channel 24

সর্বশেষ

  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি খুনে মাফিয়াদের বিচার চান স্বজনরা

  • বাসভাড়া বৃদ্ধি মরার উপর খাড়াঁর ঘা

  • সীমিত পরিসরে সেবার নামে বাসভাড়া ৮০ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব

  • চট্টগ্রামে এবার চিকিৎসা পেলেন না স্বাস্থ্য পরিচালকের মা!

  • কক্সবাজারে নতুন করে ২৬ জন করোনায় আক্রান্ত

  • ভার্চুয়াল শপথ নিলেন ১৮ বিচারপতি

  • করোনাকালে অসহায়দের পাশে 'ওল্ড ল্যাবরেটরি অ্যাসোসিয়েশন'

  • মেহেরপুরে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন তিন চিকিৎসক

  • রিয়াল বেতিস-সেভিয়া ম্যাচ দিয়ে মাঠে ফিরছে লা লিগা

  • প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা ছাড়া কোনো রোগীকে ফেরত দেওয়া যাবে না

  • সোমবার শুরু হচ্ছে অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চলাচল

  • কাল শুরু হচ্ছে সীমিত আকারে ট্রেন চলাচল

  • চট্টগ্রামে ১০ দিনে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুন

  • চলে গেলেন সাবেক তারকা ফুটবলার গোলাম রব্বানী হেলাল

  • করোনায় দেশে আরও ২৮ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১৭৬৪

কর্মহীন দেশে ফেরত ৮৭ ভাগ প্রবাসি শ্রমিক; সঞ্চয় ভেঙে কাটছে দিন

কর্মহীন দেশে ফেরত ৮৭ ভাগ প্রবাসি শ্রমিক; সঞ্চয় ভেঙে কাটছে দিন

করোনা সংকটে দেশে ফেরত প্রবাসি শ্রমিকদের ৮৭ শতাংশেরই এখন কোন আয়ের উৎস নেই। নিজের সঞ্চয় যা নিয়ে দেশে ফেরত এসেছেন সেটি দিয়েও চলবে মাস তিনেক। এদের মধ্যে ৫২ শতাংশ শ্রমিক দ্রুত আর্থিক সহায়তা চান। গেল কয়েক মাসে দেশে ফেরত আসা ৫৫৮ জনের উপর জরিপ চালিয়ে এমন তথ্য পেয়েছে ব্র্যাক। শুক্রবার জরিপটি প্রকাশ করা হয় গণমাধ্যমের জন্য।

বৈধ কাগজ না থাকা আর বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারেন গেল কয়েক মাসে বাংলাদেশে ফেরত এসেছে প্রায় লাখ খানেক শ্রমিক। তাদের মধ্যে ৫৫৮ জনের সাথে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলে ব্র্যাক। সেই জরিপ অনুযায়ী, বর্তমানে ৮৭ শতাংশেরই এখন কোন আয়ের উৎস নেই। ৩৩ শতাংশ শ্রমিক নিজের সঞ্চয় নিয়ে চলতে পারবে আসছে তিনমাস। আর ৫২ শতাংশ বলছে দ্রুত দরকার আর্থিক সহায়তা।

ফিরে আসা শ্রমিকদের প্রতি যেন কোন বৈষম্যমূলক আচরন না করা হয়, তা নিয়ে পাঁচটি পরামর্শ দেওয়া হয় এ জরিপে। একই পরামর্শ দিয়েছেন, অভিবাসন বিশ্লেষকরাও। 

এত কিছুর মধ্যেও শুধু মে মাসের ২০ দিনে প্রবাসিরা পাঠিয়েছেন ১০৯ কোটি ডলার টাকার অংকে যার পরিমান প্রায় সাড়ে নয় হাজার কোটি টাকা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ছুটিতে আসা শ্রমিকরা আবার যেন কাজে যোগ দিতে পারে, সেই কূটনীতিক চেষ্টা দ্রুত চালিয়ে যাবারও পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

 

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর