channel 24

সর্বশেষ

  • যুক্তরাষ্ট্রে জর্জ ফ্লয়েড হত্যায় অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তা দোষী সাব্যস্ত

  • লকডাউনের মধ্যেই অভ্যন্তরীণ রুটে বিমান চলাচল শুরু

  • লকডাউনে গলি মহল্লার ভিড় এখন মূল সড়কে

  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় অনিশ্চয়তায় কোটি শিক্ষার্থীর জীবন, বেড়েছে বাল্যবিবাহ

  • শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করছে বাংলাদেশ

  • দাতাদের সাথে আলোচনার পর ভাসানচরে অর্থায়নের সিদ্ধান্ত: জাতিসংঘ

  • ভারতে আরও ভয়াবহ হচ্ছে করোনা, একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু ২০২১

  • লঙ্কানদের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ

  • জামালপুরে সুজন নামে এক ব্যক্তিকে গলা কেটে হত্যা

  • খুলনায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় এনটিভির সাংবাদিক আবু তৈয়ব গ্রেপ্তার

  • চালু হচ্ছে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট

  • মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও গর্ভপাতের অভিযোগ

  • ফেভারিট শ্রীলঙ্কার সামনে স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশও

  • কচুরিপানায় ভাগ্য বদলেছে দুই শতাধিক নারীর

  • মামুনুলের নজর ছিলো ধর্মকে পুঁজি করে ক্ষমতা দখলে: পুলিশ

মশায় নাকাল নগর জীবন

মশায় নাকাল নগর জীবন

রাজধানীতে মশার উপদ্রব বাড়ছেই। কোনভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না বংশ বিস্তার। শত কোটি টাকা বরাদ্দেও মিলছেন না সুফল। জরিপ ও গবেষণার তথ্য বলছে, গেলো বছরের চেয়ে এ বছর ঢাকায় মশার পরিমাণ বেড়েছে চার গুণ। উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তার মতে, অসময়ের বৃষ্টির জলাবদ্ধতাই মশার সংখ্যা বৃদ্ধির কারণ। বিশেষজ্ঞদের মতে মশা নিয়ন্ত্রণে প্রচলিত পদ্ধতির পাশাপাশি জৈবিক পদ্ধতি ব্যবহার করতে হবে।

রাজধানীতে সন্ধ্যা নামে-মশাকে সঙ্গী করে। পথ ঘাট বাসা বাড়ি সবখানেই বাড়ে মশার অবাধ আনাগোনা। এর নির্বিচার কামড় টাকার জোর, বয়স-পেশা কোনো কিছুরই ধার ধারে না।

রাজধানীসহ সারা দেশে এই মহূর্তে যে মশা অতিষ্ঠ করে তুলেছে, তা কিউলেক্স প্রজাতির। সাধারণত নোংরা, পচা পানিতে বংশবিস্তার করে কিউলেক্স। সংখ্যা এতোটাই বেড়েছে যে সিটি করপোরেশনের কোটি টাকার প্রকল্পও খাবি খাচ্ছে সামাল দিতে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিজ্ঞানের শিক্ষক কবিরুল বাশার ও তার সহযোগীদের সাম্প্রতিক গবেষণ বলছে, অন্য বছরের তুলনায় এ বছর মশা বেড়েছে চার গুণ বেশি। বিশেষ করে মশার লার্ভা পৌঁছেছে উদ্বেগজনক পর্যায়ে।

গেলো বছর ডিসেম্বরে কয়েকদিন বৃষ্টির দেখা মিলেছিলো রাজধানীতে। সিটি করপোরেশন বলছে, এই বৃষ্টিই- মশার অস্বাভাবিক বংশবিস্তারের কারণ।

মশার নিয়ন্ত্রণে রাখতে হলে ড্রেন- ডোবা- নালা পরিস্কার রাখা জরুরি। কিন্তু ঢাকার বেশিরভাগ ড্রেন বদ্ধ থাকায় সেখান পর্যন্ত পৌঁছানো যায় না..তাই প্রতি বছর অসম্পূর্ণই থেকে যায় মশা নিধন কার্যক্রম।

তবে শুধু ওষুধ দিয়ে মশা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়; মনে করেন অধ্যাপক কবিরুল বাশার। তার মতে, জৈবিক নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি প্রতিটি এলাকাকে ১০ টি ভাগে ভাগ করে মশা নিধন কার্যক্রম সাজাতে হবে।

মশা নিধনে চলতি অর্থবছর ১১২ কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছে দুই সিটি করপোরেশন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর