channel 24

সর্বশেষ

  • নারীকে দাফনের পর জানা গেলো করোনা আক্রান্ত; ১০০ পরিবার লকডাউনে

  • মক্কা-মদিনায় কারফিউ জারি

  • করোনাভাইরাসে বিশ্বে প্রাণহানি ৫০ হাজার ২৩০

  • সুনামগঞ্জে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা ওমানফেরত একজনের মৃত্যু

  • রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসকের ব্যতিক্রম ত্রাণ বিতরণ

  • করোনা শনাক্তে বিনামূল্যে নমুনা পরীক্ষা শুরু

  • দরকার ছাড়া বেরুলেই ফেরত পাঠানো হচ্ছে ঘরে

  • সপ্তাহ না পেরুতেই ধৈর্যহারা নগরবাসী; দরকার ছাড়াও বেরুচ্ছেন বাইরে

  • পিপিই পরে সাঈদ খোকনের ত্রাণ বিতরণ

  • মুখে মাস্ক পরে ফ্লিমি স্টাইলে ফার্মেসিতে ডাকাতি

  • স্পেনে একদিনে প্রাণহানি ৯৫০, মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে

  • করোনা গিলে খাচ্ছে গোটা বিশ্ব; প্রাণহানি ৫০ হাজার ছাড়িয়েছে

  • গ্রামীণ জনপদে দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল কতটা সম্ভব?

  • চট্টগ্রামে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে কমেছে রোগী, বন্ধ প্রাইভেট চেম্বারও

  • গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪১ জনের নমুনা পরীক্ষা: আইইডিসিআর

ফিটনেস ও লাইসেন্সবিহীন গাড়ির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে টাস্কফোর্স গঠনের নির্দেশ

ফিটনেস ও লাইসেন্সবিহীন গাড়ির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে টাস্কফোর্স গঠনের নির্দেশ

সারা দেশে চলাচলের অনুপযোগী, ফিটনেসহীন ও অনিবন্ধিত যান চলাচল তদারকি ও বন্ধে এবং নতুন সড়ক আইন-২০১৮ বাস্তবায়নে প্রত্যেক জেলায় টাস্কফোর্স গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদেশে জেলা প্রশাসকের (ডিসি) নেতৃত্বে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) তত্ত্বাবধানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের টাস্কফোর্সে রাখতে বলা হয়েছে।

জনপ্রশাসন সচিব, স্বরাষ্ট্রসচিব, সড়ক ও সেতু সচিবের প্রতি এই নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। বিআরটিএর পক্ষে ছিলেন মঈন আলম ফিরোজী ও রাফিউল ইসলাম।

পরে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক জানান, শুনানির নির্ধারিত দিনে বিআরটিএ আদালতকে বলেছে জনবল সংকটের কারণে ফিটনেসবিহীন গাড়ির বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করতে পারছে না। তাই তারা টাক্সফোর্স গঠনের আবেদন করেন। পরে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সচিবকে এই টাস্কফোর্স গঠনের নির্দেশ দেন। টাস্কফোর্স জেলা প্রশাসকরা গঠন করবেন। এতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ ও বিআরটিএ প্রতিনিধিসহ জেলা প্রশাসক প্রয়োজনবোধে অন্যদেরও অন্তর্ভুক্ত করতে পারবেন। এই টাস্কফোর্স সব গাড়ির কাগজপত্র যাচাই করতে পারবে এবং ফিটনেসবিহীন, আনফিট ও রেজিস্ট্রেশনবিহীন গাড়ি আটক, চালককে গ্রেফতার, জরিমানা ও গাড়ি ডাম্পিং করতে পারবেন।

আগামী তিন মাস পর এই আদেশের অগ্রগতির প্রতিবেদন হাইকোর্টকে জানাতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর