channel 24

সর্বশেষ

  • লিংকনকে গোলবন্যায় ভাসালো লিভারপুল

  • মার্কিন নির্বাচনে বরাবরই উপেক্ষিত সংখ্যালঘুরা

  • সেভিয়াকে হারিয়ে উয়েফা সুপারকাপ সেরা বায়ার্ন মিউনিখ

  • বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত

  • কক্সবাজার জেলা পুলিশের ৬ শতাধিক কনস্টেবলকে একযোগে বদলি

  • সাভারে স্কুলছাত্রী নীলা হত্যায় প্রধান আসামির মা-বাবা গ্রেপ্তার

  • নাটোর ইনডোর স্টেডিয়াম নির্মাণে নয়ছয়ের অভিযোগ

  • বরগুনায় সংস্কারের অভাবে বেহাল দুইশো লোহার ব্রিজ

  • রাজধানীতে ঢাবি'র সাবেক ছাত্রের রহস্যজনক মৃত্যু

  • পদ্মাসেতুর রেল প্রকল্পে পিলারের উচ্চতা ও রাস্তার প্রশস্ততায় ত্রুটি

  • সিনহা হত্যার পর ঢেলে সাজানো হচ্ছে কক্সবাজার জেলা পুলিশ

  • ধরিত্রীকে বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রীর ৫ পরামর্শ

  • ২৯ ও ৩০ সেপ্টেম্বর বিমানের বিশেষ ফ্লাইট

  • ফুটবল নির্বাচন: ঢাকায় ভোট চেয়েছেন আসলাম-জনির সমন্বয় পরিষদ

  • অনিশ্চিত শ্রীলঙ্কা সফর, বন্ধ ক্রিকেটারদের করোনা পরীক্ষা

রাজধানীর কোতয়ালী থানার ওসির বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা

রাজধানীর কোতয়ালী থানার ওসির বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা

রাজধানীর কোতয়ালী থানার ওসিসহ ৫ পুলিশের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা দায়ের।

ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে রাজধানীর কোতোয়ালি থানার অফিসার্স ইনচার্জ মিজানুর রহমানসহ পাঁচ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এক ব্যবসায়ী।

সোমবার (১০ আগস্ট) ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সুফিয়ান নোমানের আদালতে এ মামলাটি করেন কোতোয়ালি থানার কাপড় ব্যবসায়ী সোহেল। আদালত এ বিষয় এখনো আদেশ দেয়নি।

আদালত মামলাটি পিবিআইকে তদন্ত করে ১৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

মামলার অপর আসামিরা হলেন- কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক পবিত্র সরকার (৪২), খালিদ শেখ (৪৫), সহকারী উপ-পরিদর্শক শাহিনুর রহমান (৪২), কনস্টেবল মো. মিজান (৫২) ও সোর্স মোতালেব।

দণ্ডবিধি ৪২০/৪০৬/৫০৬/১০৯/৩৪/৩৮৫/৩৮৬/৩৪৭ ধারাসহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫(১)(ক)(খ) ধারায় মামলাটি করা হয়েছে।

মামলাসুত্রে জানা যায়, মামলার বাদী সোহেলকে গত ২ আগস্ট কোতোয়ালি থানা এলাকার ওয়াইজঘাটে মামলার আসামিরা গতিরোধ করেন। এরপর আসামিরা দেহ তল্লাশি করে তার পকেটে থাকা দুই হাজার ৯০০ টাকা নিয়ে যান। টাকা ফেরত চাইলে জেএমবি বানিয়ে ক্রসফায়ারের হুমকি দেন এবং তার পকেটে ২১৪ পিস ইয়াবা দিয়ে থানা হাজতে নিয়ে যান। এরপর খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন এলে আসামিরা তাদের কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। দাবি করা চাঁদা না পেলে তাকে জেএমবি ও মাদক মামলায় চালান করে দেবে বলে হুমকি প্রদান করেন। এরপর পরিবার আসামিদের ২ লাখ টাকা প্রদান করেন। এরপর বাদীকে নন-এফআইআর মূলে আদালতে চালান করেন। হাজত থেকে বাদী বের হওয়ার পর ঘটনা প্রকাশ করলে ক্রসফায়ারের হুমকি দেন আসামিরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর