channel 24

সর্বশেষ

  • বাংলাদেশের কোয়ারেন্টিন ইস্যুতে এখনো ধোঁয়াশায় লঙ্কান ক্রিকেট

  • 'ব্যক্তি নয়, টিম হিসেবেই চলছে ফেডারেশন'

  • প্রচারণায় সরগরম বাফুফে নির্বাচন

  • এবার ১৪ বছর কনডেম সেলে থাকা আসামিকে খালাস

  • করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা বই আকারে সংরক্ষণ

  • অর্থনীতি সচল রেখে করোনার দ্বিতীয় ওয়েভ মোকাবিলা করা হবে

  • তরুণীর করা মামলায় নুরের বিরূদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • কুড়িগ্রামে কাঠমিস্ত্রি হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড

  • এবার স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের স্ত্রী-সন্তানের সম্পদের খোঁজে দুদক

  • উচ্চ পুষ্টিমান ও ঔষধি গুণসম্পন্ন মাশরুম

  • চট্টগ্রামে করোনায় নতুন করে আক্রান্ত ৫৬

  • মাঝারি বর্ষণ পানিবন্দী চট্টগ্রামের বেশ কিছু এলাকা

  • চট্টগ্রাম বন্দরে কম্পিউটার অপারেটর পদে কোটা না মানার অভিযোগ

  • নুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণ-ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার প্রতিবেদন ১৩ অক্টোবর

  • চট্টগ্রামে দোকান কর্মচারীকে পিটিয়ে হত্যায় মামলা দায়ের, আটক ২

বদলে যাচ্ছে ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনের নাম

বদলে যাচ্ছে ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনের নাম

আর থাকছে না বহু বছরের পুরানো নামের সেই ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা কিংবা সিটি করপোরেশন। স্থানীয় সরকারের প্রতিষ্ঠানগুলোর এসব নাম বদলে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। খসড়া অনুযায়ী বহুল পরিচিত সেই ইউনিয়ন পরিষদ হয়ে যাচ্ছে পল্লী পরিষদ, পৌরসভা হচ্ছে নগর সভা, আর সিটি করপোরেশন হচ্ছে মহানগর সভা। চেয়ারম্যান মেয়ররা বদলে যাবেন পুরাধ্যক্ষ কিংবা আধিকারিক নামে।

যদিও স্থানীয় সরকার ও নির্বাচন বিশ্লেষকরা বলছেন, এসব পরিবর্তন একেবারেই অপ্রয়োজনীয় ও এখতিয়ার বর্হিভূত। বরং সুষ্ঠু নির্বাচনের দিকে নজর দেয়া উচিত কমিশনের।

স্বাধীন বাংলাদেশের শুরুতে ১৯৭৩ সালে জাতীয় সংসদে স্থানীয় সরকারের সবচেয়ে তৃণমূল কাঠামো ইউনিয়ন পঞ্চায়েতের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ইউনিয়ন পরিষদ। সেই থেকে প্রায় অর্ধ শতাব্দী ধরে এর কাঠামো চলছে এই নামেই। কিন্তু হঠাৎ করেই এই নাম বদলের উদ্যোগ নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

নতুন স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান নির্বাচন আইন ২০২০ এর খসড়া চূড়ান্ত করেছে ইসি। যেখানে ইউনিয়ন পরিষদের নাম পাল্টে দেয়া হচ্ছে পল্লী পরিষদ। আর সিটি করপোরেশন- মহানগর সভা এবং পৌরসভার নতুন নাম হবে নগর সভা।

আইনটি সংসদে পাশ হলে কেবল প্রতিষ্ঠানের নাম নয়, বহুল পরিচিত মেয়র কিংবা চেয়ারম্যান শব্দও আর থাকবে না। সিটি করপোরেশনের মেয়রকে ডাকা হবে আধিকারিক নামে, এবং পৌরসভার মেয়র হবেন পুরাধ্যক্ষ। আর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের পদবি বদলে হবে পল্লী পরিষদ প্রধান।

স্থানীয় সরকার ও নির্বাচন বিশ্লেষকরা বলছেন, সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের দিকে নজর না দিয়ে, এসব নাম পরিবর্তনের উদ্যোগ অহেতুক ও এখতিয়ার বহির্ভূত। তারা বলছেন, ইসির প্রস্তাবনা অনুযায়ী আইনটি পাশ হলে তৈরি হতে পারে বহুমুখী সংকট। সেই সাথে বিদ্যমান আইনেও পরিবর্তন আনতে হবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের।

তবে পরিবর্তন হবে না উপজেলা বা জেলা পরিষদের নাম। আইনটি পাশ ও প্রস্তাবনার জন্য শিগগিরই মন্ত্রণালয় পাঠাবে নির্বাচন কমিশন।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর