channel 24

সর্বশেষ

  • রাজধানীতে গৃহবধূর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার

  • ২০২২ সালের মধ্যে দেশের ৮০ শতাংশ মানুষকে টিকা দেয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী

  • আফগানিস্তান ইস্যুতে বাতিল হল সার্ক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক

  • নেতাকর্মীদের সাথে ৫ম দিনের মতো বৈঠকে বিএনপি

  • ১০ মাসেই রাজশাহী মেডিকেলের চেহারা বদলেছেন ব্রি. জে. শামীম ইয়াজদানী

  • খুলনায় যৌতুক মামলায় সিআইডি কর্মকর্তা কারাগারে

  • চাঁদপুর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালকসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

  • সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে পদ্মার ইলিশ

  • আইনি কাঠামোতে আসছে ই-কমার্স খাত

  • মহেশখালিতে রিটার্নিং কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ফল পাল্টে দেয়ার অভিযোগ

  • সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কমিশনকে সর্বাত্মক ক্ষমতা দেয়া হবে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

  • ভোটার তালিকায় নেই লোকমান, অর্ধশতাধিক নতুন মুখ

  • একাধিকবার গর্ভপাত, মাতৃত্বের স্বাদ বঞ্চিত গৃহবধূর আদালতে মামলা

  • পরিবারে বাল্য বিয়ে থাকলে ভিজিডি নয়: সংসদীয় কমিটি

  • চ্যানেল 24 ও সমকাল কার্যালয়ে এমপি নিক্সন

স্বাস্থ্যের গাড়িচালক মালেক কারাগারে

স্বাস্থ্যের গাড়িচালক মালেক কারাগারে

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাড়িচালক আবদুল মালেককে ১৪ দিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করে পুলিশ।

সোমবার (৫ অক্টোবর) গাড়িচালক আবদুল মালেকের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে ঢাকা মহানগর হাকিম সাদবীর ইয়াসির আহসান চৌধুরী কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

অবৈধ অস্ত্র ও জাল টাকা উদ্ধারের ঘটনায় করা পৃথক দুই মামলায় গাড়িচালক আবদুল মালেক ১৪ দিনের রিমেন্ডে ছিলেন।

২১ সেপ্টেম্বর তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় অবৈধ অস্ত্র ও জাল টাকা উদ্ধারের ঘটনায় তুরাগ থানার করা পৃথক দুই মামলায় তার সাত দিন করে ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ।

গত ২০ সেপ্টেম্বর ভোরে অবৈধ অস্ত্র, জাল নোট ব্যবসা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রাজধানীর তুরাগ এলাকা থেকে গাড়িচালক আবদুল মালেক ওরফে ড্রাইভার মালেককে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, পাঁচ রাউন্ড গুলি, দেড় লাখ বাংলাদেশি জাল নোট, একটি ল্যাপটপ ও মোবাইলফোন উদ্ধার করা হয়।

স্বাস্থ্যের গাড়িচালক আবদুল মালেকের রয়েছে ২৪টি ফ্ল্যাটবিশিষ্ট সাত তলার দুটি বিলাসবহুল বাড়ি। একই এলাকায় ১২ কাঠার প্লট। এছাড়া হাতিরপুলে ১০ তলা ভবনের নির্মাণকাজ চলছে।

তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের প্রশাসনকে জিম্মি করে চিকিৎসকদের বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতেন। চিকিৎসকদের বদলি-পদোন্নতিতেও ছিল তার হাত। নিয়োগ, বদলি ও পদন্নোতিতে তদবিরের নামে আদায় করেছেন বিপুল পরিমাণ অর্থ। যার বদৌলতে অল্প দিনেই শতকোটি টাকারও বেশি অর্থ-সম্পদের মালিক হন এই মালেক ড্রাইভার।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর