channel 24

সর্বশেষ

  • শালিক পাখির আনাগোনায় মুখরিত কুষ্টিয়া শহরের অলিগলি

  • লালমনিরহাটে অবমুক্ত ৪০ ভূমিহীন পরিবার

  • হাইকোর্টের কিছু রায় নিম্নমানের: আপিল বিভাগ

  • ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ, জমি দখলসহ ১৮ অভিযোগ

  • গণফোরামে অভ্যন্তরীণ কোন্দল চরমে

  • বাফুফে নির্বাচনে সভাপতি প্রার্থী হবেন না তরফদার রুহল আমিন

  • ৫ দিনের মধ্যেই ভোলায় আরেক শিশু ধর্ষণ

  • করোনাভাইরাস: চীনে আরও ১০০ জনের মৃত্যু

  • সাড়ে ৩ ঘন্টা পর বঙ্গবন্ধু সেতুর টোল আদায় শুরু, যান চলাচল শুরু

  • অভ্যন্তরীণ বিরোধে চট্টগ্রামে মেয়র পদে টিকিট মেলেনি নাছিরের

  • ফতুল্লায় ডাইং কারখানা দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

  • পীরগঞ্জে ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ৭৮তম জন্মবার্ষিকী পালিত

  • নারায়ণগঞ্জে গ্যাসের চুলার লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ, নিহত ১

  • বরিশাল বিএম কলেজে জীবনানন্দ মেলা

  • রোনালদোকে ছাড়াই দারুণ জয়ে শীর্ষে উঠেছে জুভেন্টাস

ই-পাসপোর্টের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ফটোগ্রাফ নেয়া হয়েছে

ই-পাসপোর্টের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ফটোগ্রাফ নেয়া হয়েছে

ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট বা ই-পাসপোর্টের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফটোগ্রাফ নেয়া হয়েছে। আগামী ২২ জানুয়ারি থেকে ই-পাসপোর্ট প্রদান শুরু হতে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব কে এম শাখাওয়াত মুন জানান, ‘অভিবাসন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর(ডিপিআই) কর্তৃপক্ষ আজ রোববার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে তার ফটোগ্রাফ সংগ্রহ করেছে।

তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী ই-পাসপোর্টের জন্য একটি ডিভাইসে তার ডিজিটাল স্বাক্ষরও দেন। এ সময় ই-পাসপোর্ট প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাইদুর রহমান খান উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ২২ জানুয়ারি বুধবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ই-পাসপোর্ট বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন।

ডিপিআই’র মহাপরিচালক মেজর জেনারেল শাকিল আহমেদ বলেন, প্রথম ধাপে রাজধানীর আগারগাঁও, উত্তরা ও যাত্রাবাড়ী পাসপোর্ট কার্যালয় থেকে এটি দেওয়া হবে। পরে ধাপে ধাপে সারা দেশের পাসপোর্ট কার্যালয় থেকে ই-পাসপোর্ট দেয়া হবে। জার্মান কোম্পানি ভেরিদোস জিএমবিএইচ দেশে ই-পাসপোর্ট ও ই-গেট নিয়ে কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ই-পাসপোর্ট চালুর মাধ্যমে অভিবাসন প্রক্রিয়া ত্রুটিমুক্ত করার চেষ্টা চলছে।

আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান পরিবহন সংস্থা(আইসিএও)’র মতে বর্তমানে এক শ’র বেশি রাষ্ট্র ও সংস্থা(জাতিসংঘ) ই-পাসপোর্ট ইস্যু করছে এবং ৪৯ কোটি ই-পাসপোর্ট চালু রয়েছে। ই-পাসপোর্ট প্রচলিত সাধারণ পাসপোর্টের চেয়ে বেশি নিরাপদ। যাতে পাসপোর্টধারীর ব্যক্তিগত তথ্য সম্বলিত একটি ইলেক্ট্রনিক চিপ সংযুক্ত থাকে।

প্রকল্প বিবরণী অনুযায়ী ৪ হাজার ৫শ' ৪৯ কোটি টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। ডিপিআই সম্পূর্ণ সরকারি খরচে ২০১৮ থেকে ২০২৮ মেয়াদের মধ্যে এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। ই-পাসপোর্ট চালুর মাধ্যমে পুরো অভিবাসন প্রক্রিয়াটি অনলাইনে সম্পন্ন হবে।

মোট ৩ কোটি পাসপোর্ট প্রদান করা হবে। এর মধ্যে ২ কোটি পাসপোর্ট জার্মানি থেকে তৈরি করে আনা হবে। যারা প্রথমে আবেদন করবেন তারা জার্মানির তৈরি ই-পাসপোর্ট পাবেন। এর মেয়াদ হবে পাঁচ ও দশ বছর।

ডিপিআই ও ভেরিদোস ২০১৮ সালের ১৯ জুলাই মেশিন রিডেবল পাসপোর্টের পাশাপাশি ই-পাসপোর্টের জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয় খবর