channel 24

সর্বশেষ

  • জিজ্ঞাসাবাদে ডা. সাবরিনা সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেননি: ডিসি হারুন

  • আন্তর্জাতিক সুপার মডেল মেহেরপুরের আসিফ আযীম

  • ঢাকা দক্ষিণে ৫ জায়গায় বসবে কারবানির পশুর হাট

  • ঐশ্বরিয়া ও তার মেয়ের করোনা পজেটিভ নিয়ে ধোঁয়াশা

  • আইসিসি সভাপতি হতে এখনই আগ্রহী নন সৌরভ গাঙ্গুলি

  • সাহেদের পালিয়ে যাবার সুযোগ নাই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  • রিজেন্টকাণ্ডে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত: ফখরুল

  • ইংলিশ লিগে টটেনহ্যামের মুখোমুখি হবে আর্সেনাল

  • জেকেজি'র চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা গ্রেপ্তার

  • রোনালদোর জোড়া গোলে ড্র করেছে জুভেন্টাস

  • স্প্যানিশ লিগে বার্সেলোনার কষ্টার্জিত জয়

  • করোনায় দেশে আরও ৪৭ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৬৬৬

  • করোনা পরীক্ষায় দুই প্রতিষ্ঠানের প্রতারণায় দেশবাসী বিস্মিত: কাদের

  • জমে উঠেছে ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম টেস্ট

  • রায়হানের ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করলো মালয়েশিয়া

সর্বোচ্চ শনাক্তের দিনে হাজার ছাড়ালো প্রাণহানি

সর্বোচ্চ শনাক্তের দিনে হাজার ছাড়ালো প্রাণহানি

দেশে করোনা সংক্রমণের ৯৫তম দিনে মৃত্যুর সংখ্যা হাজার ছাড়ালো। এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে মোট মৃতের সংখ্যা এক হাজার ১২ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৩৭ জন। আক্রান্ত তিন হাজার ১৯০ জন। মোট আক্রান্ত ৭৪ হাজার ৮৬৫ জন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এখনই ব্যবস্থা না নিলে মৃত্যু আর সংক্রমণের সংখ্যা আরো বাড়বে। এই ভাইরাস সংক্রমণ রোধে ব্যর্থ হবার সুযোগ নেই।

দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের প্রথম খবর আসে ৮ মার্চ। আর প্রথম মৃত্যুর খবর আসে এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ। সেদিন আইইডিসিআর থেকে ঘোষণা করা হয় ৭০ বছরের একজন বৃদ্ধ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।

এরপর দেশে বাড়তে থাকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা।

এই মৃত্যু ১শ'র ঘরে পৌঁছায় ২০ এপ্রিল। ৯ মে মৃত্যু সংখ্যা দাঁড়ায় ২১৪ জনে। এরপর উর্ধ্বমুখী ছিলো করোনায় মৃত্যুর মিছিল। মৃতের সংখ্যা ৫০০ ছোঁয় ২৫ মে। গত ১৫ দিনে সংখ্যাটা দ্বিগুন হয়েছে। ছাড়িয়েছে ১০০০ ল্যান্ডমার্ক। এই সময়ে সংক্রমনও দ্বিগুন হয়ে হাজার ছাড়িয়েছে।

পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, নারীর তুলনায় মৃত্যু হার বেশি পুরুষদের। ৭৭ শতাংশ পুরুষের বিপরিতে নারী মারা গেছে ২৩ শতাংশ।

বয়স বিবেচনায় সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে ষাটোর্ধ্বদের। এই বয়সীদের মৃত্যুর হার ৩৮.৯৯ শতাংশ। এরপর সবচেয়ে বেশি মৃত্যু ৫১-৬০ বছর বয়সীদের। হার ২৯.৬২ শতাংশ। আর ৪১-৫০ বছর বয়সীদের মধ্যে মৃত্যুর হার ১৭.৩৯ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে ৮১ থেকে ৯০ জনের মধ্যে একজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ৭ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৫ জন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ৩ জন এবং ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ১ জন। ৪৫ জনের মধ্যে ৩৩ জন পুরুষ ও ১২ জন নারী।

আইইডিসিআর'র উপদেষ্টা মুশতাক হোসেন বলেন, দেশে সংক্রমণ এবং মৃত্যু মাঝারি গতি পেয়েছে। বিধিনিষেধ না মানলে আক্রান্ত আর মৃতের সংখ্যা প্রতি সপ্তাহে বাড়তে থাকবে।

বিশ্বে ৩০টির বেশি দেশে করোনায় মৃত্যু এক হাজার ছাড়িয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যায় বাংলাদেশ নেমে গেছে ২০-এ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর