channel 24

সর্বশেষ

  • এসএম ফরহাদ স্কলারশিপ-২০২০ পেলেন দুই শিক্ষার্থী

  • দেশের অর্থনীতি অনেক এগুলেও আত্মতৃপ্তির সুযোগ নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

  • না ফেরার দেশে চলে গেলেন জেমস বন্ড তারকা স্যার শন কনরি

  • মহানবীর (সা) অবমাননা: কলকাতায় ফ্রান্স দূতাবাসের সামনে বিক্ষোভ

  • ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনের প্রচারণায় আ.লীগ-বিএনপি

  • টাঙ্গাইলে স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগে স্বামী আটক

  • পুঁজিবাজারে মিউনিসিপল বন্ডের অনুমোদন

  • ইতালিতে বাংলাদেশি কনস্যুলেটের বিরুদ্ধে সাংবাদিকের পাসপোর্ট আটকে রাখার অভিযোগ

  • মিনিয়েচার খেলনা খাতে বাড়ছে বিদেশি বিনিয়োগ, রপ্তানি হচ্ছে ইউরোপ-আমেরিকায়

  • খাগড়াছড়িতে প্রবারণা পূর্ণিমা উৎসব অনুষ্ঠিত

  • বসুন্ধরা কিংসে যোগ দিচ্ছেন আর্জেন্টাইন রাউল বেসেরা

  • হতাশার মাঝে প্রাপ্তি খুঁজছেন যুব বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক আকবর আলী

  • বঙ্গবন্ধু টি টোয়েন্টিতে ফিটনেসের কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে ক্রিকেটারদের

  • কাপ্তাই হ্রদে মাছের অভয়াশ্রম করতে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার: মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী

  • সাংবাদিকতায় আইন না থাকায় অপসাংবাদিকতা বেড়েছে: প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান

বাজেটে দরিদ্র ও হতদরিদ্রদের সুরক্ষায় বাড়ানো হয়েছে বরাদ্দ

বাজেটে দরিদ্র ও হতদরিদ্রদের সুরক্ষায় বাড়ানো হয়েছে বরাদ্দ

দেশের দরিদ্র ও হত দরিদ্র মানুষের সুরক্ষায় ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে সুবিধা ভোগীসহ বাড়ানো হয়েছে অর্থের বরাদ্দের পরিমাণ। প্রস্তাবিত এ বাজেটে সামাজিক নিরাপত্তা খাতে ১৩ হাজার ৭০৯ কোটি টাকা বাড়িয়ে মোট ৯৫ হাজার ৫৭৪ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে। তবে নতুন কর্মসংস্থান তৈরিতে উদ্যোগের কথা বললেও স্পষ্ট নির্দেশনা নেই অর্থমন্ত্রীর বাজেট বক্তব্যে।

এর আগে দেশে গরিব মানুষ ছিলো ৩ কোটি ৪০ লাখ। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর তথ্য বলছে, যাদের পৌনে দুই কোটিই হতদরদ্রি। করোনার প্রভাবে নতুন করে গরিব হয়েছেন, আরও বহু মানুষ। বিভিন্ন গবেষণা সংস্থা বলছে, পোশাক খাতসহ বিভিন্ন খাতে কাজ হারানোয় জীবন ধারণে মৌলিক চাহিদা মেটাতে না পারার শঙ্কায় পড়েছেন মোট জনসংখ্যার ৪১ শতাংশ।

এসব মানুষের সুরক্ষায় নতুন অর্থবছরে বাড়ানো হয়েছে বরাদ্দ। সেই সঙ্গে সুবিধা ভোগীর সংখ্যাও। সামাজিক নিরাপত্তা খাতে মোট বরাদ্দ ১৩ হাজার  ৭০৯ কোটি টাকা বাড়িয়ে, ৯৫ হাজার ৫৭৪ কোটি টাকা করার প্রস্তাব রেখেছেন অর্থমন্ত্রী। যা বাজেটের ১৬ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

বেকারের মিছিলে প্রতিবছরই যোগ হন ২০-২২ লাখ মানুষ। এবার বাড়তি মাথা ব্যাথার কারণ, নতুন কাজ হারানোরা। এডিবির বরাতে অর্থমন্ত্রী তার বক্তব্যেই জানিয়েছেন, এ সংখ্যান ১৪ লাখের মতো। কিন্তু তাদের কর্মসংস্থান তৈরিতে নেই সুনির্দিষ্ট কোনো দিক নির্দেশনা।

খাদ্য নিরাপত্তা, কৃষি, মৎস ও প্রাণসিম্পদ খাতে ২২ হাজার ৪৮৯ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখার প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী। যা চলতি অর্থবছরে ছিল ২১ হাজার ৪৮৪ কোটি টাকা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর