channel 24

সর্বশেষ

  • অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে ইউরোপিয়ান সুপার লিগের ভবিষ্যৎ

  • বাংলাদেশকে ভ্যাকসিন দিতে দ্রুত সিদ্ধান্ত চায় চীন

  • ফুরিয়ে আসছে করোনার টিকা, বিকল্প উৎসের খোঁজে সরকার

  • হেফাজত নেতা কোরবান আলী ৭ দিনের রিমান্ডে

  • বাংলাদেশিদের ইউরোপ-আমেরিকা যাবার বাধা কাটলো

  • ঠাকুরগাঁওয়ের শিশু জান্নাত এখন পুরোপুরি সুস্থ

  • এবছর সর্বনিম্ন ফিতরা ৭০ টাকা

  • বিএনপিকে জনগণের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান কাদেরের

  • জয় দিয়ে জিম্বাবুয়ে সিরিজ শুরু পাকিস্তানের

  • ব্যর্থতার বৃত্ত ভেঙে আলোয় উজ্জ্বল শান্ত

  • বিদায় মুখ ঢেকে যায় বিজ্ঞাপনের কবি শঙ্খ ঘোষ

  • শান্তর সেঞ্চুরিতে রাঙানো ক্যান্ডি টেস্টের প্রথমদিন

  • জীবিকার তাগিদ বোঝে না করোনা আতঙ্ক, বোঝে না লকডাউন

  • সুপার লিগে ভাঙনের সুর, চুক্তি অনুযায়ী খেলতে বাধ্য- দাবি পেরেজের

  • ক্যারিয়ারের প্রথম শতক তুলে নিলেন শান্ত

অপরাধ যাই হোক, শিশুদের সাজা সর্বোচ্চ ১০ বছর: হাইকোর্ট

অপরাধ যাই হোক, শিশুদের সাজা সর্বোচ্চ ১০ বছর: হাইকোর্ট

শিশুদের বিচার নিয়ে এতদিন ছিলো নানা রকম অসঙ্গতি। তবে সেসব অসঙ্গতি দূর করে দিয়েছেন তিন সদস্যের হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চ। আদালত তার রায়ে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, শিশুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির কোন সাক্ষ্যগত মূল্যই নেই। অপরাধ যাই হোক..শিশুকে ১০ বছরের বেশি সাজা প্রদান করা যাবে না।

আইনের সংঘাতে জড়িয়ে পড়া শিশুদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণে দেশে কোন সুনির্দিষ্ট আইন নেই। আগে শিশুদের বিচার হতো ১৯৭৪ এর শিশু আইন অনুযায়ী। ২০১৩ সালে হয় নতুন শিশু আইন। এই আইনে শিশুর বয়স, জবানবন্দি গ্রহণ, দণ্ড ও শিশু শোধানাগারসহ বিশেষ বেঞ্চ গঠন করা হয়। যা নিয়ে পক্ষে-বিপক্ষে রায় দেন দেশের সর্বোচ্চ আদালত। আর সেজন্যই ফুল বেঞ্চ গঠন করে দেন প্রধান বিচারপতি। 

সেই বেঞ্চেই শিশুদের নিয়ে যুগান্তকারী রায় দিয়েছেন। রায়ের তিনটি সিদ্ধান্ত হলো- শিশুর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির কোন সাক্ষ্যগত মূল্য নেই। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি কোন শিশুকে সাজা দেয়ার ক্ষেত্রে ভিত্তি হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না। অপরাধ যাই হোক না কেন একজন শিশুকে ১০ বছরের বেশী সাজা নয়। 

ভারত, যুক্তরাজ্যের উচ্চ আদালতের নজির বিবেচনায় নিয়েই শিশুদের নিয়ে এমন রায় দিয়েছেন দেশের সর্বোচ্চ আদালত। সংবিধান বিশেষজ্ঞ শাহদীন মালিক বলছেন, শিশুদের বিচারের ক্ষেত্রে নিম্ন আদালত এই রায় বিবেচনায় নেবেন। 

আদালত তার রায়ের পর্যবেক্ষণে বলেছেন, শিশুরা আবেগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না। তাই অপরাধকে নিজেদের ঘাড়ে নিয়ে নেয়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর