channel 24

সর্বশেষ

  • স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের শোকজের জবাব দিয়েছেন ডিজি

  • উত্তরাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি

  • সাহেদকে নিয়ে উত্তরায় অভিযান চালাচ্ছে র‌্যাব

  • জয়ের ধারায় ফিরেছে চেলসি

  • চিরনিদ্রায় শায়িত প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোর

  • টাঙ্গাইলে শাজাহান সিরাজের প্রথম জানাজা সম্পন্ন

  • ময়ূর-২ লঞ্চের দুই চালক গ্রেফতার

  • এসআইকে সাইড না দেয়ায় এমপির গাড়ি চালককে মারধর

  • খুলনায় বিড়ি খাওয়া নিয়ে মারামারিতে মাদকসেবীর মৃত্যু

  • সাহেদ করিম থেকে মোহাম্মদ সাহেদ

  • প্লেব্যাক সম্রাট এন্ড্রু কিশোরের শেষকৃত্যানুষ্ঠান

  • পাঠাওয়ের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ফাহিম সালেহ'র খণ্ড-বিখণ্ড মরদেহ উদ্ধার

  • বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভিসা বাতিলের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে ট্রাম্প

  • সাতক্ষীরা থেকে ঢাকায় আনা হলো সাহেদকে

  • নিজ পরিচয় আড়াল করতে চুল ছোট, রঙ পরিবর্তন ও বোরকা পরে সাহেদ

মশা নিয়ন্ত্রণেই ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ: আইইডিসিআর

মশা নিয়ন্ত্রণেই ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ: আইইডিসিআর

এবার ডেঙ্গুর প্রকোপ নির্ভর করছে এডিস মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের ওপর। শহরের পাশাপাশি গ্রামেও চালাতে হবে কার্যক্রম। এমনটাই বলছে আইইডিসিআর। আর ঢাকায় মশা নিয়ন্ত্রণে এরই মধ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন। তবে ডেঙ্গু প্রতিরোধে ব্যক্তি সচেতনতা জরুরি বলেও মত তাদের।

গেল বছর ঢাকা-সহ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে, ডেঙ্গু জ্বর। এতে আক্রান্ত হন, ১ লাখ ১ হাজার ৩৫৪ জন। সরকারি হিসাবে মৃত্যুর সংখ্যা ১শর বেশি।

সমালোচনার মুখে পড়ে, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। এই ইস্যু গড়ায় উচ্চ আদালতেও।

তবে এ বছর ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ কেমন হবে, তা নিশ্চিত করে বলতে পারছে না রোগ তত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউট-আইইডিসিআর। সংস্থাটি বলছে, সব কিছু নির্ভর করছে, মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে ওপর।

আইইডিসিআরের পরিচালক সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, গতবছর আমরা বেশিরভাগ দেখেছি সেরোটাইপ ৩। যদি অন্যকোন সেরোটাইপ না আসে সেক্ষেত্রে সেরোটাইপ ৩ এ আমরা আশা করছি যে আগের থেকে আমাদের ইমিউনিটি লেভেল বেড়েছে যার কারণে এটা একজনের থেকে আরেকজনের কাছে ছড়বে না।

আইইডিসিআরের পরামর্শ, এবার মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে, গ্রামকে বেশি গুরুত্ব দেয়া উচিত। সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, গ্রামগুলো আগেরমত নেই, এখন আগের থেকে অনেক উন্নত হয়ে শহর-গ্রামের মিশ্রণ হয়ে গেছে। গ্রামে পানি জমা থাকার জায়গাগুলো আলাদা। আর তাই আমরা আমাদের সচেতনতা তথ্যগুলো গ্রামকে ফোকাস করে দেয়ার চেষ্টা করছি।

যদিও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রি. জেনারেল মোঃ শরীফ আহমেদের দাবি, এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে পর্যাপ্ত পদক্ষেপ নিয়েছেন তারা। প্রতিটি ওয়ার্ডেই ছেটানো হচ্ছে ওষুধ। তিনি বলেন, আমাদের একটা টিম বাড়ি বাড়ি গিয়ে সোর্স খুঁজে বের করে রিডাকশনের কাজ করছে। এই মাস পরযন্ত থাকবে, ১৫টি বাড়ি প্রতিদিন, প্রতিটি ওয়ার্ডে। এছাড়াও আমাদ্র বিভিন্ন কর্মকান্ড চলছে।

মশা নিয়ন্ত্রণে জনসচেতনতাকেও বেশ গুরুত্ব দিচ্ছেন নীতিনির্ধারকরা।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর