channel 24

সর্বশেষ

  • সাকিবের প্রত্যাবর্তনকে স্বাগত জানাল সতীর্থরা ও কোচ খালেদ মাহমুদ

  • রংপুরে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলায় ডিবির এএসআই রাহেনুল গ্রেপ্তার

  • সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা উঠলো

  • ভ্যাট ফাঁকির অপরাধে ফুডপান্ডার বিরুদ্ধে মামলা

  • বছর ব্যবধানে দেশে সরাসরি বিদেশি বিনিয়োগ কমেছে ১৯ শতাংশ

  • জাতীয় দলের অনুশীলনে ফিরেছেন বসুন্ধরা কিংস ফুটবলাররা

  • 'যুবতী রাধে' গানের সমাধান মিলছে না

  • মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আগাম ভোটের রেকর্ড

  • রুটিফলের স্বাদ ও পুষ্টিগুণ

  • কিশোরগঞ্জে শিশু গৃহকর্মীকে হত্যার অভিযোগে দম্পতি আটক

  • আঁখ চাষীদের দুর্ভোগ কমাতে সুগারক্যান প্ল্যানটার

  • মাশরুম চাষের মাধ্যমে নতুন উদ্যোক্তা তৈরি করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

  • ইসিতে আ.লীগ প্রার্থীদের বিরুদ্ধে বিএনপির অভিযোগ

  • পাবনায় আগাম জাতের শিম চাষে ভাগ্য ফিরেছে কৃষকের

  • ভোলার এসপি হলেন দশম শ্রেণির ছাত্রী তাসনিম!

একজন নিমেশ বাবুর গল্প

একজন নিমেশ বাবুর গল্প

প্রায় ৪৪ বছর সুপ্রিম কোর্ট বারে কাজ করেছেন নিমেশ চন্দ্র দাশ। এত দীর্ঘ সময় কাজের অভিজ্ঞতা আর কারও নেই। গত বৃহস্পতিবার নিজের কর্মস্থল থেকে অবসর নেন তিনি। বিদায় বেলায় সহকর্মীদের বলে গেলেন বারের খেয়াল রাখতে।

নিমেশ চন্দ্র দাশ। দেশে সর্বোচ্চ আদালতে সবাই চেনেন নিমেশ বাবু নামে। ৪৪ বছর কাজ করেছেন সুপ্রিম কোর্ট বারে। তাকে ছাড়া যেন অচল বার। সেখানে বৃহস্পতিবার ছিলো তার শেষ কর্মদিবস।

নিমেশ বাবু যখন সুপ্রিম কোর্ট বারে আসেন, তখন সেখানে ছিলো মাত্র ৪টি ফাইল। সেখানে এখন হাজার হাজার ফাইলের স্তূপ। অথচ সবকিছুই তার নখদর্পনে।

বর্তমান প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনসহ আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বেশিরভাগ বিচারপতিই সনদ নিয়েছেন তার হাতে। শেষবারের মতো কর্মস্থল ছাড়ার আগে গর্ব ভরে বললেন তা।

স্বাধীনতার পর এত দীর্ঘ সময় সুপ্রিম কোর্ট বারে কাজের অভিজ্ঞতা আর কারও নেই। তাই মায়ারটানও একটু বেশি। শেষ দিন সব সহকর্মীকে বলে গেলেন বারের খেয়াল রাখতে, তার কর্মজীবনের যে এখানেই সমাপ্তি।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর