত মন্ডল ও তার সহযোগী রবিউল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তাদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শনিবার দুপুরে কারওয়ান বাজার মিডিয়া সেন্টারে এ বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন বাহিনীটির আইন ও গণমাধ্যম শাখার প্রধান কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তারকৃতরা উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে অরাজকতা তৈরি এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের লক্ষ্যে হামলা-অগ্নিসংযোগ ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপপ্রচার এবং মাইকিং করে হামলাকারীদের জড়ো করেন বলে জানিয়েছেন। গ্রেপ্তার সৈকত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উসকানিমূলক, বিভ্রান্তিকর ও মিথ্যাচারের মাধ্যমে স্থানীয় জনসাধারণকে উত্তেজিত করে তোলেন। এ ছাড়া, তিনি উক্ত হামলা ও অগ্নিসংযোগে অংশগ্রহণে জনসাধারণকে উদ্বুদ্ধ করেন।

আরও পড়ুন: কুমিল্লার ঘটনায় ইকবালসহ ৪ জন ৭ দিনের রিমান্ডে

র‌্যাব বলছে, সৈকতের নেতৃত্বে বেশ কয়েকজন হামলায় সরাসরি অংশগ্রহণ করে বাড়িঘর, দোকানপাট ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগ করেন। এ ঘটনার পর সৈকত আত্মগোপনে চলে যান।

ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, সৈকত মন্ডল রংপুরের একটি কলেজের স্নাতকে অধ্যয়নরত। তিনি রংপুর পীরগঞ্জের হামলা এবং অগ্নিসংযোগের অন্যতম হোতা। বিভিন্ন সময়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিভিন্ন উসকানিমূলক ও বিভ্রান্তিকর পোস্ট এবং শেয়ার করতেন তিনি।

কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, গ্রেপ্তারকৃত রবিউল রংপুরের পীরগঞ্জের হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় অন্যতম উসকানিদাতা। তিনি উক্ত হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনার আগে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মাইকিংয়ের মাধ্যমে বিভিন্ন উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে, মিথ্যাচার করে গ্রামবাসীকে উত্তেজিত করে তোলেন এবং ওই হামলায় অংশগ্রহণের জন্য জড়ো হতে বলেন। এরপর তিনি মাইকিংয়ের দায়িত্ব তার আস্থাভাজনকে দিয়ে নিজে সশরীরে অংশগ্রহণ করেন এবং নির্দেশনা দেন। গ্রেপ্তার রবিউল জানায়, সৈকতের নির্দেশনায় এবং প্ররোচনায় তিনি মাইকিং করাসহ হামলায় অংশগ্রহণ করেন। ঘটনা পরবর্তীতে তিনিও আত্মগোপনে চলে যান।

র‌্যাব জানায়, সাম্প্রতিক সময়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টায় কুমিল্লা, নোয়াখালী, চাঁদপুর, চট্টগ্রাম, ফেনী এবং রংপুরসহ বেশ কয়েকটি এলাকায় স্বার্থন্বেষী মহলের অপতৎপরতা লক্ষ্য করা গেছে। এ ছাড়া, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্টের লক্ষ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উসকানিমূলক, বিভ্রান্তিকর ও মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির অপচেষ্টা করছে চক্রান্তকারীরা।

ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, এসব সহিংসতায় জড়িত থাকার সন্দেহে র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখা ও বিভিন্ন ব্যাটালিয়নের অভিযানে প্রায় ৩০ জনকে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে।

এফএইচ/

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর