channel 24

সর্বশেষ

  • সোমবার থেকে লাখ লাখ স্মার্টফোনে বন্ধ হচ্ছে গুগলের সেবা

  • খুলেছে ঢাবি গ্রন্থাগার, কর্তৃপক্ষের নির্দেশ উপেক্ষা চাকরিপ্রার্থীদের

  • সাড়ে ১০ হাজার শ্রমিককে ভিসা দেবে যুক্তরাজ্য

  • নাসিরনগরে পানিতে ডুবে যমজ ভাই-বোনের মৃত্যু

  • এক ধাপ এগিয়েছে বাংলাদেশ, পিছিয়েছে বিএনপি: কাদের

  • বিমানবন্দরে পরীক্ষামূলকভাবে আরটিপিসিয়ার ল্যাব চালু

  • তেলের মিলের পাশে পড়ে ছিলো আনসার কমান্ডারের লাশ

  • স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে মাস্ক ও হ্যান্ড সেনিটাইজার পেল গার্ল গাইডস

  • কুষ্টিয়ায় ব্যাংক কর্মকর্তা খুন: বিচার চেয়ে পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

  • ‘সঞ্চয়পত্রের সুদের হার কমানোর সিদ্ধান্ত সময়োপযোগী নয়’

  • রাজবাড়ীতে গাছ কাটতে গিয়ে বিস্ফোরণ, নারীসহ আহত ৩

  • দেশে করোনায় মৃত্যু কমলো, বাড়লো শনাক্ত

  • আসছে নুরের নতুন রাজনৈতিক দল, নেতৃত্বে রেজা কিবরিয়া

  • দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনায় বসতে ‘আগ্রহী’ উত্তর কোরিয়া

  • অন্যের সঙ্গে সম্পর্ক করায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হ ত্যা

ভারতের সঙ্গে স্থলবন্দর খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত

ভারতের সঙ্গে স্থলবন্দর খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত

ভারতের সঙ্গে প্রায় সব স্থলবন্দর খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আগামী রবিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) থেকে মোট ১০টি স্থলবন্দর সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত কার্যক্রম শুরু করবে। পর্যটক ছাড়া অন্য সবাই এই বন্দরগুলো দিয়ে ঢুকতে পারবেন এবং বাংলাদেশে প্রবেশের জন্য কোনও ধরনের নো-অবজেকশন সার্টিফিকেট প্রয়োজন হবে না।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) মাশফি বিনতে সামস বলেন, দুই দেশের করোনা মহামারি পরিস্থিতি উন্নতির কারণে আমরা স্থলবন্দরগুলো খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আগে পাঁচটি বন্দর খোলা ছিল। রবিবার থেকে আরও পাঁচটি বন্দর খুলে দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, স্থলবন্দরগুলো অনেকদিন বন্ধ থাকার কারণে পুনরায় কার্যক্রম শুরু করতে সংশ্লিষ্টদের কয়েকদিন সময় দরকার।

উল্লেখ্য,গত ২৫ এপ্রিল থেকে স্থলবন্দর দিয়ে আগমন-নির্গমন বিষয়াদি পর্যবেক্ষণের জন্য পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেনের নেতৃত্বে একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটি স্থলবন্দর সংলগ্ন জেলাগুলোর স্থানীয় প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা দিয়ে আসছে।

আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির সদস্য মাশফি বিনতে সামস বলেন, আমরা গত পাঁচ মাসে ১০টি বৈঠক করেছি এবং স্থানীয় প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছি, যাতে করে ভারত থেকে কোভিড বাংলাদেশে দ্রুত ছড়াতে না পারে।

তিনি বলেন, এর সুফলও আমরা পেয়েছি। কারণ, ভারতে যখন প্রকোপ কমেছে, তখন বাংলাদেশে সংক্রমণ কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু ওই সময়ে আমরা ভারত থেকে প্রয়োজনীয় আমদানি করতে পেরেছি, যা অন্যসময় সহজ হতো না।

এমএ/

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর