channel 24

সর্বশেষ

  • কুমিল্লার জিয়াপুর ও বিরামকান্দি গ্রাম লকডাউন

  • চীনের প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর চিঠি

  • করোনায় ভিন্ন আঙ্গিকে পালিত হচ্ছে পবিত্র শবে বরাত

  • জাতীয় অধ্যাপক ও ভাষা সৈনিক ড. সুফিয়া আহমেদ মারা গেছেন

  • বিশ্বজুড়ে ভারি হচ্ছে লাশের পাল্লা, প্রাণহানি ছাড়িয়েছে ৯০ হাজার

  • রোহিঙ্গা ক্যাম্পে করোনা সংক্রমণ রোধে বিশেষ ব্যবস্থা

  • শবে বরাতে ঘরে বসে ইবাদতের পরামর্শ, কবরস্থান-মাজারে যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা

  • দেশে প্রথমবারের মতো একদিনে আক্রান্ত শতাধিক

  • খাগড়াছড়িতে হামের প্রকোপ, আক্রান্ত ২ শতাধিক শিশু

  • অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর স্থগিত

  • লকডাউনের পরও রাজধানীতে মানুষকে ঘরে রাখা যাচ্ছে না

  • ব্যক্তিগত-প্রাতিষ্ঠানিক ত্রাণের তালিকায় নেই শিশু খাদ্য

  • নারায়ণগঞ্জে ডিসি, সিভিল সার্জনসহ কয়েকজন শীর্ষ কর্মকর্তা হোম কোয়ারেন্টিনে

  • ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে ৫ টাকায় সবজি বাজার

  • নাটোরের সিংড়ায় করোনা উপসর্গ নিয়ে গৃহবধূর মৃত্যু, পুরো গ্রাম লকডাউন

২৫ মাস পর শর্তসাপেক্ষে মুক্ত খালেদা জিয়া

২৫ মাস পর শর্তসাপেক্ষে মুক্ত খালেদা জিয়া

২৫ মাস সাজা ভোগের পর মানবিক বিবেচনায় সরকারের নির্বাহী আদেশে শর্তসাপেক্ষে ৬ মাসের জন্য মুক্তি পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। বুধবার (২৫ মার্চ) বিকেল সোয়া ৪টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিজন সেল থেকে ছাড়া পান তিনি। হাসপাতাল থেকে সরাসরি গুলশানের বাসভবনে নিয়ে যাওয়া হয় বেগম জিয়াকে।

বেলা ২টার কিছুপর কারা কর্তৃপক্ষ মুক্তির ছাড়পত্র নিয়ে বিএসএমএমইউতে যায়। এসময় তার ভাই শামীম ইস্কান্দার, বোন সেলিনা ইসলামসহ পরিবারের সদস্যরাও সঙ্গে যান। বেলা আড়াইটার দিকে তাঁদের গাড়ি হাসপাতাল চত্বরে ঢোকার পরই কয়েকশ নেতাকর্মী সেখানে জড়ো হন।

২০০৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারী থেকে জিয়া চ্যারিটেবল ও অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজা ভোগ করছিলেন বেগম খালেদা জিয়া। গতকাল খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে সরকারের সিদ্ধান্তের কথা জানান আইনমন্ত্রী। বলেন, খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায় মানবিক কারণে সরকার সদয় হয়ে দন্ডাদেশ স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

মুক্তির শর্ত উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, শর্ত দুটি হলো 'বেগম জিয়া এ সময় ঢাকায় তার নিজ বাসায় অবস্থান করবেন এবং এসময় তিনি দেশের বাইরে যেতে পারবেন না।'

উল্লেখ্য, দুই বছরেরও বেশি সময় কারাভোগের পর পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়ার বয়স বিবেচনায় এবং মানবিক কারণে তার দণ্ডাদেশ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

এর আগে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজা পেয়ে কারাগারে আছেন বেগম খালেদা জিয়া। বর্তমানে তিনি বিএসএমএমইউ হাসপাতালের কেবিন ব্লকে চিকিৎসাধীন।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রথমে পাঁচ বছরের এবং পরবর্তী সময়ে তা বাড়িয়ে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। অন্যদিকে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ৭ বছরের কারাদণ্ড হয়েছে তার। এই দুই মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মোট ১৭ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর