channel 24

সর্বশেষ

  • করোনায় বাংলা ভাষার অন্যতম কবি শঙ্খ ঘোষের মৃত্যু

  • ব্রাজিলে মুমূর্ষু রোগীদের সহমর্মিতায় 'হ্যান্ড অব গড'

  • তামিম-নাজমুলের ব্যাটে ক্যান্ডি টেস্টে দারুণ শুরু বাংলাদেশের

  • রংপুরে উৎপাদিত আলুর অর্ধেকই পঁচে যায় সংরক্ষণের অভাবে

  • চিকিৎসকসহ নানা সংকটে সিলেট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও হাসপাতাল

  • ফরিদপুরে ছাত্রলীগের সাবেক নেতৃবৃন্দের অন্যন্য নজির

  • ঈদকে সামনে রেখে অনলাইনে বাড়ছে গয়না বিক্রি

  • চট্টগ্রামে দীর্ঘ হচ্ছে শিশুদের করোনা আক্রান্তের তালিকা, বাড়ছে প্রাণহানিও

  • বড় পতনের পর ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত পুঁজিবাজার

  • যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লয়েড হত্যায় অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তা দোষী সাব্যস্ত

  • লকডাউনের মধ্যেই অভ্যন্তরীণ রুটে বিমান চলাচল শুরু

  • লকডাউনে গলি মহল্লার ভিড় এখন মূল সড়কে

  • স্কুল বন্ধ থাকায় অনিশ্চয়তায় কোটি শিক্ষার্থীর জীবন, বেড়েছে বাল্যবিবাহ

  • শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করছে বাংলাদেশ

  • দাতাদের সাথে আলোচনার পর ভাসানচরে অর্থায়নের সিদ্ধান্ত: জাতিসংঘ

সালিশের মাধ্যমে বিয়ে দেয়া বেআইনী: হাইকোর্ট

সালিশের মাধ্যমে বিয়ে দেয়া বেআইনী: হাইকোর্ট

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ মামলার ৩ আসামিকে বিয়ের শর্তে দেয়া জামিন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন হাইকোর্টের আরেকটি বেঞ্চ। বুধবার ধর্ষণ নিয়ে মামলায় পুলিশ সদর দপ্তরের দেয়া প্রতিবেদনের শুনানিতে এ প্রশ্ন তোলেন হাইকোর্ট। আদালত বলেন, সালিশের মাধ্যমে বিয়ের যে ঘটনা তা বেআইনী।

১৮০ দিনের মধ্যে ধর্ষণ মামলা নিষ্পত্তি কেনো হচ্ছে না, তা তদারকি করতে গত বছর অক্টোবরে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। চাওয়া হয় মামলার সবশেষ তথ্য। 

বুধবার ধর্ষণ নিয়ে গত পাঁচবছরের একটি প্রতিবেদন হাইকোর্টে দাখিল করে পুলিশ সদর দপ্তর। এতে বলা হয় গত ৫ বছরে ধর্ষণের মামলা হয়েছে ২৬ হাজার ৬৯৫ টি। ২০২০ সালের অক্টোবর পর্যন্ত ধর্ষণ মামলা হয়েছে ৬ হাজার ২২০ টি। করোনা মহামারীতেও বন্ধ ছিলো না ধর্ষণের ঘটনা। 

গত সোমবার ধর্ষিতাকে বিয়ের শর্তে ধর্ষকের জামিন দেন ভারতের সুপ্রমি কোর্ট। এর আগেও এমন নজির স্থাপন করেন দেশটির আদালত। বাংলাদেশের হাইকার্টের একটি বেঞ্চও গত তিন মাসে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের মামলায় বিয়ের শর্তে তিন জনকে জামিন দেন। 

তবে এসব জামিন নিয়ে এবার প্রশ্ন তুললেন হাইকোর্টের আরেকটি বেঞ্চ। আদালতের জবাব, সালিশের মাধ্যমে বিয়ে দেয়া বেআইনী। একই বিষয়ে প্রশ্ন তোলেন আইন ও সালিশ কেন্দ্রও।

ধর্ষণের মামলা ১৮০ কার্যদিবসের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে একটি উচ্চ পর্যায়ের কমিটি করেছেন সুপ্রিম কোর্ট।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর